Connect with us

দেশ

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে মৃত্যুহারে উল্লেখযোগ্য পতন

স্বস্তি দিচ্ছে মৃত্যুহারের বড়োরকমের পতন। বর্তমানে সেই হার নেমে এসেছে ২.৬৩ শতাংশে।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এক দিনে সংক্রমিত হলেন ২৮,৭০১ জন। অর্থাৎ আক্রান্তের সংখ্যায় দৈনিক রেকর্ড হল সোমবার। যদিও মৃত্যুহার উল্লেখযোগ্য ভাবে কমে গিয়েছে। পাশাপাশি স্বস্তি দিচ্ছে সুস্থতার হারও।

দেশের করোনা-তথ্য

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) সোমবারের হিসেব বলছে, এই মুহূর্তে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৮ লক্ষ ৭৮ হাজার ২৫২। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ৩ লক্ষ ১ হাজার ৬০৯। সুস্থ হয়েছেন ৫ লক্ষ ৫৩ হাজার ৪৭০ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৩,১৭৪ জনের।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংক্রমণের পাশাপাশি সুস্থ হয়েছেন ১৮,৮৪৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫০০ জনের।

বর্তমানে ভারতে সুস্থতার হার রয়েছে ৬৩.০১ শতাংশে। তবে স্বস্তি দিচ্ছে মৃত্যুহারের বড়ো রকমের পতন। বর্তমানে সেই হার নেমে এসেছে ২.৬৩ শতাংশে।

দিল্লিতে কমছে সংক্রমণ, বাড়ছে সুস্থতা

গোটা দেশের কাছেই এখন মডেল হয়ে উঠেছে দিল্লি (Delhi)। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক হলেও দিন দিন রাজধানীতে কমছে নতুন সংক্রমণ। একই সঙ্গে বাড়ছে সুস্থতা। দিল্লিতে এই মুহূর্তে সুস্থতার হার ৭৯.৯৭ শতাংশ হয়ে গিয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা আশা করছেন, দিল্লির বর্তমান প্রবণতা যদি আরও দেড় থেকে দুই সপ্তাহ চলে, তা হলে কোভিড কার্ভ সমান তথা ‘ফ্ল্যাটেন’ হয়ে যাবে সেখানে।

যে রাজ্যগুলি এখন মূল চিন্তার কারণ

বর্তমানে, মহারাষ্ট্র, দিল্লি বা তামিলনাড়ুর থেকেও বেশি চিন্তা রয়েছে বেশ কয়েকটি রাজ্যকে নিয়ে। তাদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গও পড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এ রাজ্যে ১৫৬০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, যা খুবই উদ্বেগজনক।

পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও তেলঙ্গানা, কর্নাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ, অসম, বিহার চিন্তা বাড়াচ্ছে। এই পাঁচ রাজ্যেই গত ২৪ ঘণ্টায় এক হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। কর্নাটকে তো আড়াই হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন।

তবে উত্তরপ্রদেশে রোগী-বৃদ্ধির হার কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

নমুনা-পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ১ লক্ষ ১৯ হাজার ১০৩টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে এখনও পর্যন্ত মত এক কোটি ১৮ লক্ষ ৬ হাজার ২৫৬টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে দেশে।

দেশ

করোনা কাঁটায় ঝিমিয়ে অর্থনীতি, রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

শক্তিকান্ত দাস। ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (RBI) বৃহস্পতিবার মুদ্রাস্ফীতির সাম্প্রতিক বৃদ্ধি এবং করোনাভাইরাস মহামারির (Coronavirus pandemic) প্রভাবজনিত কারণে রেপো রেট এবং অন্যান্য মূল হারগুলি অপরিবর্তিত রেখে দিল।

আরবিআইয়ের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস বলেন, “কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কের মুদ্রানীতি কমিটি সর্বসম্মত ভাবে মূল হারগুলি অপরিবর্তিত রাখার এবং অনুকূল অবস্থান বজায় রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোভিড-১৯ (Covid-19) পরিস্থিতিতে যতক্ষণ না অর্থনীতির সংকট কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হচ্ছে, পাশাপাশি মুদ্রাস্ফীতি অব্যাহত থাকছে ততদিন পর্যন্ত এ ভাবেই মেপে পা ফেলতে হবে”।

তিনি বলেন, লকডাউনের মধ্যেই এপ্রিল-মে মাসের প্রথমদিকে দেশে অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ পুনরায় শুরু হয়েছিল। তবে কোভিড -১৯ সংক্রমণের বৃদ্ধির ফলে বেশ কয়েকটি রাজ্যে বেশ কিছু শহরে এখনও পর্যন্ত লকডাউন জারি রাখতে বাধ্য হচ্ছে। একই সঙ্গে শুধু এ দেশ নয়, গোটা বিশ্বই করোনার প্রভাবে অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছে।

সংবাদ মাধ্যমের উদ্দেশে একটি ভার্চুয়াল ভাষণে আরবিআই গভর্নর বলেন, ২০২০-২১ আর্থিক বছরের প্রথমার্ধ অথবা প্রায় পুরোটা জুড়েই দেশের জিডিপি (GDP) সংকুচিত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সুদের হার এখন কত?

এ দিন আরবিআইয়ের ছয় সদস্যের মুদ্রানীতি কমিটি বা মনিটারি পলিসি কমিটি (MPC) এই সিদ্ধান্ত নেয়। জানানো হয়, রেপো রেট ৪ শতাংশই রয়ে গেল, রিভার্স রেপো রেট রইল ৩.৩৫ শতাংশ। রেপো রেট সেই হার, যাতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অন্য ব্যাঙ্কগুলিকে ঋণ দেয়। রিভার্স রেপো রেট, যে হারে আরবিআই অন্য ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ গ্রহণ করে।

আরবিআই গভর্নরের আশঙ্কা!

কয়েক সপ্তাহ আগে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশ নিয়ে আরবিআই গভর্নর বলেন, “কোভিড-১৯ মহামারি এক দিকে যেমন স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলেছে, তেমনই এই পরিস্থিতির জেরে সংকটে পড়েছে অর্থনীতিও। উৎপাদন থেকে শুরু করে কাজের উপরও খাড়া নেমে এসেছে। সব মিলিয়ে এই পরিস্থিতি শেষ একশো বছরে স্বাস্থ্য এবং অর্থনীতির কাছে সব থেকে বড়ো সংকটের চেহারা নিয়েছে”।

তিনি বলেন, “কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব সারা বিশ্বে থাবা বসিয়েছে। যে কারণে বর্তমানে বিশ্বব্যাপীমান শৃঙ্খলা, শ্রম এবং মূলধন লেনদেন এবং সারা বিশ্বের বিশাল অংশের মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উপর যে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে, তা বলাই বাহুল্য”।

Continue Reading

দেশ

কাশ্মীরে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত সরপঞ্চ তথা বিজেপি নেতা

এই নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহে চার বার বিজেপি নেতাদের ওপরে আক্রমণের ঘটনা ঘটল।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: জঙ্গিদের গুলিতে কাশ্মীরে (Jammu and Kashmir) নিহত হলেন বিজেপি নেতা তথা এক গ্রামের সরপঞ্চ। বৃহস্পতিবার সকালে এই ঘটনাটি ঘটেছে।

শ্রীনগর থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরের কুলগাম জেলার কাজিগুন্ডে এ দিন এই ঘটনাটি ঘটেছে। কুলগামের বিজেপি জেলাসভাপতি সাজাদ আমহেদকে লক্ষ করে গুলি করে জঙ্গিরা। তিনি কুলগামেরই একটি পঞ্চায়েতের সরপঞ্চ ছিলেন।

অনন্তনাগের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ওই নেতাকে। তবে হাসপাতালে পৌঁছোনোর আগে পথেই মৃত্যু হয় তাঁর।

এই নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহে চার বার বিজেপি নেতাদের ওপরে আক্রমণের ঘটনা ঘটল। গত মাসের শেষ দিকে বন্দিপোরার জেলা সভাপতি ওয়াসিম বারিকে খুন করে জঙ্গিরা। হত্যা করা হয় তাঁর বাবা আর ভাইকেও।

ওই হামলার দায় শিকার করেছিলেন ‘দ্য রিজিজস্টান্স ফোর্স’ নামক নতুন একটি জঙ্গি সংগঠন। পুলিশের দাবি, লস্কর, জৈশ আর হিজবুলের যৌথ ফ্রন্ট এই জঙ্গি সংগঠনটি।

Continue Reading

দেশ

২০২৩-২৪ সালে অযোধ্যায় দিনে এক লক্ষ পুণ্যার্থীর প্রত্যাশা করছে কেন্দ্র-রাজ্য

অযোধ্যাকে একটি বৃহৎ পর্যটন কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে কেন্দ্র-রাজ্য।

প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: আগামী ২০২৩-২৪ সালের মধ্যে শ্রীরাম জন্মভূমি মন্দিরের (Ram mandir) নির্মাণকাজ সম্পূর্ণ হওয়ার পর এক দিনে প্রায় এক লক্ষ পুণ্যার্থীর আগমন প্রত্যাশা করছে উত্তরপ্রদেশ রাজ্য সরকার এবং কেন্দ্রীয় সরকার। স্বভাবতই ধর্মীয় ক্রিয়াকলাপকে মাঝখানে রেখে অযোধ্যাকে পর্যটন এবং অর্থনীতির একটি বৃহৎ কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে কেন্দ্র-রাজ্য।

গত বছর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এক শতাব্দীরও বেশি পুরোনো বিরোধের অবসান ঘটার ফলে সামাজিক-রাজনৈতিক অথবা অর্থনীতির জন্য একটা নতুন দিক উন্মোচিত হয়েছে বলেই মনে করছে একাংশ। কারণ, এটি দেশের রাজনীতি ও নীতি নিয়ে একটি বড়ো অনিশ্চয়তা দূর করেছে। ‘১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর তথাকথিত হিন্দুত্ববাদীদের হাতে সৎকার হয়ে যায় বাবরি মসজিদের। যার জেরে সাম্প্রদায়িক হাঙ্গামা শুরু হয় গোটা দেশ জুড়েই। কিছু দিন কেটে যাওয়ার পর অযোধ্যার মানুষ সাম্প্রদায়িকতার ঊর্ধ্বে উঠে কয়েক যুগ ধরে মিলেমিশে বাস করছে। কিন্তু রাজনীতিকরা সেই শান্তি বিঘ্নিত করছিলেন’ বলে স্থানীয় মানুষও অভিযোগ করেছেন।

পরিস্থিতি বদলে গেছে!

এখন সেই পরিস্থিতি কিছুটা হলেও বদলের প্রত্যাশা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এমনকী বুধবার রামমন্দিরের ভূমিপুজো এবং ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে নিজের বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) বলেন, “মন্দিরটি শুধু অযোধ্যার সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলবে না, একই সঙ্গে এই অঞ্চলের অর্থনীতিতে পরিবর্তন আনবে। এই অঞ্চলে নতুন সুযোগ সৃষ্টি হবে। ভগবান রাম এবং মা সীতার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সমগ্র বিশ্ব থেকে মানুষ এখানে আসবেন। এখানে অনেক কিছুই বদলে যাবে”।

[ছবি: সংগৃহীত]

গত বছরের নভেম্বরে সুপ্রিম কোর্ট মন্দির ও মসজিদ নির্মাণ নিশ্চিত করার পরই অযোধ্যাকে কেন্দ্র করে পর্যটন ব্যবসা নতুন ভোরের জন্য অপেক্ষা করছে। আশা করা হচ্ছে, এর পরে ৫০ লক্ষ থেকে এক কোটি বাড়তি পর্যটক ভিড় জমাতে পারেন উত্তরপ্রদেশে। সব মিলিয়ে উত্তরপ্রদেশের পর্যটন ব্যবসার সুদিন আসতে চলেছে।

কী ভাবে ভোলবদল?

সরকারি আধিকারিকরা বলছেন, মন্দিরটি নির্মাণের সঙ্গে সঙ্গে একটি মেগা পরিকল্পনা রূপ নেবে এবং আগামী বছরের মধ্যে অযোধ্যায় একটি আন্তর্জাতিক শ্রীরাম বিমানবন্দর অন্তর্ভূক্ত হবে, একটি আধুনিক রেল স্টেশন নির্মিত হবে। বিশ্বের বৃহত্তম রামের মূর্তি ও অন্যান্য বিষয়গুলিকে কেন্দ্র করে নতুন ধর্মীয় পর্যটনের গন্তব্য হয়ে উঠবে অযোধ্যা। শুধু তাই নয়, এই অঞ্চলকে কেন্দ্র করে শহরের চারপাশে প্রায় ৮৪ মাইল পরিধির একটি বিস্তীর্ণ এলাকার ভোল বদলে যাবে।

[ছবি: সংগৃহীত]

তাঁরা জানান, বেশ কয়েকটি মাল্টি-লেভেল পার্কিং,চওড়া রাস্তা, রাম জন্মভূমির দিকে যাওয়ার জন্য দু’কিলোমিটার দীর্ঘ রাস্তা, ভূগর্ভস্থ রাস্তা এবং ফেরিঘাট-সহ সাধারণ মানুষের পরিবহণে একাধিক কর্মকাণ্ড চলছে।

প্রশাসনিক পরিকাঠামো

সরযূ নদীর দু’তীরের উন্নয়নের পাশাপাশি হোটেল, রেস্তোঁরা ও পর্যটন-সংক্রান্ত পরিকাঠামো তৈরির অনুমতি দেওয়ার জন্য প্রশাসনিক স্তরেও কাঠামো সংশোধন করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, অযোধ্যা ডেভেলপমেন্ট অথরিটির আওতাধীন এই অঞ্চলটির আয়তন বাড়ানোর প্রস্তাবও রয়েছে। কেন্দ্রীয় পর্যটন ও সড়ক পরিবহণ এবং জাতীয় সড়ক মন্ত্রক এই উদ্যোগে রাজ্যের সঙ্গে যৌথ ভাবে কাজ করছে। গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ পটেল অযোধ্যায় গিয়ে এ ব্যাপারে আলোচনায় অংশ নেন বলেও জানিয়েছেন সরকারি আধিকারিকরা।

জমকালো পরিকল্পনা

মন্দির চত্ত্বরের ৭০ একর জমিটিকে জমকালো ভাবে সাজিয়ে তুলতে নেওয়া হয়েছে একাধিক পরিকল্পনা। ভগবান রামের জীবনের উপর আধারিত ডকুমেন্টারি, মিউজিয়াম, ফোটো গ্যালারি এবং প্রার্থনাগৃহ ছাড়াও থাকছে বড়ো আকারের ফুড কোর্ট। অন্য দিকে একটি জলাশয়ে লেজার সাউন্ড অ্যান্ড লাইট শো-এরও পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষের কাছে এগুলি যথেষ্ট আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবে।

[ছবি: সংগৃহীত]

মন্দির ট্রাস্টের এক সদস্য স্বামী গোবিন্দ গিরি ইকোনমিক টাইমস-এর কাছে বলেছেন, “মন্দির প্রাঙ্গণটি ঐতিহ্য ও আধুনিকতার মিশ্রণ নির্মিত হবে। তীর্থযাত্রীদের ভিড়ের সম্ভাব্য কারণটি মাথায় রেখে মন্দির প্রাঙ্গণটি ১০৮ একর পর্যন্ত বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। বাড়তি জমি কেউ দান করতে পারেন, অথবা সংশ্লিষ্ট জমির মালিকের কাছ থেকে ট্রাস্ট কিনে নিতে পারে”।

Continue Reading
Advertisement
গাড়ি ও বাইক39 mins ago

চলতি মাসে যে ৫টি নতুন মোটর বাইক বাজারে আসছে

বাংলাদেশ50 mins ago

রাশেদ খান হত্যা মামলা: ৯ পুলিশের বিরুদ্ধে পরোয়ানা, ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ধৃত

রাজ্য1 hour ago

প্রয়াত বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা শ্যামল চক্রবর্তী

দেশ3 hours ago

করোনা কাঁটায় ঝিমিয়ে অর্থনীতি, রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

Hrithik Roshan
বিনোদন4 hours ago

‘ক্রিশ ৪’ নয়, তার আগেই একটি কমেডি ছবিতে হৃতিক রোশনকে দেখা যাবে?

দেশ5 hours ago

কাশ্মীরে জঙ্গিদের গুলিতে নিহত সরপঞ্চ তথা বিজেপি নেতা

বিদেশ5 hours ago

‘ভাসমান বোমার’ হুমকিকে উপেক্ষা, ক্ষোভে ফুঁসছে বেইরুট

দেশ6 hours ago

২০২৩-২৪ সালে অযোধ্যায় দিনে এক লক্ষ পুণ্যার্থীর প্রত্যাশা করছে কেন্দ্র-রাজ্য

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা16 hours ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা6 days ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা4 weeks ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

নজরে

Click To Expand