দরজার কাচ ভেঙেছেন সাসপেন্ড হওয়া তৃণমূল সাংসদরা, গুরুতর অভিযোগ রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানের

0
সংসদ। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: বৃহস্পতিবার রাজ্যসভার কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর গতকাল সাসপেন্ড হওয়া তৃণমূল সাংসদদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ তুললেন রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরি বংশ।

রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানের অভিযোগ, গতকাল রাজ্যসভায় দুর্ভাগ্যজনক ঘটনার জেরে ছয় তৃণমূল সাংসদকে এক দিনের জন্য সাসপেন্ড করা হয়। তাঁরা দরজার কাচ ভেঙেছেন, এমনকী রাজ্যসভার কর্মীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতেও জড়িয়ে পড়েন।

তিনি বলেন, এই ঘটনাটি গত বুধবার ঘটে। এ ব্যাপারে তৃণমূলের রাজ্যসভা সাংসদ অর্পিতা ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন রাজ্যসভার এক মহিলা অ্যাসিস্ট্যান্ট সিকিউরিটি অফিসার।

হরি বংশ জানান, বিষয়টি নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে। অন্য দিকে, তৃণমূল নেতা সুখেন্দুশেখর রায় এ দিন বলেন, দলের সাংসদরা এক দিনের জন্য সাসপেন্ড হয়েছিলেন। কিন্তু অধিবেশন মুলতুবি হয়ে যায়। অধিবেশন মুলতুবির পর সাংসদদের ঢুকতে ‘বাধা’ দেওয়া হয়। সাংসদদের কী ভাবে আটকে রাখা যায়? এ ব্যাপারে রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে তৃণমূলকে সমর্থন কংগ্রেসের দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে।

Shyamsundar

প্রসঙ্গত, বুধবার অধিবেশন বানচালের অভিযোগে রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড করা হয় তৃণমূলের ছয় সাংসদকে। সাসপেন্ড হওয়া সাংসদরা হলেন, দোলা সেন, নাদিমূল হক, মৌসম নূর, শান্তা ছেত্রী, আবিররঞ্জন বিশ্বাস এবং অর্পিতা ঘোষ।

ওই ঘটনার কয়েক মিনিট পর তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন টুইট করে বলেন, বিরোধী সাংসদরা দুপুর ২টোয় এর প্রতিবাদ করবেন। তিনি লেখেন, “আজ দুপুর দুটোয় রাজ্যসভায় আসুন। দেখুন সমগ্র বিরোধী দল মোদী-শাহের স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে একত্রিত হবে”।

হ্যাশট্যাগে লেখেন, ‘খেলা হবে’। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে এটাই ছিল তৃণমূলের স্লোগান।

তৃণমূল কংগ্রেসের ছয় সাংসদ রাজ্যসভার ওয়েলে নেমে প্ল্যাকার্ড হাতে প্রতিবাদের সময় “মারাত্মক বিশৃঙ্খল” আচরণ করেন বলে অভিযোগ। রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নায়ডু তাঁদের নিজের জায়গায় ফিরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু সেই অনুরোধে তাঁরা কর্ণপাত করেননি। এর জেরে দিনের বাকি সময়ের জন্য রাজ্যসভা ত্যাগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

খবর অনলাইন-এর অন্যান্য প্রতিবেদন পড়তে পারেন এখানে: khaboronline.com

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন