representational photo
প্রতীকী ছবি। সৌজন্যে নিউজএক্স।

জয়পুর: ছত্তীসগঢ় নির্বাচনে কংগ্রেসকে ‘বার্তা’ দেওয়ার জন্য বিদ্রোহী অজিত যোগীর দলের সঙ্গে জোটের ঘোষণা করেছিলেন মায়াবতী। এ বার রাজস্থান নির্বাচনেও কংগ্রেসকে ‘বার্তা’ দিতে পারেন তিনি। সূত্রের খবর, কংগ্রেস এবং বিজেপির থেকে সমদূরত্ব বজায় রাখার জন্য বামেদের সঙ্গে জোটে যেতে পারেন বিএসপি সুপ্রিমো। এই জোটে সমাজবাদী পার্টিও শামিল হতে পারে।

তবে উল্লেখযোগ্য ভাবে ছত্তীসগঢ় এবং রাজস্থানে বিএসপি নিয়ে কংগ্রেসের মনোভাব সম্পূর্ণ ভিন্ন। ছত্তীসগঢ়ে বিএসপির সঙ্গে জোটে ইচ্ছুক ছিল কংগ্রেস। কিন্তু রাজস্থানে আগে থেকেই বিএসপির সঙ্গে জোটের বিরোধিতা করে আসছে তারা।

এই সুযোগে বামেদের কাছে পাওয়ার জন্য মরিয়া মায়াবতী। মায়াবতী যে জোটের জন্য তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন সে কথা স্বীকার করে নিয়েছেন সিপিআইয়ের জাতীয় সম্পাদক অতুল কুমার অঞ্জন। তিনি বলেন, “জেডিএস এবং সপাকে নিয়ে তৃতীয় ফ্রন্ট তৈরি করেছে বামেরা। এই ফ্রন্টে বিএসপি যোগ দিলে আমরা খুব খুশিই হব।”

আরও পড়ুন মোদী সরকারের চাপেই রাফাল বরাত দেওয়া হয় অম্বানিদের, বিস্ফোরক দাবি ফ্রান্সের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির

তবে অঞ্জনের কথায়, কংগ্রেসের সঙ্গে কথাবার্তা বলছেন মায়াবতী। কিন্তু রাজস্থান কংগ্রেসের প্রধান সচিন পায়লট কোনো ভাবেই মায়াবতীকে জায়গা ছাড়তে রাজি নন। তাঁর যুক্তি, এ বছর রাজস্থানে কংগ্রেসের ক্ষমতা দখল করার সুযোগ সব থেকে বেশি। এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেস একক ভাবেই ক্ষমতা দখল করতে মরিয়া।

তবে ছত্তীসগঢ়ে অজিত যোগীর সঙ্গে জোট করায় ২০১৯-এর নির্বাচনে বিরোধী জোট বেশ কিছুটা ধাক্কা খেল বলে মনে করেছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ। সূত্রের খবর, ‘ভাইপো’ অখিলেশ যাদবের সপাকে যতটা জায়গা ছাড়তে রাজি মায়াবতী, তত জায়গা কোনো ভাবেই কংগ্রেসকে ছাড়তে রাজি নন তিনি।

এই পরিস্থিতিতে বিজেপিকে মোকাবিলা কী ভাবে করা হবে সেটাই এখন সব থেকে বড়ো প্রশ্নচিহ্ন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন