নয়াদিল্লি: ভারতীয় রেলের তরফে ভাড়া বৃদ্ধির কোনো প্রস্তাব নেই বলে আজ সংসদে জানিয়ে দিলেন রেল প্রতিমন্ত্রী। লোকসভায় সরকারি ভাবে পেশ করা লিখিত বক্তব্যে মন্ত্রী রাজেন গোহৈন জানান, এ মুহূর্তে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ভাড়া বাড়ানোর কোনো প্রস্তাবই রাখা হচ্ছে না। তাঁর এই প্রস্তাবকে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি স্বাগত জানালেও পরিষেবার মানোন্নয়ন এবং স্পেশাল ট্রেনের অতিরিক্ত চার্জ নিয়ে তির্যক মন্তব্য উড়ে আসে।

মন্ত্রী জানান, জাতীয় স্তরে রেলে যাত্রী বেড়েছে .৬৮ শতাংশ। আবার এপ্রিল-নভেম্বর সময়কালে গত বছরের তুলনায় দিল্লি-মুম্বাই রেল পথে যাত্রী বৃদ্ধির হার .৯৯ শতাংশ। অপ্রতুল ট্রেন সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী জানান, উৎসবের মরশুম বা বিশেষ সময়ে বাড়তি ট্রেনের বন্দোবস্ত করছে সরকার। যাত্রীবাহী ট্রেনের পাশাপাশি পণ্য পরিবহণের ক্ষেত্রেও সরকার সময় বিশেষে বাড়তি ট্রেন চালাতে সক্ষম হয়েছে। আগামী দিনে ওই ধরনের স্পেশাল ট্রেনের সংখ্যা বৃদ্ধির দিকেও নজর দেওয়া হবে।

তবে স্পেশাল ট্রেনের ক্ষেত্রে বাড়তি ভাড়ার প্রস্তাবে কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না। তালিকা বহির্ভূত ট্রেনের ক্ষেত্রে দ্বিতীয় শ্রেণীর সংরক্ষিত কামরায় ১০ শতাংশ অতিরিক্ত চার্জ এবং বাকি সমস্ত সংরক্ষিত কামরার জন্য অতিরিক্ত ৩০ শতাংশ চার্জ বহাল থাকবে বলে মন্ত্রী জানান।

মন্ত্রী স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেন, এক মাত্র ওই স্পেশাল ট্রেনের প্রস্তাবিত চার্জ সংযোজন ব্যতিরেকে সাধারণ ক্ষেত্রে ভাড়া বাড়ানোর কোনো প্রস্তাবই রেলওয়ের পক্ষ থেকে রাখা হয়নি।

উল্লেখ্য, গত কয়েক দিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল এ বারের বাজেটে রেলের বাড়া বাড়তে পারে। যা সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেই আলোচনার জন্য উপস্থাপন করতে পারে এনডিএ সরকার। বিরোধী দলগুলিও এ বিষয়ে সরকারকে তীব্র ভাবে আক্রমণ শানানোর যাবতীয় বন্দোবস্থ সেরে ফেলছিল। কিন্তু আকস্মিক ভাবে মোদী-সরকার উল্টো পথেই হাঁটল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন