নাগপুর: দেশের অবশিষ্টাংশের সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীরের জনগণকে পুরোপুরি মিলিয়ে দেওয়ার জন্য ‘সংবিধানের প্রয়োজনীয় সংশোধন” করার কথা বললেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত।

শনিবার নাগপুরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সদর কার্যালয়ে বিজয়াদশমীর ভাষণ দেন ভাগবত। তিনি একই সঙ্গে মনে করিয়ে দেন, ১৯৯০ সালের পর যাঁরা কাশ্মীর উপত্যকা থেকে উৎখাত হয়েছেন, তাঁদের সমস্যার আজও সমাধান হয়নি।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদে জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। মোহন ভাগবত সরাসরি তার উল্লেখ করেননি বটে তবে তাঁর ভাষণে ঠারেঠোরে সেই প্রসঙ্গই এনেছেন। তিনি বলেন, “সংবিধানের প্রয়োজনীয় সংশোধন করতে হবে এবং ওই রাজ্যের পুরোনো ধারা পরিবর্তন করতে হবে। যখন এই সংবিধান সংশোধন কার্যকর হবে, তখনই একমাত্র সে রাজ্যের মানুষ অবশিষ্ট ভারতের সঙ্গে একাত্ম হয়ে যাবেন।”

তিনি বলেন, কোনো রকম বৈষম্য ছাড়া এবং স্বচ্ছ ও পরিচ্ছন্ন শাসনের মাধ্যমে জম্মু ও লাডাক সহ গোটা রাজ্যের মানুষের কাছে উন্নয়নের সুফল পৌঁছে দিতে হবে। জম্মু-কাশ্মীরের উদ্বাস্তুদের সমস্যার যে এখনও সমাধান হয়নি সে কথা স্মরণ করিয়ে দেন মোহন। তিনি বলেন, ওই উদ্বাস্তুরা ‘ভারতে’ থাকতে চেয়েছিলেন। তাই দশকের পর দশক ধরে তাঁদের নিদারুণ পরিবেশে থাকতে হচ্ছে। ভারতের নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও তাঁরা আজও শিক্ষা, কর্মসংস্থান এবং গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগের ন্যূনতম সুবিধাটুকুও পান না।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন