Connect with us

দেশ

চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলায় আরও কঠোর শাস্তি, বিল পাশ রাজ্যসভায়

চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা করলে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাবাস।

Published

on

নয়াদিল্লি: চিকিৎসক অথবা যে কোনো ধরনের স্বাস্থ্য পরিষেবাকর্মীদের উপর হামলা রুখতে শনিবার একটি বিল পাশ করল রাজ্যসভা। বর্তমানে কোভিড-১৯ এবং অন্য যে কোনো মহামারির সময় চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা করলে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাবাসের নিদান রয়েছে নতুন বিলটিতে।

এ দিন সংসদের উচ্চকক্ষে ‘এপিডেমিক ডিজিজেস (সংশোধনী) বিল, ২০২০’ উত্থাপন করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। গত এ এপ্রিল মাসে এ বিষয়ে একটি অধ্যাদেশ জারি করার পর এ দিন বিলটি পাশ হয়ে যায় রাজ্যসভায়।

Loading videos...

চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ‘এপিডেমিক ডিজিজেস অ্যাক্ট, ১৮৯৭’-এর সংশোধনীতে ‘এপিডেমিক ডিজিজেস (সংশোধনী) অর্ডিন্য়ান্স ২০২০’ নিয়ে আসে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রথমসারির যোদ্ধাদের বাসস্থান অথবা কর্মস্থল উভয় জায়গাতেই নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের বিধান রয়েছে এই বিলটিতে।

বর্তমান মহামারির মতো যে কোনো পরিস্থিতিতে, চিকিৎসক, স্বাস্থ্য পরিষেবাকর্মীদের বিরুদ্ধে যে কোনো ধরনের হিংসাত্মক ঘটনা এবং সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতিকে কোনো ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না বলে বিলটিতে নিশ্চিত করা হয়েছে।

কী বলা হয়েছে বিলের প্রস্তাবে?

বিলটির প্রস্তাবে বলা হয়েছে, এ ধরনের আক্রমণের ঘটনা ঘটলে একজন ইন্সপেক্টর পর্যায়ের আধিকারিক ৩০ দিনের মধ্যে তদন্ত করবেন। যদি লিখিত আবেদনের মাধ্যমে মেয়াদ না বাড়ানো হলে এক বছরের মধ্যে বিচারপ্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে।

বিলের বিধান অনুসারে, এই ধরনের হিংসার ঘটনায় দোষী প্রমাণিত হলে তিন মাস থেকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার থেকে দু’লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা ধার্য হতে পারে।

কী কারণে আইন সংশোধন?

করোনাভাইরাস মহামারিকে (Coronavirus pandemic) কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় হামলার মুখে পড়তে হয় চিকিৎসক এবং স্বাস্থকর্মীদের। পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে কেন্দ্র অধ্যাদেশ নিয়ে এসেছিল কেন্দ্রীয় সরকার।

ওই অধ্যাদেশ অনুযায়ী, স্বাস্থ্যকর্মীদের গাড়ি অথবা ক্লিনিকে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হলে বাজারমূল্যের থেকে দ্বিগুণ আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। ক্ষতিপূরণের অর্থ হামলাকারীদের কাছ থেকে আদায় করা হবে। প্রয়োজনে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হতে পারে। আরও পড়তে পারেন: চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলা রুখতে কড়া অর্ডিন্যান্স নিয়ে এল কেন্দ্র

দেশ

Kumbh Mela 2021: করোনাবিধিকে শিকেয় তুলে এক লক্ষ মানুষের সমাগম, আজ কুম্ভের প্রথম সাহি স্নান হরিদ্বারে

অসহায় পুলিশ। শারীরিক দূরত্ববিধি মানতে বলা কার্যত অসম্ভব।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত বছর এই সময়ই দিল্লির একটা ঘটনা সামনে এসে গিয়েছিল। করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর জন্য এক শ্রেণির মানুষ সেই ঘটনাটিকেই দায়ী করছিলেন। সেটি ছিল তবলিগি জামাতের একটি জমায়েত। ব্যাপারটা নিয়ে এতটাই জলঘলা হয়েছিল যে ওই জামাতে অংশগ্রহণকারীদের সরাসরি দেশদ্রোহীর তকমাও দেওয়া শুরু হয়ে যায়। ব্যাপারটাকে এমন ভাবে প্রচার করা হয় যে সেই জামাতের জন্যই দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে।

ঠিক পরের বছর। দেশে দাপট কমে গিয়েও ফের দ্বিগুণ শক্তি নিয়ে ফিরে এসেছে করোনাভাইরাস। সংক্রমণের প্রথম ঢেউয়ের চূড়া ইতিমধ্যেই পেরিয়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি আর কতটা ভয়াবহ হবে আন্দাজ করাই যাচ্ছে না। এর মধ্যে কুম্ভ মেলা শুরু হয়েছে হরিদ্বারে। সোমবার তার প্রথম সাহি স্নান।

Loading videos...

স্বাস্থ্যবিধিকে কোনো তোয়াক্কা করছে না কেউ। দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব এমনকি উত্তরপ্রদেশও যেখানে ধর্মীয় স্থানে জমায়েত আপাতত নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে, তখন রবিবার সন্ধ্যায় হরিদ্বারের হর কী পৌড়ীতে দেখা গেল কম্পক্ষে এক লক্ষ মানুষের জমায়েত। স্বাস্থ্যবিধি পালন করতে দেখা গিয়েছে গুটিকয়েক পুণ্যার্থীকে। বেশিরভাগই মাস্কহীন।

বেশিরভাগ পুণ্যার্থীই মনে করছেন হরিদ্বারে কোভিড কোনো সমস্যাই নয়, কারণ এখন রাজ্যে প্রবেশ করতে গেলে আরটি-পিসিআরের নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। যদিও তথ্য বলছে গত ২৪ ঘণ্টায় ১,৩৩৩ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এই রাজ্যে, যা এখনও পর্যন্ত উত্তরাখণ্ডের ক্ষেত্রে দৈনিক সর্বোচ্চ। এর মধ্যে হরিদ্বারে নতুন করে আক্রান্ত ৩৮২।

হরিদ্বারের বিভিন্ন ঘাটে মাইকে সমানে ঘোষণা হচ্ছে করোনাবিধি পালন করার জন্য। মাস্ক পরা, শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে চলার কথা বলা হচ্ছে, কিন্তু পুণ্যার্থীরা সে কথা শুনবেন কেন! তাঁদের অনেকেই মনে করেন, গঙ্গায় ডুব দিলে করোনার টিকিও তাঁদের ছুঁতে পারবে না।

পুণার্থীদের ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা যে কার্যত অসম্ভব, অসহায় ভাবেই সেই কথা মেনে নিয়েছেন মেলার পুলিশ আধিকারিক এসকে গুনজিয়াল। তিনি বলেন, “ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা ভীষণ চ্যালেঞ্জের ব্যাপার। রাজ্য এবং কেন্দ্র থেকে এসওপি জারি করা হয়েছে, হরিদ্বারে প্রবেশ করতে গেলে করোনার নেগেটিভ রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। দেখা যাক কী হয়।”

পুলিশ অসহায়, কিন্তু সাধারণ মানুষের কোনো কিছুতেই তোয়াক্কা নেই। হরিদ্বারে এই বিপুল সমাগমের অনুমতি দেওয়ার জন্য কোনো খেসারত রাজ্য সরকারকে দিতে হয় কি না, সেটা আগামী তিন চার সপ্তাহের মধ্যেই বোঝা যাবে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Coronavirus Second Wave: স্বস্তির খবর এল পঞ্জাব থেকে, নতুন সংক্রমণকে ছাড়াল সুস্থতা, কমল সক্রিয় রোগী

Continue Reading

দেশ

Coronavirus Second Wave: স্বস্তির খবর এল পঞ্জাব থেকে, নতুন সংক্রমণকে ছাড়াল সুস্থতা, কমল সক্রিয় রোগী

পঞ্জাবে সংক্রমণ চূড়ায় পৌঁছে যাওয়ার ইঙ্গিত।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ সবার আগে চূড়ায় পৌঁছোবে পঞ্জাবে, আর সেটা হবে এপ্রিলের মাঝামাঝি। বিশেষজ্ঞদের সেই দাবি মিলে যাবে কি না, সেটা তো সময়ই বলবে কিন্তু গত ২৪ ঘণ্টায় পঞ্জাবে এমন কিছু ব্যাপার হয়েছে যা কিছুটা হলেও প্রশাসনকে স্বস্তি দিচ্ছে।

এই রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে গিয়েছে সুস্থতার সংখ্যা। এর ফলে সামান্য হলেও কমেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। পাশাপাশি, দেশের বেশিরভাগ রাজ্যে সংক্রমণের হার যখন দশ শতাংশের কাছাকাছি, সেই দিক থেকেও পঞ্জাব অনেকটাই স্বস্তি দিচ্ছে।

Loading videos...

গত ২৪ ঘণ্টায় পঞ্জাবে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৩৯ জন। কিন্তু সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ১২১ জন। দেশে বড়ো রাজ্যগুলির মধ্যে একমাত্র পঞ্জাবেই গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থতা ছাড়িয়ে গেল দৈনিক সংক্রমণকে। তবে এর মধ্যে রাজ্যে দৈনিক মৃত্যু প্রশাসনকে চিন্তায় রাখছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে যা দৈনিক সংক্রমণের বিচারে ১.৯৪ শতাংশ। গোটা দেশে যেখানে দৈনিক সংক্রমণের বিচারে মৃত্যুহার কোথাও কোথাও ০.৫ শতাংশেরও কম, সেখানে পঞ্জাবের এই তথ্য রীতিমতো চিন্তার। এই মৃত্যুর সংখ্যা এবং সুস্থতার সংখ্যা বেশি হওয়ার কারণে গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেশ কিছুটা কমে ২৭ হাজারের ঘরে নেমে এসেছে।

গত কয়েক দিন ধরেই পঞ্জাবে দৈনিক সংক্রমণ ৩ হাজারের আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে। বেশিরভাগ রাজ্যে যেখানে সংক্রমণ ৪ হাজার, ৫ হাজার ছাড়িয়ে যাচ্ছে, সেখানে পঞ্জাবের পরিস্থিতি কিছুটা স্বস্তিদায়ক। ফলে পঞ্জাব সংক্রমণ দ্বিতীয় চূড়ার কাছাকাছি এসে গিয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। যদিও এই ব্যাপারে নিশ্চিত হতে আরও কিছুদিন দৈনিক সংক্রমণের ওপরে নজর রাখতে হবে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Coronavirus Second Wave: মহারাষ্ট্র লকডাউনের পথে গেলেও সংক্রমণের দাপট কিছুটা থিতু হওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে

Continue Reading

দেশ

Coronavirus Second Wave: মহারাষ্ট্র লকডাউনের পথে গেলেও সংক্রমণের দাপট কিছুটা থিতু হওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে

লকডাউন হলে ধসে পড়বে অর্থনীতি।

Published

on

শনিবার আর রবিবার উইকএন্ড লকডাইন হয়েছে মহারাষ্ট্রে। ছবি: এএনআই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সম্ভবত সম্পূর্ণ লকডাউনই ঘোষিত হতে চলেছে মহারাষ্ট্রে। এমনই ইঙ্গিত দিয়ে দিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে। তবে সেই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত বুধবার ১৪ এপ্রিলের পর নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এরই মধ্যে একটা বিষয় সামনে আসছে। সেটা হল সংক্রমণ উত্তরোত্তর বাড়লেও তার দাপট কিছুটা থিতু হওয়ার ইঙ্গিতই দিচ্ছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ হাজার ২৯৪ জন। এখনও পর্যন্ত এটাই মহারাষ্ট্রের সর্বোচ্চ দৈনিক সংক্রমণ। কিন্তু এত মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন বিপুল পরিমাণে টেস্টের বিপরীতে। গত ২৪ ঘণ্টায় এই রাজ্যে মোট টেস্ট হয়েছিল ২ লক্ষ ৬৩ হাজার ১৩৭টি। অর্থাৎ নতুমা পরীক্ষার বিচারে রাজ্যে সংক্রমণের হার ছিল ২৪.০৫ শতাংশ।

Loading videos...

এই সংক্রমণের হারটাই কিছুটা আশার আলো দেখাতে শুরু করেছে। দিন দশেক রাজ্যে মহারাষ্ট্রে সংক্রমণের হার বেড়ে ২৮ শতাংশ ছাড়িয়ে গিয়েছিল। কিন্তু গত কয়েকদিন হল সেটি ২৩-২৪ শতাংশের আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে। এমনকি মার্চের শেষে বেশ কয়েক দিন ধরে সংক্রমণের হার যে ২৫ শতাংশের ওপরে ছিল, সেটাও এখন সামান্য হলেও কমেছে।

বিশেষজ্ঞরা বার বার টেস্ট বাড়ানোর কথা বলছেন। টেস্ট বাড়লে সংক্রমণের হার কমতে বাধ্য। সাধারণত এই সংক্রমণের হারকে পাঁচ শতাংশের নীচে নিয়ে এলে বলা যায় যে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে এসেছে। মহারাষ্ট্রের ক্ষেত্রে সেটা এখনই সম্ভব না হলেও সংক্রমণের হার একটু একটু কমে কমবে তেমনটা আশা করাই যায়।

মহারাষ্ট্রে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মূলত যে জায়গাগুলিতে শুরু হয়েছিল, সেই অমরাবতী, আকোলা এবং ইয়াবৎমলেও পরিস্থিতি কিন্তু নিয়ন্ত্রণের মধ্যে এসে গিয়েছে। সব থেকে তাৎপর্যের বিষয় হল গত বছর প্রথম ঢেউয়ের সময় মহারাষ্ট্রে সর্বোচ্চ দৈনিক সংক্রমণ ছিল ২৫ হাজার, সে দিন কিন্তু টেস্ট হয়েছিল ৯৮ হাজার। অর্থাৎ সে দিনও সংক্রমণের হার ছিল ২৪-২৫ শতাংশ।

কিন্তু তবুও লকডাউনের পথেই হাঁটতে চাইছে মহারাষ্ট্র। তবে লকডাউন ঘোষিত হলে অর্থনীতিতে তার বিপুল প্রভাব পড়বেই। একই মানুষ সাধারণ মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যেও ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে। সব মিলিয়ে এখন সাবধানে পা ফেলতে হবে মহারাষ্ট্র সরকারকে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Bengal Corona Update: নমুনা পরীক্ষার সঙ্গেই তাল মিলিয়ে বাড়ল বাংলার দৈনিক করোনা সংক্রমণ

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ক্রিকেট17 mins ago

IPL 2021: সাড়ে ৭টায় খেলা শুরু হওয়া নিয়ে তীব্র অসন্তুষ্ট মহেন্দ্র সিংহ ধোনি

দেশ44 mins ago

Kumbh Mela 2021: করোনাবিধিকে শিকেয় তুলে এক লক্ষ মানুষের সমাগম, আজ কুম্ভের প্রথম সাহি স্নান হরিদ্বারে

দেশ1 hour ago

Coronavirus Second Wave: স্বস্তির খবর এল পঞ্জাব থেকে, নতুন সংক্রমণকে ছাড়াল সুস্থতা, কমল সক্রিয় রোগী

দেশ2 hours ago

Coronavirus Second Wave: মহারাষ্ট্র লকডাউনের পথে গেলেও সংক্রমণের দাপট কিছুটা থিতু হওয়ার ইঙ্গিত দিচ্ছে

ক্রিকেট11 hours ago

IPL 2021: নীতীশ-রাহুলের ব্যাটে ভর করে হায়দরাবাদকে হারাল কেকেআর

ভিডিও13 hours ago

Bengal Polls 2021: বিধাননগরে মুখোমুখি টক্কর সুজিত বসু-সব্যসাচী দত্তর, ময়দানে জোট প্রার্থী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

বাংলাদেশ13 hours ago

পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ মিলন বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম হাসপাতালে ভর্তি

ধর্মকর্ম13 hours ago

অন্নপূর্ণাপুজো: উত্তর কলকাতার পালবাড়ি ও বালিগঞ্জের ঘোষবাড়িতে চলছে জোর প্রস্তুতি

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls Live: সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোট পড়ল ৭৫ শতাংশের বেশি

ক্রিকেট2 days ago

IPL 2021: বলে ভেলকি হর্শল পটেলের, ব্যাটে জ্বলে উঠলেন ডেভিলিয়ার্স, বেঙ্গালুরুর কষ্টার্জিত জয়

দেশ2 days ago

Corona Update: রেকর্ড তৈরি করে দেড় লক্ষের দিকে এগিয়ে গেল দৈনিক সংক্রমণ, তবুও কম মৃত্যুহারে কিছুটা স্বস্তি

বিদেশ2 days ago

Coronavirus Infection: কোনো বস্তু থেকে করোনায় সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা ১০ হাজারে মাত্র ১, জানাল মার্কিন সিডিসি

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহারে ৩ দিনের জন্য রাজনীতিবিদদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করল নির্বাচন কমিশন

রাজ্য2 days ago

Bengal Polls 2021: বাহিনীর গুলিতে হত ৪, শীতলকুচি যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রবন্ধ3 days ago

Bengal Polls 2021: কোচবিহার জেলার ন’টি বিধানসভা কেন্দ্রে লড়াইয়ে কে কোথায়

রাজ্য2 days ago

বিজেপি ‘গোপন’ অডিয়ো টেপ নিয়ে হইচই করলেও প্রশান্ত কিশোর অনড় নিজের মন্তব্যেই

ভোটকাহন

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 weeks ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা2 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা3 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা3 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা3 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা3 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা3 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে