ইস্তফাপত্র তৈরি, বিধায়ক-বিদ্রোহের আবহে স্পষ্ট বার্তা উদ্ধব ঠাকরের

0

মুম্বই: চেয়ারের জন্য লড়াই করবেন না। বিদ্রোহী বিধায়করা না চাইলে সামনাসামনি এসে বলুন। নিজের ইস্তফাপত্র হাতে নিয়ে বসে রয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে।

গত কয়েক দিন ধরেই একের পর এক নাটকীয় পরিস্থিতি মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে। দলের বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী একনাথ শিন্ডের বেশ কয়েকজন বিধায়ককে নিয়ে গা ঢাকা দিয়েছেন। প্রথমে গুজরাতের সুরত। সেখান থেকে অসমের গুয়াহাটিতে পৌঁছোন শিবসেনার বিদ্রোহী বিধায়কেরা। এমন পরিস্থিতিতে সংকটে উদ্ধব ঠাকরে সরকার।

এ দিন মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর দলের বিধায়কদের উদ্দেশে নিজের স্পষ্ট বার্তা পৌঁছে দিয়ে উদ্ধব জানান, তিনি পদত্যাগপত্র নিয়ে বসে রয়েছেন। মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ইস্তফা দিতে বলুন বিদ্রোহীরা। তা হলেই আর দ্বিতীয় চিন্তা-ভাবনা করবেন না তিনি।

উদ্ধবের কথায়, “হিন্দুত্বই শিবসেনার পরিচয় এবং আদর্শ। কিছু দল শিবসেনার হিন্দুত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলছে দেখে অবাক লাগছে। মুখ্যমন্ত্রী হব তা কখনও ভাবিনি। তাই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব আসার পর কিছুটা অবাকই হয়েছিলাম”।

আচমকা তৈরি হওয়া সংকট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বিধায়কদের অনেকেই ফোন করছেন। ফিরতে চান বলছে জানাচ্ছেন আমাদের। আমি ওঁদের ধন্যবাদ জানিয়েছি। কিন্তু এই ঘটনায় আমি স্তম্ভিত। কারণ কংগ্রেস অথবা এনসিপি যদি বলত, আমার আর মুখ্যমন্ত্রী থাকা চলবে না, তা হলে হয়তো মেনে নিতে পারতাম। কমল নাথ নিজে বলেছেন, আমারই মুখ্যমন্ত্রী থাকা উচিত। কিন্তু নিজের লোকজনই আমাকে চাইছেন না। কী-ই বা বলতে পারি”?

ও দিকে, ৩০ জন বিধায়কের সমর্থন দাবি করে রাজ্যপালকে চিঠি দিয়েছেন একনাথ। এর পরই উদ্ধব জানিয়ে দিলেন, “একজন বিধায়কও মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে আমাকে না চাইলে আমি পদত্যাগ করব। আমি আমার পদত্যাগপত্র তৈরি করে রাখছি। সামনাসামনি এসে বলুন, আপনি আমার পদত্যাগ চান”।

আরও পড়তে পারেন:

এসএসসিতে তদন্তে ইডি-ও, আরও অস্বস্তিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়

নবম-দশমে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি মামলা, এসএসসি-র চেয়ারম্যানকে সশরীরে হাজিরার নির্দেশ হাইকোর্টের

চার বছরেও নেওয়া হয়নি পদক্ষেপ, স্কুলের মামলায় রাজ্য পুলিশকে ভর্ৎসনা হাইকোর্টের

পদত্যাগ করছেন উদ্ধব ঠাকরে? শিবসেনা নেতার ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ জোটের প্রার্থী দ্রৌপদী মুর্মু, ঘোষণা জেপি নড্ডার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন