রাষ্ট্রপতির সইয়ে আইন হল ‘ক্যাব’, তিন মুখ্যমন্ত্রী জানালেন তাঁদের রাজ্যে এই আইন লাগু হবে না

0

ওয়েবডেস্ক: বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নাগরিকত্ব (সংশোধনী) বিলে (ক্যাব) নিজের সম্মতি দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ফলে রাত থেকেই ক্যাব আইনে পরিণত হয়েছে। যদিও দেশের তিন মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই আইন তাঁদের রাজ্যে লাগু হতে দেবেন না।

‘ক্যাব’-এর বিরুদ্ধে সুর আগেই চড়িয়েছিলেন এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই তালিকায় এ বার নাম লিখিয়েছেন কেরলের পিনারাই বিজয়ন এবং পঞ্জাবের অমরিন্দর সিং।

টুইটারে বিজয়ন লিখেছেন, “আমাদের গণতন্ত্র বিপদে পড়েছে। সিএবি (সি‌টিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিল) হাতে নিয়ে সংঘ পরিবার সংসদে যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা উপভোগ করেছে, তা দিয়েই ভারতীয় গণতন্ত্র ও সংবিধানের ভিত উপড়ে ফেলার জন্য ব্যবহার করেছে। এটি ধর্মনিরপেক্ষতাকে প্রত্যাখ্যান করার শামিল। বিজেপি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, তাদের প্রধান রাজনৈতিক তাৎপর্য সাম্প্রদায়িকতা। আমাদের অবশ্যই এটাকে প্রতিহত করতে হবে”।

অনেকটা একই কথা অমরিন্দর সিংয়েরও। পঞ্জাব বিধানসভায় তাদের যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে তা দিয়েই এই আইনে ওই রাজ্যে নিষিদ্ধ করা হবে।

আরও পড়ুন অসমে বিল-বিরোধে বলির সংখ্যা ২

এই প্রসঙ্গে অমরিন্দর বলেন, “দেশের মানুষকে ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগি করার জন্য কোনো আইন যদি প্রণয়ন করা হয়, তা হলে সেটা বেআইনি আর অনৈতিক।”

এ দিকে এই বিলের বিরুদ্ধে অনেক দিন আগে থেকেই সরব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিছু দিন আগেই খড়গপুরের একটি সভায় তিনি বলেছিলেন, “এই বিল নিয়ে কেউ ভয় পাবেন না। আমরা আপনাদের সঙ্গে রয়েছি। আমরা যত দিন রয়েছি, আপনাদের ওপরে কেউ কিছু চাপিয়ে দিতে পারবে না।”

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন