প্রায় দু’সপ্তাহ পর হরিয়ানার মেওয়াতে গণধর্ষণে আক্রান্ত দুই মহিলা জানালেন, গরুর মাংস খাওয়ার শাস্তি হিসাবে তাদের ধর্ষণ করা হয়েছিল। সমাজকর্মী শবনম হাসমির উপস্থিতিতে দিল্লিতে তাঁরা পুলিশের কাছে জানান, ধর্ষকরা জিজ্ঞাসা করে তারা গরুর মাংস খায় কিনা। উত্তরে ওই দু’জন জানায় যে তারা গরুর মাংস খায় না। ধর্ষকরা তা মানতে চায়নি। তারা বলে, “এটা (ধর্ষণ) গরুর মাংস খাওয়ার শাস্তি।”

পুলিশ জানিয়েছে, এই অভিযোগ ওই মহিলারা বা তাদের পরিবার আগে করেনি। এই ঘটনার সঙ্গ গো-রক্ষকদের কোনও যোগ আছে কিনা তা স্পষ্ট নয়।

গত ২৪ আগস্ট একদল দুষ্কৃতী মেওয়াতে এক মহিলা (২০) ও তাঁর বোনকে (১৪) বাড়ির মধ্যে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। তাদের কাকা ও কাকিমাকে বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয়। ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই কাকা-কাকিমা। এই ঘটনায় পুলিশ এখনও পর্যন্ত চারজনকে গ্রেফতার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রথমে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে পুলিশ। পরে স্থানীয় গ্রামবাসীদের বিক্ষোভের জেরে তাদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগও দায়ের করে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here