গ্যাসের পর ট্রেনটিকিট, ভর্তুকি ছেড়ে দেওয়ার আবেদন জানিয়ে ‘গিভ ইট আপ’ প্রচার রেলের

0
317

নয়াদিল্লি: এলপিজির পর এ বার ট্রেনের টিকিট। ভর্তুকি ছেড়ে দেওয়ার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানিয়ে ‘গিভ-ইট-আপ’ প্রচার শুরু করতে চলেছে রেল মন্ত্রক। আগস্ট মাসে থেকে এই প্রকল্প শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল।

এলপিজির ভর্তুকি ছেড়ে দেওয়ার জন্য গত বছর বিশেষ প্রচার করেছিল পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক। মন্ত্রকের দাই, কেন্দ্রের ওই প্রকল্পটি সফল হয়েছে। প্রায় এক কোটি পাঁচ লক্ষ গ্রাহক তাদের ভর্তুকি ছেড়ে দিয়েছে। এর ফলে কেন্দ্রের কোষাগারে ঢুকেছে বাড়তি চার হাজার কোটি টাকা।

এই প্রকল্পের ব্যাপারে রেলের এক আধিকারিক বলেন, “এই প্রকল্পটি আগস্ট থেকে শুরু হবে। এর  মাধ্যমে ভর্তুকিপ্রাপ্ত যাত্রীরা চাইলে তাঁদের ভর্তুকির পঞ্চাশ শতাংশ অথবা পুরোটাই ছেড়ে দিতে পারেন। তবে ভর্তুকি ছাড়া বা না ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেবেন যাত্রীরাই।” বরিষ্ঠ নাগরিক ছাড়াও সাংবাদিক, ছাত্রছাত্রী এবং সেনাকর্মীরা এই ভর্তুকি পেয়ে থাকেন। স্বচ্ছল পরিবারের মানুষরা যাতে এই ভর্তুকি ছেড়ে দেন সে ব্যাপারেও যাত্রীদের প্রতি আবেদন ওই আধিকারিকের।

রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই ভর্তুকির জন্য দূরপাল্লার ট্রেনের মোট খরচের মাত্র ৫৭ শতাংশই রেলের খাতে আসে, অন্য দিকে লোকাল ট্রেনের ক্ষেত্রে রেলের খাতে আসে মাত্র ৪০ শতাংশ। এর ফলে ভর্তুকি বাবদ সারা বছরে রেলের ক্ষতি হয় ৩০,০০০ কোটি টাকা।

রেলকে কর্পোরেট মোড়ক আনতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ২০১৫ সালে একটি রিপোর্ট দিয়েছিল বিবেক দেবরায় কমিটি। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতেই এই ভর্তুকির চাপ কমানোর সিদ্ধান্ত নিচ্ছে রেল।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here