sabarimala temple
সবরীমালা মন্দির

ওয়েবডেস্ক: হামলার আশঙ্কার মধ্যেই ফের খুলল সবরীমালার আয়াপ্পা মন্দিরের দরজা। অপ্রীতিকর ঘটনা রুখতে মন্দিরের চত্বরে ১৪৪ ধারা করেছে কেরল সরকার। তবে ‘সবরীমালা কর্মসমিতি নামক’ একটি সংগঠন মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশ রুখতে তৎপরতাও শুরু করেছে বলে খবর।

সবরীমালায় মহিলাদের প্রবেশ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়ের পর গত ১৭ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত ভক্তদের জন্য খুলেছিল সবরীমালার দরজা৷ সুপ্রিম রায়কে ঢাল করে মন্দিরে ঢোকার জন্য শুরু হয় অভিযান৷ কিন্তু, ওই সময়ের মধ্যে অবশ্য ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সি কোনো মহিলা মন্দিরে ঢুকতে পারেননি৷ বারবার তাঁদের বাধা দেন এই সংগঠনের সমর্থকরা।

এর মধ্যে আরও বিতর্ক বাড়িয়েছে সংগঠনটির আরও একটি ফতোয়া। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের কাছে চিঠি দিয়ে তারা ‘অনুরোধ’ করেছে, কোনো ভাবেই যেন মহিলা সাংবাদিকদের মন্দির চত্বরে আসতে না দেওয়া হয়। তবে কেরল হাইকোর্ট কেরল সরকারকে নির্দেশ দিয়ে বলেছে কোনো ভক্তকেই মন্দিরে ঢোকা থেকে আটকানো যাবে না।

আরও পড়ুন আরবিআই গেরো কাটাতে মোদীর সহায় হয়ে উঠতে চলেছে নেহরুর সেই চিঠি!

দ্বিতীয় দফায় মন্দির খোলা নিয়ে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে কেরল সরকার। আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত থাকছে কড়া পুলিশি প্রহরা৷ মন্দিরের আশপাশেও অতিরিক্ত পুলিশ বাহিনী মোতায়েন হয়েছে৷ গোটা এলাকায় ২ হাজার ৩০০ পুলিশকর্মী নামানো হয়েছে। এ ছাড়াও মহিলা পুলিশকর্মীদেরও নিয়োগ করা হয়েছে। তবে সব মহিলা পুলিশকর্মীর বয়সই ৫০-এর ওপরে। এর ফলে আরও এক প্রস্থ বিতর্ক তৈরি হতে পারে৷