bollywood actor

ওয়েবডেস্ক: সম্প্রতি এক বিবৃতিতে জানিয়েছিলেন জম্মু এবং কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ- পাক-অধিকৃত কাশ্মীর পাকিস্তানের এবং বাকিটুকু ভারতের। এই সমস্যা যুদ্ধ করে মেটানো যাবে না। বক্তব্যে পাক-অধিকৃত কাশ্মীর পাকিস্তানকে ছেড়ে দেওয়ার পক্ষেই সওয়াল করেছিলেন তিনি। বলাই বাহুল্য, তাঁর এই মন্তব্যে খুশি হয়নি কোনো রাজনৈতিক দলই। এবার ফারুক আবদুল্লাহর এই বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়ে একটি টুইট করে বিপাকে পড়লেন বর্ষীয়ান অভিনেতা ঋষি কাপুর।

১২ নভেম্বর আবদুল্লাহকে সমর্থন জানিয়ে এই টুইটটি করেন ঋষি কাপুর। সেখানে তিনি লেখেন, “সালাম ফারুক আবদুল্লাহজি! আপনাকে আমি পূর্ণ সমর্থন করছি স্যার। জম্মু এবং কাশ্মীর আমাদের আর পাক-অধিকৃত কাশ্মীর ওদের। এটাই আমাদের সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায়। স্বীকার করতে দ্বিধা নেই, আমার ৬৫ বছর বয়স হয়ে গেল। মৃত্যুর পূর্বে আমি পাকিস্তানে যেতে চাই। আমি চাই, আমার সন্তান-সন্ততিরাও তাদের শিকড়ের কাছে যাক। এই পথেই কাশ্মীর-সমস্যার সমাধান করিয়ে দিন। জয় মাতা দি!”

কিন্তু আবদুল্লাহর নীতি মেনে ভারতকে কাশ্মীর-সমস্যার সমাধানের আর্জি জানিয়ে কার্যত বিপাকে পড়লেন অভিনেতা। কাশ্মীরের এক সমাজকর্মী সুকেশ খাজুরিয়া জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে যুগ্ম ভাবে মামলা দায়ের করলেন অভিনেতার বিরুদ্ধে। সেই মামলায় নাম রয়েছে আবদুল্লাহরও। পাশাপাশি, আরও একটি পিটিশন দায়ের করা হয় দিল্লি হাই কোর্টে। জানা গিয়েছে, দিল্লি হাই কোর্ট এই মামলার শুনানি করতে পারে ২০ নভেম্বর।

অনেক বছর ধরেই পাকিস্তানে তাঁদের বাস্তুভিটা দেখার জন্য উদগ্রীব হয়ে রয়েছে কাপুর পরিবার। ‘তামাশা’ ছবির মুক্তির সময় যখন তা পাকিস্তানে দেখানোর প্রস্তাব উঠেছিল, তখন পৈতৃক ভিটায় যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন রণবীর কাপুরও। যদিও তা সম্ভব হয়নি। শেষ পর্যন্ত অবহেলাতেই পড়ে থেকেছে পেশওয়ারে কাপুরদের বাড়ি। ১৯১৮ থেকে ১৯২২ সালের মধ্যে পেশওয়ারের এই বাড়িটি তৈরি করান পৃথ্বীরাজ কাপুরের বাবা দেওয়ান বশেশ্বর কাপুর। ভারতে চলে আসার পর আর কাপুর পরিবারের কোনো সদস্যেরই পা পড়েনি সেই বাড়িতে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here