Indian Railways

ওয়েবডেস্ক: ডিজিটাল লেনদেনে উৎসাহ দিতে গিয়ে নিজেদের একটি সংস্থাকেই বিপদের মুখে ফেলে দিল কেন্দ্র। বিমুদ্রাকরণের পর থেকেই টিকিট বাবদ আয় কমেছে ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশনের (আইআরসিটিসি)। কারণ, পরিষেবা কর বন্ধ।

২০১৬-এর নভেম্বরে বিমুদ্রাকরণ ঘোষণা করার পরে সাধারণ মানুষকে নগদহীন লেনদেনে উৎসাহ দিতে রেলের ই-টিকিটে পরিষেবা কর বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্র। এর আগে অনলাইন টিকিটে পরিষেবা কর নিত আইআরসিটিসি। নন-এসি কামরায় প্রতি টিকিটবাবদ কুড়ি টাকা এবং এসি কামরায় টিকিটবাবদ ৪০ টাকা পরিষেবা কর নেওয়া হত।

ইকোনমিক টাইম্‌স জানাচ্ছে ২০১৬-১৭-তে টিকিট বাবদ আইআরসিটিসির আয় হয় ৪৬৬.৫০ কোটি টাকা। যেটা তার আগের অর্থবর্ষের তুলনায় ২৬ শতাংশ কম। অন্য দিকে ওই অর্থবর্ষে টিকিট বিক্রির সংখ্যা আগের বছরের থেকে বেশ বেড়েছে। ২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে আইআরসিটিসির পোর্টাল থেকে থেকে দু’কোটি ৯ লক্ষ টিকিট বিক্রি হয়েছে, তার আগের অর্থবর্ষে টিকিট বিক্রির সংখ্যা ছিল এক কোটি ৯৯ লক্ষ। সুতরাং টিকিট বিক্রি বেড়েছে পাঁচ শতাংশ। টিকিট বিক্রি পাঁচ শতাংশ বাড়লেও, মোট টিকিটের মূল্য বেড়েছে মাত্র ২ শতাংশ।

রেলের টিকিট ছাড়াও পর্যটন, ক্যাটারিং, জলের (রেল নির) ব্যবসাও রয়েছে আইআরসিটিসির। গত এক বছরে আইআরসিটিসির আয় বেড়েছে ৪.৭ শতাংশ, তবে লাভের পরিমাণ বেড়েছে মাত্র ৭ শতাংশ। এর মধ্যে থেকে সব থেকে ভালো আয় হচ্ছে পর্যটন বিভাগে। যেখানে আয় বেড়েছে ৪১ শতাংশ। পর্যটন বিভাগের এই আয় বাড়ার সুবাইদেই আইআরসিটিসির মোট আয় গত এক বছরে বেড়েছে ৩৪ শতাংশ।

আইআরসিটিসির চেয়ারম্যান এমপি মাল বলেন, “পরিষেবা কর বাতিল করার প্রভাব এই অর্থবর্ষে আরও বেশি করে পড়বে। তবে টিকিটের দিক থেকে যে ক্ষতির সম্মুখীন আমরা হচ্ছি, সেগুলো পর্যটনের আয় দিয়ে পুষিয়ে দেব।” পর্যটনের আয় বাড়ানোর জন্য অভ্যন্তরীণ কিছু পর্যটন সার্কিটও ঘোষণা করতে চলেছে আইআরসিটিসি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here