Rahul Gandhi
ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: জাতীয় কংগ্রেসের কার্যকরী সমিতির বৈঠকে দলের সর্বভারতীয় সভাপতিপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করলেন রাহুল গান্ধী। এ দিন দিল্লিতে এই উচ্চস্তরের বৈঠকে তিনি ইস্তফা দেওয়ার কথা জানালে তাঁকে বিরত করেন উপস্থিত কংগ্রেস নেতৃত্ব।

এ দিন সকাল ১১টা থেকে দেশ জুড়ে নির্বাচনী বিপর্যয়ের পর্যালোচনায় শুরু হয় কংগ্রেসের কার্যকরী কমিটির বৈঠক। সেখানে যোগ দিয়েছেন সনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, রাজ্যসভার দলনেতা গুলাম নবি আজাদ, মল্লিকার্জুন খাড়গে ও পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরেন্দ্র সিং-সহ অন্যান্য কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। শুরু থেকেই এ বারের লোকসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল না-হওয়ার ব্যাপারে খোলামেলা আলোচনা হয়। প্রচারে নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে যে ভাবে আক্রমণের সুর চড়ানো হয়েছিল, তার ফল কেন ইভিএমে মিলল না, সে সমস্ত বিষয়েই পর্যালোচনা হয়। একই সঙ্গে এই বিপর্যয়ের দায় মাথায় নিয়ে দলের সর্বভারতীয় সভাপতিপদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা জানান রাহুল।

দলীয় সূত্রে খবর, পরাজয়ের জন্য ‘১০০ শতাংশ দায়’ নিয়েছেন রাহুল। তিনি মনে করেন, রাফাল দুর্নীতি বা চৌকিদার ইস্যু-সহ কর্মসংস্থান, শিল্পোন্নয়নকে হাতিয়ার করে তিনি যে ভাবে প্রচারে সুর চড়িয়েছিলেন, তার প্রতিফলন দেখা যায়নি নির্বাচনী ফলাফলে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here