Rahul Gandhi
ছবি: টুইটার থেকে

ওয়েবডেস্ক: শনিবার প্রদেশ কংগ্রেসের নবমনোনীত কমিটির সঙ্গে বৈঠক করলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী। এ দিনের বৈঠকে প্রদেশ কংগ্রেসকে শক্তিশালী করে তুলতে রাজ্যের সমস্ত নেতাকে একত্রিত হয়ে কাজ করার নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি জানিয়ে দেন, আসছে দুর্গাপুজোয় জনসংযোগ বাড়ানোর উদ্দেশে তিনি কলকাতায় আসবেন।

অধীররঞ্জন চৌধুরীকে সরিয়ে আকস্মিক ভাবেই সোমেন মিত্রকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতিপদের দায়িত্ব দিয়েছেন রাহুল। অন্য দিকে অধীরবাবুকে দেওয়া হয়েছে প্রচার কমিটির চেয়ারম্যানের পদ। এ ব্যাপারে রাজনীতির কারবারিদের অভিমত, আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যস্তরে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন বিজেপি-বিরোধী কথা ভেবেই এই রদবদল। তবে এ দিনের বৈঠকে তৃণমূল কংগ্রেস বা বামেদের সঙ্গে জোট প্রসঙ্গে তেমন কোনো আলোচনা হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। বৈঠক থেকে বেরিয়ে সোমেনবাবু বলেন, তিনি আশ্বস্থ হয়েছেন জোর করে জোট চাপিয়ে দেওয়া হবে না।

রাহুলও সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসকে শক্তিশালী করে তোলাই আমার এক মাত্র লক্ষ্য। দলের আত্মসম্মান বিসর্জন দিয়ে কংগ্রেস অন্য কোনো দলের সঙ্গে নির্বাচনী জোটে যাবে না”। একই সঙ্গে তিনি জোটের বিষয়ে প্রদেশ নেতৃত্বের মতকেই অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা বলেন। এ দিনের বৈঠক যে সৌহার্দ্যপূর্ণ ভাবেই হয়েছে, সে কথাও জানান তিনি। ওই বৈঠকেই প্রদেশ নেতৃত্বের তরফে তাঁকে পুজোর সময় কলকাতায় আসার আমন্ত্রণ জানানো হয়।

যুব সভাপতি নির্বাচনে অধীর-সোমেন দ্বৈরথের অপেক্ষায় প্রদেশ কংগ্রেস!

এর পরই রাহুল বলেন, দুর্গাপুজোর উৎসবের দিনগুলিতে যে কোনো এক দিন তিনি কলকাতায় আসবেন। জানা গিয়েছে, কলেজ স্কোয়ারের পুজোয় উপস্থিত থেকে দর্শনার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জনসংযোগের কাজ করতে পারেন রাহুল।

প্রদেশ নেতৃত্ব রাহুলের সম্মতি পাওয়ার পর তাঁর কলকাতার পুজো-পরিক্রমার ব্যাপারে আগাম আয়োজন সেরে রাখবেন বলেও জানা গিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন