৬৫০ কোটি টাকা ঋণ খেলাপ কাণ্ডে নাম জড়াল রেলমন্ত্রী ও তাঁর স্ত্রীর

0
5517
modi

ওয়েবডেস্ক‌: শিল্পপতিদের ঋণ দিয়ে প্রতারিত হওয়া ব্যাঙ্কগুলিকে নিয়ে এখন সাধারণ মানুষের মনে চরম আশঙ্কা ঘনীভূত হয়েছে। ঠিক তেমন সময়েই প্রকাশ্যে এল এমন একটি সংস্থার নাম, যার তৎকালীন ডিরেক্টর ছিলেন বর্তমানে দেশের রেলমন্ত্রী তথা মোদী মন্ত্রিসভার গুরুত্বপূর্ণ ‘মাথা’ পীযূষ গোয়ল। ওই সংস্থা এবং তার সহযোগী সংস্থা মিলিয়ে ঋণ খেলাপের পরিমাণ প্রায় ৬৫০ কোটি টাকা।

দ্য ওয়্যার-এ প্রকাশিত ৬৫০ কোটি টাকার ঋণখেলাপি সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে পীযূষ গোয়েল ও তাঁর পরিবারের প্রতিবেদনটিতে এমন অভিযোগই প্রকাশ্যে এসেছে। দাবি করা হয়েছে, ওই সংস্থাটি মুম্বইয়ের ল্যামিনেটস প্রস্তুতকারী সংস্থা শিরিডি ইন্ডাস্ট্রিজ। ২০১০ সালে যে সংস্থাকে বাণিজ্যিক বিশ্লেষক ও পরামর্শদাতা ক্রিসিল ‘লাল পতাকা’ দেখায়, সেই সময়ে সেই সংস্থার ডিরেক্টর ছিলেন মোদীর ‘বিপত্তারণ’ নামে পরিচিত পীযূষ গোয়ল।

ওই সময়কালে সংস্থাটি যখন সরকারি ব্যাঙ্কের কাছে ঋণ খেলাপের দায়ে ক্রিসিল দ্বারা অভিযুক্ত হয়েছে তখন তারা আরও একটি কৌশল অবলম্বলন করে ঋণের বহর বাড়িয়ে নিয়েছে। জানা গিয়েছে, পীযূষের স্ত্রী সেই সময় ইন্টারকন অ্যাডভাইজার্স প্রাইভেট লিমিটেড নামে সংস্থা খুলে অসুরক্ষিত ঋণের পরিমাণ বাড়িয়ে নিয়েছে।

২০১৬ সালে জমা করা রিপোর্টে শিরিডি ইন্ডাস্ট্রিজ জানিয়েছিল, তাদের অধীনে আরও একটি সংস্থা, অ্যাসিস ইন্ডাস্ট্রিজের কাছে ১.৫৯ কোটি টাকা আউটস্ট্যান্ডিং রয়েছে। এমনকি, অ্যাসিস যেমন গোয়লের স্ত্রীর সংস্থার কাছ থেকে ধার নিয়েছে তেমনই প্রভিডেন্ট ফান্ডে শিরিডির অর্থ খেলাপের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে চার কোটি টাকা।

শিরিডি ইন্ডাস্ট্রিজ যে শুধু ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হয়েছে তা নয়, ওই সংস্থাকে ঋণ দেওয়া ব্যাঙ্কগুলি ন্যাশনাল কোম্পানি ল ট্রাইবুনালে গিয়ে ঋণের ৬০ শতাংশ পর্যন্ত ‘হেয়ার কাটে’ও সম্মত হয়েছে।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here