আজমল হক। ছবি সূত্র :ডিএনএ

ওয়েবডেস্ক : উৎকণ্ঠা সে দিন থেকেই ছিল গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে যে দিন ফরেন ট্রাইবুনাল থেকে বার্তা এল যে, তাঁকে প্রমাণ দিতে হবে তিনি ভারতের নাগরিক। সব তালগোল পাকিয়ে গিয়েছিল। ৩০ বছর ধরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সদস্য হিসাবে কাজ করেও তাঁকে প্রমাণ দিতে হবে তিনি ভারতীয় নাগরিক কিনা। তবু সরকারি নির্দেশ মেনে কাগজপত্র জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু সোমবার ওয়েবসাইটে এনসিআর-এর চূড়ান্ত খসড়া তালিকা খুলে দেখলেন ২ কোটি ৮৯ লক্ষের মধ্যে তাঁর নাম নেই।

২০১৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সেনাবাহিনী থেকে অবসর নেন আজমল হক। সরাসরি যুদ্ধক্ষেত্রে লড়াই না করলেও তিনি ছিলেন টেকনিক্ট্যাল স্টাফ।

সংবাদমাধ্যম ডিএনএকে তিনি জানিয়েছেন, ‘‘ছ’মাসের সেনাবাহিনীর ট্রেনিং নেওয়ার পর, আমি বাহিনীর বিভিন্ন জায়গায় টেকনিক্যাল স্টাফ হিসাবে কাজ করি। পঞ্জাবের এলওসিতে, ইন্দো-চিন সীমান্তে, লক্ষ্মৌ কোটা এবং দীর্ঘ সময় ধরে সেকেদ্রাবাদের কলেজ অফ ডিফেন্স ম্যানেজমেন্টে।’’ সেনাবাহিনীর কমপিউটার এবং নেটওয়ার্কিং-টিমের সঙ্গেও কাজ করছেন তিনি। চাকরির শেষের দিকে তিনি সেকেন্দরাবাদের ট্রেনিংও দিতেন।  কিন্তু সে সব ‘নস্যাৎ করে দিচ্ছে’ একটি তালিকা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here