Connect with us

দেশ

২০১৮-১৯ অর্থবর্ষের জন্য ইপিএফের সুদের হার ৮.৬৫ শতাংশে উন্নীত হল

Published

on

provident fund

ওয়েবডেস্ক: এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন (ইপিএফও) বুধবার ঘোষণা করল ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য কর্মচারীদের প্রফিডেন্ট ফান্ডে (ইপিএফ) সুদের হার ৮.৬৫% করা হয়েছে। ইপিএফও একটি টুইট বার্তায় জানিয়েছে, প্রায় ৬ কোটি সদস্যের অ্যাকাউন্টে সুদ হিসাবে প্রায় ৫৪,০০০ কোটি টাকা জমা করা হবে।

এর আগেই কেন্দ্র ঘোষণা করেছিল, ইপিএফও-র সদস্যরা নিজেদের গচ্ছিত টাকার উপর ৮.৬৫ শতাংশ হারে সুদ পাবেন। কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গওয়ার জানিয়েছিলেন, সামনে উৎসবের মরশুম। ইপিএফের সদস্যরা এই বর্ধিত হারেই সুদ পাবেন।

গত লোকসভা ভোটের আগেই ইপিএফ-এ সুদের হার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে কেন্দ্র। সে সময়ই জানানো হয়, ইপিএফে সুদের হার ৮.৬৫ শতাংশ করা হচ্ছে। তিন বছর পর ফের এই সুদের হার বাড়াল কেন্দ্র। এর আগে ইপিএফের সদস্যরা ৮.৫৫ সুদ পাচ্ছিলেন।

ইপিএফও সূত্রে খবর, সংস্থার উদ্বৃত্ত গ্রাহকদের সঙ্গে ভাগ করে নিতেই এই সুদের হার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে .১ শতাংশ সুদের হার বৃদ্ধি হলেও গত পাঁচ বছরে এখনও নীচের দিকেই পড়ে রয়েছে ইপিএফের সুদের হার।

২০১৬-১৭ সালেও ইপিএফে সুদের হার ছিল ৮.৬৫ শতাংশ। তার আগে ২০১৫-১৬ সালে এই সুদের হার ছিল ৮.৮ শতাংশ। তারও আগে ২০১৩-১৪ সালে এবং ২০১৪-১৫ সালে এই সুদের হার ছিল ৮.৭৫ শতাংশ। স্বাভাবিক ভাবেই ২০১৬-১৭ সাল থেকে ক্রমশ নীচের দিকে নেমেছে ইপিএফে সুদের হার। এ বার .১ শতাংশ বাড়ানো হলেও পুরনো জায়গায় ফেরেনি সুদের হার।

দেশ

২০১৫ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ সফরে খরচ হয়েছে প্রায় ৫১৮ কোটি টাকা

প্রধানমন্ত্রী সর্বশেষ বিদেশ সফরে গিয়েছিলেন গত বছরে ১৩ নভেম্বর। সে বার তিনি ব্রিক্স-এর শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে ব্রাজিল গিয়েছিলেন।

Published

on

Narendra Modi
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ফাইল চিত্র।

খবর অনলাইন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Prime Minister Narendra Modi) ২০১৫ সাল থেকে মোট ৫৮টি দেশ সফর করেছেন। আর তাঁর বিদেশ সফরে (foreign visits) খরচ হয়েছে ৫১৭.৮২ কোটি টাকা। রাজ্যসভায় এক লিখিত জবাবে এ কথা জানিয়েছেন বিদেশ দফতরের প্রতিমন্ত্রী ভি মুরলীধরন (V Muraleedharan)।

প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরের যে বিস্তারিত তথ্য মুরলীধরন দিয়েছেন, তা থেকে জানা যায়, এই সময়ের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী পাঁচ বার করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া এবং চিনে গিয়েছেন। তা ছাড়া আর যে সব দেশে তিনি একাধিক বার গিয়েছেন তার মধ্যে রয়েছে সিঙ্গাপুর, জার্মানি, ফ্রান্স, শ্রীলঙ্কা এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহি (ইউএই)।

নরেন্দ্র মোদীর বহু সফর ছিল বহু-রাষ্ট্রিক অর্থাৎ এক সফরে একাধিক দেশে যাওয়া। আর কিছু ছিল দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদার করতে শুধু একটি নির্দিষ্ট দেশ সফর।

প্রধানমন্ত্রী সর্বশেষ বিদেশ সফরে গিয়েছিলেন গত বছরে ১৩ নভেম্বর। সে বার তিনি ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে গঠিত ব্রিক্স-এর শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে ব্রাজিল গিয়েছিলেন।

বিদেশ দফতরের প্রতিমন্ত্রী দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রীর সফরের ফলে ওই সব দেশের সঙ্গে ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নতি হয়েছে। বাণিজ্য, বিনিয়োগ, প্রযুক্তি, প্রতিরক্ষা সহযোগিতা এবং জনগণের মধ্যে সংযোগসাধন-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সম্পর্কের উন্নতি ঘটেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, “জলবায়ু পরিবর্তন, আন্তঃরাষ্ট্র অপরাধ ও সন্ত্রাস, সাইবার নিরাপত্তা, পরমাণু অস্ত্র নিরোধ ইত্যাদি ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক কর্মসূচি রূপায়ণে ভারত এখন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।”

নেপাল সম্পর্কে এক অতিরিক্ত প্রশ্নের জবাবে মুরলীধরন বলেন, প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে যুগ যুগ ধরে ভারতের সঙ্গে যে সম্পর্ক চলে আসছে তা ‘অনন্য এবং বিশেষ’। এই সম্পর্কের ভিত্তি হল দু’ দেশের ইতিহাস, ভূগোল, সংস্কৃতি, মানুষে মানুষে সম্পর্ক, পারস্পরিক নিরাপত্তা এবং ঘনিষ্ঠ অর্থনৈতিক যোগাযোগ।

ভারতের উপর থেকে নির্ভরতা কমাতে গত কয়েক বছরে চিনের সঙ্গে নেপাল যে এক গুচ্ছ ট্রানজিট ও পরিবহন চুক্তি করেছে, সে সম্পর্কে সরকার অবহিত কিনা জানতে চাওয়া হলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, কাঠমান্ডুর সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক তার নিজের গুণের উপর দাঁড়িয়ে রয়েছে।

গত মে মাসে নেপাল যে মানচিত্র প্রকাশ করে তাতে তারা উত্তরাখণ্ডের লিপুলেখ পাস, কালাপানি ও লিমপিয়াধুরা নিজেদের বলে দেখায়। তখন থেকে নেপালের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। ইতিমধ্যে অবশ্য ভারত পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, সীমান্ত বরাবর উত্তরাখণ্ডের জায়গাগুলি সবই ভারতের।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

অর্থনীতিতে নতুন হাতছানি বাংলাদেশ-ভারত পণ্যবাহী রেল চলাচল

Continue Reading

দেশ

অর্থনীতিতে নতুন হাতছানি বাংলাদেশ-ভারত পণ্যবাহী রেল চলাচল

বর্তমানে রাধিকাপুর-বিরল, পেট্টাপোল-বেনাপোল, দর্শনা-গেদে ও রহনপুর-সিঙবাদ রুটে পণ্যবাহী ট্রেন যাতায়াতে অতীতের রেকর্ড ভেঙেছে।

Published

on

ভারত থেকে ঝামেলামুক্ত ও সাশ্রয়ী সময়ে পণ্য আমদানি করতে পেরে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা সন্তুষ্ট।

ঋদি হক: ঢাকা

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে রেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হতে চলেছে। সড়ক, আকাশ এবং জলপথের যোগাযোগ এখন অতীত। দু’ দেশের রেল যোগাযোগ এক নতুন মাত্রা পেতে যাচ্ছে। বিশেষ করে পণ্যবাহী রেল চলাচলই উভয় দেশের পতাকায় হাওয়া লেগে পত পত করে উড়ছে।

আশঙ্কার মধ্যে যে সম্ভাবনাও লুকিয়ে থাকে তা আরেক বার দেখিয়ে দিল মহামারি করোনা (Corona pandemic)। করোনার ব্যাপকতাকালে স্থলপথ রুদ্ধ। বন্ধ আমদানি-রফতানির দুয়ার। সেই সময়েই ভারতের (India) তরফে ‘রেলপথে পণ্য পরিবহণের’ প্রস্তাবটা এল। সেই প্রস্তাবে রাজি হল বাংলাদেশ (Bangladesh)। করোনার সময়ে বিভিন্ন পণ্য চালান বাংলাদেশে আসতে শুরু করে। এর ফলে কিছুটা হলেও স্বস্তি ফিরে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে।

উভয় দেশের প্রচেষ্টায় কেবল জুন মাসেই পণ্য নিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে যাতায়ত করে ১০৩টি ট্রেন। বর্তমানে রাধিকাপুর-বিরল, পেট্টাপোল-বেনাপোল, দর্শনা-গেদে ও রহনপুর-সিঙবাদ রুটে পণ্যবাহী ট্রেন যাতায়াতে অতীতের রেকর্ড ভেঙেছে। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এই সব রুটে মে, জুন, জুলাই ও আগস্ট মাসে ৩৯৫টি পণ্যবাহী ট্রেন এসেছে বাংলাদেশে। এ সব ট্রেনে সিমেন্ট তৈরির কাঁচামাল ফ্লাইঅ্যাশ, পাথর, গার্মেন্টস মেটেরিয়াল, কাপড়, পেঁয়াজ ইত্যাদি পণ্য পরিবাহিত হয়েছে। ভারত থেকে ঝামেলামুক্ত ও সাশ্রয়ী সময়ে পণ্য আমদানি করতে পেরে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা সন্তুষ্ট।

বাংলাদেশের উত্তাল পদ্মার বুকে উড়ছে উন্নয়নের শঙ্কচিল। প্রমত্তা পদ্মার বুকে দৃশ্যমান স্বপ্নের সেতু। শেখ হাসিনার হাত ধরেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হয়েছে পদ্মার বুকে। দিগন্তে মাথা তুলে দাঁড়াচ্ছে প্রায় ‘সাড়ে ছয় কিলোমিটার’ দীর্ঘ সেতুর অধিকাংশ অংশ। ২০২১ সালের শেষ নাগাদ পদ্মাসেতু দিয়ে যান চলাচলের আশা করা হচ্ছে। পদ্মার সেতুর ওপর দিয়ে যে রেললাইন হচ্ছে, তারই লিংক যুক্ত হবে ফরিদপুরের ভাঙ্গা থেকে। এর পর ভাঙ্গা, ফরিদপুর, রাজবাড়ি, গোয়ালন্দ, পোড়াদহ হয়ে যুক্ত হবে খুলনায়। দুই অংশের দূরত্ব প্রায় ৮০ কিলোমিটার। অপর লিংকটি খুলনা, রূপদিয়া, মাগুরা, যশোর, নড়াইলের বুক বেয়ে এসে মিশবে ভাঙ্গায়। এর দূরত্ব প্রায় ১৯৮ কিলোমিটার। এর পর মোংলা ও চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে সরাসরি রেলযোগে পণ্য পরিবাহিত হবে উত্তর-পূর্ব ভারতে এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে।

রেলভবন সূত্র বলছে, রেলপথের কাজ দ্রুত এগিযে চলেছে। পদ্মার দক্ষিণ তীরে চলছে উন্নয়নযজ্ঞ। তখন সরাসরি পণ্য পরিবহন হবে উত্তর-পূর্ব ভারতে। দক্ষিণের পথ ছেড়ে উত্তর-পূর্ব দিকে চোখ ফেরালে দেখা মিলবে আবেগের রেলপথ আখাউড়া-আগরতলার। এটির কাজও দ্রুত এগুচ্ছে। এরই মধ্যে ৪০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। এ বারে আরও কিছুটা পথ উত্তরে সরে গেলে শাহবাজপুর। এখান থেকে রেলপথ যুক্ত হচ্ছে অসমের করিমগঞ্জের মহিষাশনের সঙ্গে। খুলনা-চট্টগ্রাম বন্দর থেকে পণ্যবাহী রেল সরাসরি যাবে ভারতের প্রান্তিক রাজ্য ত্রিপুরা ও অসমে।

আসছে বৃহস্পতিবার পদ্মার দক্ষিণ তীর থেকে নির্মাণাধীন রেলপথের কাজের অগ্রগতি দেখতে যাবেন রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। জানা গেছে, তাঁর সঙ্গে থাকবেন হবেন বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানও। ভাঙ্গা, ফরিদপুর হয়ে যশোর পর্যন্ত সরেজমিন পরিদর্শন শেষে ওই দিনই ঢাকায় ফিরবেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারির শুরুতে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে সীমান্তপথ বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে আমদানি-রফতানি বাণিজ্যে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় বাংলাদেশে রেলপথে পণ্য পরিবহনের প্রস্তাব দেয় ভারত। তাতে সম্মতি দেয় বাংলাদেশ। ভারতের স্থলবন্দর দিয়ে বৈদেশিক বাণিজ্য শুরু না করা পর্যন্ত রেলপথে  পণ্যপরিবহন করার ইচ্ছে থেকেই পণ্যবাহী রেল চলাচলের শুরু। কিন্তু এতে ব্যবসায়ীদের মধ্যে উৎসাহ বেড়ে যায়। যার হাত ধরেই পরবর্তীতে পার্সেল ট্রেন চলাচল উন্মুক্ত হয়।

বর্তমানে কনটেনার, পণ্যবাহী এবং পার্সেল ট্রেন সমান তালে চলছে। পাশাপাশি স্থলবন্দর দিয়েও আমদানি-রফতানি পুরোদমে চালু রয়েছে। বাংলাদেশের স্থল সীমান্তের দৈর্ঘ্য প্রায় ২ হাজার ৪০০ কিলোমিটার, যার শতকরা ৯২ শতাংশ ভারতের সঙ্গে এবং মাত্র ৮ শতাংশ মায়ানমারের সঙ্গে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নিয়ন্ত্রণাধীন গোটা সীমান্ত জুড়ে ছোটো-বড়ো ১৮১টি শুল্ক স্টেশন রয়েছে।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীতে চালু হয়ে যাবে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রেলপথ

Continue Reading

দেশ

এ বার আলু, পেঁয়াজ, চাল, ডাল, ভোজ্য তেল অত্যাবশ্যক পণ্য নয়, বিল পাশ রাজ্যসভায়

এখন পরিস্থিতি বদলেছে, সুতরাং আইন সংশোধন করা দরকার, বললেন মন্ত্রী।

Published

on

নয়াদিল্লি: অত্যবশ্যক পণ্যের তালিকা থেকে আলু, পেঁয়াজ, চাল, ডাল, তেলবীজ, ভোজ্য তেলের মতো কৃষিপণ্যের ছাঁটাইয়ের বিলটি মঙ্গলবার পাশ হয়ে গেল সংসদে।

প্রায় সাড়ে ছ’দশকের অত্যাবশ্যকীয় পণ্য আইনের উপর অত্যাবশ্যক পণ্য‌ (সংশোধনী) বিল এ দিন পাশ হল রাজ্যসভায়। এর আগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর লোকসভায় পাশ হওয়ার পর এ দিন রাজ্যসভাতেও ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে গেল এই বিল। এর আগে গত জুন মাসে সংশ্লিষ্ট একটি অধ্যাদেশ জারি করেছিল কেন্দ্র।

একই ভাবে বিল নিয়ে সংক্ষিপ্ত বিতর্কের জবাবে এ দিন কেন্দ্রীয় ক্রেতা সুরক্ষা, খাদ্য ও গণবণ্টন দফতরের প্রতিমন্ত্রী দানভে রাওসাহেব দাদারাও বলেন, বিলটি পাশ হয়ে যাওয়ার পর তা কার্যকর হলে কৃষকরা উপকৃত হবেন। অন্য দিকে দেশের কৃষিক্ষেত্রে বিপুল বিনিয়োগের সম্ভাবনা তৈরি হবে।

এর ফলে কৃষক এবং ক্রেতা উভয়েই উপকৃত হবেন দাবি করে তিনি বলেন, “এই পদক্ষেপটি কৃষিক্ষেত্রে বিনিয়োগের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তুলবে”।

“সংশোধনীতে এই কৃষিপণ্যগুলির মজুতের ঊর্ধ্বসীমা প্রত্যাহারের” কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “বিলটি আইনে পরিণত হলে উৎপাদনের পর কৃষিপণ্য যতটা সম্ভব মজুত করা সম্ভব হবে। এর ফলে নষ্ট হওয়া ফসলের পরিমাণ কমার পাশাপাশি কম দামে বিক্রি করে দেওয়ার মতো পরিস্থিতিও হ্রাস পাবে। কোনো কোনো সময় ব্যাপক ফলন হলেও বিশেষত পচনশীল পণ্যের জন্য কৃষকের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়।”।

তাঁর মতে, ১৯৫৫ সালের আইনে পরিবর্তনগুলি কৃষকদের আয় দ্বিগুণ করার লক্ষ্য অর্জন এবং ব্যবসায়ে স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। তিনি বলেন, “দেশে খাদ্যশস্য উৎপাদনে স্বনির্ভরতা না আসায় প্রয়োজনীয় আইনটি আনা হয়েছিল। তবে এখন পরিস্থিতি বদলেছে, সুতরাং আইনটি সংশোধন করা দরকার” বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তবে এই সমস্ত পণ্যের উপর থেকে সরকারি নিয়ন্ত্রণ পুরোপুরি তুলে নেওয়া হচ্ছে না। কোনো অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে পণ্যগুলির মজুত,বণ্টন এবং বিক্রি-সহ আনুষঙ্গিক বিষয়গুলিতে হস্তক্ষেপ করতে পারবে সরকার।

আরও পড়তে পারেন: তিনটি দাবিতে রাজ্যসভা বয়কট বিরোধীদের, অনশনে ডেপুটি চেয়ারম্যান

Continue Reading
Advertisement
Narendra Modi
দেশ5 hours ago

২০১৫ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ সফরে খরচ হয়েছে প্রায় ৫১৮ কোটি টাকা

দেশ6 hours ago

অর্থনীতিতে নতুন হাতছানি বাংলাদেশ-ভারত পণ্যবাহী রেল চলাচল

IPL rajasthan Royals
ক্রিকেট7 hours ago

রানের বন্যা শেষে চেন্নাই-জয় রাজস্থান রয়্যালসের

Sherpa Ang Rita
অ্যাডভেঞ্চার9 hours ago

অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়াই ১০ বার মাউন্ট এভারেস্ট বিজয়ী আং রিটা প্রয়াত

রাজ্য10 hours ago

পর পর তিন দিন দৈনিক মৃতের সংখ্যা ৬০-এর উপরে, তবে ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতার হার

Currency
শিল্প-বাণিজ্য10 hours ago

জল জীবন মিশনের আওতায় ৫০ লক্ষ টাকা জেতার সুযোগ দিচ্ছে কেন্দ্র, তবে উৎরাতে হবে আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জে

কেনাকাটা11 hours ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

দেশ13 hours ago

এ বার আলু, পেঁয়াজ, চাল, ডাল, ভোজ্য তেল অত্যাবশ্যক পণ্য নয়, বিল পাশ রাজ্যসভায়

দেশ20 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৭৫০৮৩, সুস্থ ১০১৪৬৮

দেশ2 days ago

সোমবার থেকে স্কুল খোলা বাধ্যতামূলক নয়, দেখে নিন কোন রাজ্য কী সিদ্ধান্ত নিল

দেশ3 days ago

ব্যথার কারণ খুঁজতে হল এক্স-রে, বন্দির মলদ্বারে হদিশ মিলল চারটি মোবাইলের

coronavirus west bengal
দেশ19 hours ago

এই প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ কোভিডরোগীর সংখ্যা এক লক্ষ ছাড়াল

রাজ্য3 days ago

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

mamata banerjee
রাজ্য3 days ago

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফর স্থগিত

corona
দেশ2 days ago

৫টি রাজ্যেই মোট সক্রিয় কোভিডরোগীর ৬০ শতাংশ!

coronavirus west bengal
রাজ্য2 days ago

রাজ্যের চার জেলার কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ ভাবে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর

কেনাকাটা

কেনাকাটা11 hours ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা4 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা6 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

নজরে