RBI

ওয়েবডেস্ক: টানা ৯ ঘণ্টার লম্বা বৈঠকের পর কেন্দ্রের পাল্লাই ভারী!

সোমবার সকালে শুরু হওয়া এই বৈঠকে কেন্দ্র-রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সংঘাতে দাঁড়ি পড়বে বলেই আশা করা হয়েছিল। তবে কে পিছু হঠবে, কে সফল হবে নিজের অবস্থানে অনড় থাকতে, সেটাই ছিল দেখার বিষয়। একই সঙ্গে ছিল কেন্দ্রের সঙ্গে সম্মুখসমরে অবতীর্ণ হয়ে আরবিআইয়ের গভর্নর উর্জিত পটেলের পদত্যাগের জল্পনাও। তবে বৈঠক শেষে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তেমন ইঙ্গিত মেলেনি। উল্টে কেন্দ্রের তরফে যে তিনটি ইস্যুতে আর্থিক সংস্কারের মোড়কে নীতিতে পরিণত করার চেষ্টা চালানো হয়েছিল, তার সব ক’টির ক্ষেত্রেই কার্যত সফল নরেন্দ্র মোদী সরকার। ঘুরপথে হলেও আরবিআই-কে কেন্দ্রের তিনটি আর্জিতেই নমনীয় হতে হল। তা যতই হোক ঘুরপথে।

প্রথমত, আরবিআইয়ের উদ্বৃত্ত মূলধনের অংশিদারিত্ব চেয়েছিল কেন্দ্র। অর্থমন্ত্রকের সচিবের তরফে টুইট করে তেমন কোনো আর্জির বিষয়কে অস্বীকার করা হলেও এ দিনের বৈঠকে উদ্বৃত্ত মূলধনের অংশবিশেষ বাজারে ছাড়তে সম্মতি জানিয়েছে আরবিআই। জানা গিয়েছে, ওই উদ্বৃত্ত মূলধন থেকে ৮,০০০ কোটি টাকা ব্যয় করবে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। তবে সরাসরি নয়, ওই টাকায় কেন্দ্রীয় সরকারি বন্ড কিনবে আরবিআই।

দ্বিতীয়ত, ১১টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ঋণনীতির পর্যালোচনা করে তাদের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ব্যাপারেও নমনীয় হয়েছে আরবিআই। কেন্দ্রের দাবি অনুযায়ী, অনাদায়ী ঋণে জর্জরিত রাষ্ট্রয়ত্ত ব্যাঙ্কের নয়া ঋণনীতি শিথিল করার ব্যাপারে সম্মতি জানিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক।  একই সঙ্গে ব্যাঙ্ক নয় এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলি থেকে ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পঋণের বিষয়টি নিয়েও বিবাদ এড়াতে সচেষ্ট হওয়ার পথ ধরার কথা জানা গিয়েছে।


আরও পড়ুন: লোকসভা ভোটের আগে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের দখল নিতে পারবে কি কেন্দ্র?


তৃতীয়ত, আরবিআইয়ের পরিচালন পর্ষদের সঙ্গে প্যানেল গঠন করে পরামর্শ গ্রহণের আর্জিও মেনে নিয়েছেন পটেলরা। ওই প্য়ানেল গঠন এবং সেই প্যানেলের সদস্য নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অবশ্য গুরুত্ব পাবে আরবিআইয়ের মত।


আরও পড়ুন: মিটিংয়ের আগেই রয়টার্সের কাছে কেন্দ্রের চাপের কথা স্বীকার করলেন দুই আরবিআই বোর্ড সদস্য!


সব মিলিয়ে আগামী লোকসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে কেন্দ্র ঠিক যে ভাবে ‘নগদপ্রবাহ অর্থনীতি’র পথে হাঁটতে চেয়েছিল, তার পুরোটা না হলেও অধিকাংশ সম্মতি আদায় করে নিতে সফল হল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here