লোকসভায় কংগ্রেসের হেভিওয়েট সাংসদের বিরুদ্ধে প্রার্থী হতেই কি পদত্যাগ করলেন রাজ্যপাল কুম্মানম রাজশেখরণ?

0
citizenship amendment bill
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: পদত্যাগ করলেন মিজোরামের রাজ্যপাল কুম্মানম রাজশেখরণ। শুক্রবার দুপুরে রাষ্ট্রপতি ভবন সূত্রে জানানো হয়, রাষ্ট্রপতি তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন। অন্য দিকে অসমের জগদীশ মুখিকে মিজোরামের অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। লোকসভা ভোটের আগে কুম্মানমের পদত্যাগে জল্পনা ছড়িয়েছে, তিনি নিজের রাজ্য কেরল থেকে প্রার্থী হওয়ার জন্য রাজ্যপালপত ত্যাগ করলেন।

জানা গিয়েছে, এ বারের ভোটে তিনি কেরলেন তিরুবন্তপুরম থেকে বিজেপি প্রার্থী হিসাবে মনোনীত হতে পারেন। দলের রাজ্য শাখার সভাপতিপদে থাকাকালীন তাঁর নেতৃত্ব বিজেপি কেরলে যথেষ্ট প্রভাব বিস্তার করতে সফল হয়েছিল। বাম-কংগ্রেসের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মাঝখান থেকেও বিজেপিকে খাতা খুলিয়েছিলেন। সে বার তাঁর নেতৃত্বাধীন রাজ্য বিজেপি আটটি আসনে জয় পেয়েছিল।

Kummanam Rajasekharan
কুম্মানম রাজশেখরণ

স্বাভাবিক ভাবেই এ বার লোকসভা ভোটের আগে তাঁর মতো তুখোড় নেতৃত্বের অভাববোধ করছিলেন রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। সেই বার্তা দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে পৌঁছায়। সে কারণেই হয়তো ভোটের মুখে রাজ্যপালের পদ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন কুম্মানম।

[ আরও পড়ুন: অধ্যাপকপদে চাকরিপ্রার্থীদের বয়সের ঊর্ধ্বসীমা বাড়াল রাজ্য ]

জানা গিয়েছে, তিরুবন্তপুরমের কংগ্রেস সাংসদ শশী তারুরের বিরুদ্ধে প্রার্থী হতে পারেন কুম্মানম। ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে ত্রিমুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হন তারুর। সে বার সিপিআইয়ের সি দিবাকরণ এবং বিজেপির ও রাজাগোপালের বিরুদ্ধে টানটান লড়াইয়ে মাত্র ১৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছিলেন তিনি। এ বার কুম্মানম নিজে ওই কেন্দ্রে প্রার্থী হলে চিত্র আমূল পাল্টে যেতে পারে বলেই মনে করেন বিজেপির কেরল নেতৃত্ব।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন