Teachers day

ওয়েবডেস্ক: শিক্ষক দিবসে মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজের অনুষ্ঠানে উপস্থিতি বাধ্যতামূলক জানিয়ে দু’টি জেলা প্রশাসনের তরফে জারি করা নির্দেশিকা বাতিল করতে বাধ্য হল সে রাজস্থান সরকার। ওই নির্দেশিকায় জানানো হয়েছিল, শিক্ষক দিবসের ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকলে বেতন কাটা যাবে। যদিও প্রবল চাপের মুখে পড়ে অবশেষে পিছু হঠল সরকার।

আগামী ৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে। সেই অনুষ্ঠানেই শিক্ষকদের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক বলে ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি জানানো হয়, ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে হলে কালো বেল্ট, জুতো-মোজা এবং টি-শার্ট পরে যেতে হবে। এমন তুঘলকি নির্দেশে প্রবল সমালোচনার সৃষ্টি হয়। যার জেরে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে বাধ্য হল রাজস্থান সরকার। এ দিন ওই নির্দেশিকাটি বাতিল করার জন্য পুনরায় একটি নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

রাজ্য শিক্ষা দফতরের তরফে অবশ্য জানানো হয়েছে, ওই ধরনের কোনো নির্দেশিকা তাদের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়নি। এটা পুরোপুরি ভাবে জেলা শিক্ষা বিভাগের বিষয়। ফলে রাজ্যের তরফে নতুন নির্দেশিকা জারি করে বেতন কাটার বিষয়টিকে ‘মুছে’ ফেলা হয়েছে। বলা হয়েছে, যাঁদের যে কোনো ধরনের অসুবিধা অথবা অসুস্থতা রয়েছে, তাঁরা ছুটির জন্য আবেদন করতে পারেন।


পড়তে পারেন: মোমোর পর গ্র্যানি, আতঙ্ক তাড়া করছে মোবাইলে


পাশাপাশি পরিধেয় পোশাকের বিষয়টিকেও সন্তর্পণে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে। যে শিক্ষকরা জয়পুরের শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন তাঁদের উদ্দেশে নির্দিষ্ট (স্পেসিফায়েড) পোশাক পরে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। নির্দিষ্ট পোশাক বলতে কী বোঝানো হয়েছে, তার কোনো ব্যাখ্যা মেলেনি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন