RBI

ওয়েবডেস্ক: তিন মাস আগেই দেশের ব্যাঙ্কগুলিকে বিট কয়েন-সহ যে কোনো ক্রিপ্টোকারেন্সির সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করার নির্দেশ দিয়েছিল ভারতীয় রিজার্ভ। গত ৬ এপ্রিলের একটি নির্দেশিকাকে কেন্দ্রে করে অভিযোগ দায়ের হয় দিল্লি হাইকোর্টে। পরে ভারতে ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবসা সংক্রান্ত মামলাটি শুরু হয় সুপ্রিম কোর্টে। গত ৩ জুলাই ছিল সেই মামলার শুনানি। আগামী ২০ জুলাই পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারণ করেছে শীর্ষ আদালত। তার আগেই বৃহস্পতিবার আরবিআই জানায়, এই দিন থেকে এ দেশে ক্রিপ্টোকারেন্সি কেনা-বেচা নিষিদ্ধ করা হল।

Bitcoins

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের এই নির্দেশিকার পর বৃহৎ ক্রিপ্টোকারেন্সি সংস্থাগুলি তাদের ব্যবসার স্থান পরিবর্তন করার কথাও চিন্তাভাবনা করছে বলে জানা গিয়েছে। এই ঘোষণায় যে এই ব্যবসায় বিনিয়োগকারী থেকে শুরু করে বিশেষজ্ঞ মায় এজেন্টরা যারপরনাই অখুশি হয়েছেন, তা বলাই বাহুল্য। কয়েকটি মহল থেকে দাবি করা হচ্ছে, এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে আরবিআই জানিয়েছিল, সরকার নিজস্ব ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে কাজ করছে। তা হলে কী ভাবে এই ব্যবসাকে আচমকা বন্ধ করে দেওয়া যায়।

যদিও ওয়াকিবহাল মহলের মতে, ব্যাঙ্ক, খুচরো ক্রেতা-সহ সংশ্লিষ্ট সাধারণকে আরবিআই প্রথম সতর্ক করে ২০১৩ সালের ডিসেম্বর মাসে। তার পর ২০১৭-র ফেব্রুয়ারি মাসে ফের সতর্ক করা হয়। শেষ বার গত ডিসেম্বর মাসেও ওই একই সতর্কতা বাণী শোনানো হয়। যদিও সংশ্লিষ্ট মহল কোনো ভাবেই ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবসাকে বেআইনি ভাবতে পারছে না। কিন্তু আগামী ২০ জুলাই সুপ্রিম কোর্টের শুনানিতে যাই হোক, আরবিআই-এর এই নির্দেশ কার্যকর হল এ দিন থেকেই।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here