খবরঅনলাইন ডেস্ক: মহাবিপর্যয় ঘটে যাওয়ার ৬০ ঘণ্টা পর অবশেষে সাফল্য এল। তপোবন বিদ্যুৎ প্রকল্পের যে সুড়ঙ্গের মধ্যে অন্তত ৩৫ জন কর্মী আটকে রয়েছেন বলে খবর, সেই সুড়ঙ্গে মঙ্গলবার রাতে অবশেষে প্রবেশ করতে পেরেছে আইটিবিপি, এসডিআরএফ এবং এনডিআরএফের জওয়ান সম্বিলিত উদ্ধারকারী দলটি।

সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়েছে, উদ্ধারকারী দলটির সদস্যরা উচ্চদৃশ্যমানতার জ্যাকেট আর হলুদ হার্ডকোট পরে সুড়ঙ্গে প্রবেশ করছে। সুড়ঙ্গের মধ্যে প্রায় হাঁটু সমান কাদা জমে গিয়েছে। তার ওপর দিয়েই এগিয়ে চলছে দলটি।

এএনআইতে প্রকাশিত ভিডিওয়ে দেখা যাচ্ছে ঘুরঘুট্টে অন্ধকার সুড়ঙ্গে মশাল, হালকা আলো এবং খনিশ্রমিকদের কাছে থাকা বিশেষ টর্চগুলি নিয়ে প্রবেশ করছেন জওয়ানরা। টানেলটি ইংরেজির U আকারের। ১২ থেকে ১৫ ফুট চওড়া।

সুড়ঙ্গের প্রবেশ পথ একটাই। তার পরেই সেটি দু’দিকে ভাগ হয়ে গিয়েছে। তাই উদ্ধারকারী দলটিও দু’ভাগে ভাগ হয়ে আটকে থাকা মানুষদের বের করা আনার চেষ্টা শুরু করে দিয়েছে। আইটিবিপির মুখপাত্র বিবেক কুমার পাণ্ডে সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেন, “ধ্বংসাবশেষ এবং জলকাদা সাফাই করার কাজ সারা রাত ধরে চলেছে। সুড়ঙ্গের প্রবেশ পথের ১২০ মিটার দীর্ঘ স্ট্রেচটি পরিষ্কার করে দেওয়া হয়েছে।”

তবে আইটিবিপির তরফে জানানো হয়েছে আটকে পড়া মানুষদের সঙ্গে এখনও যোগাযোগ করতে পারেনি উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। যদিও তারা আশাবাদী, যাঁরা আটকে পড়েছেন, তাঁদের জীবিত অবস্থাতেই উদ্ধার করা হবে।

এ দিকে, উত্তরাখণ্ডের এই বিপর্যয়ে এখনও পর্যন্ত ৩২ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। ১৭০-এর ওপরে মানুষ এখনও নিখোঁজ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

টেস্ট বাড়ায় রাজ্যে সামান্য বাড়ল সংক্রমণ, তবে দুই জেলা সংক্রমণ-শূন্য

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন