salman khan

জোধপুর: আরও অন্তত একটা রাত জেলে থাকতেই হচ্ছে অভিনেতা সলমন খানকে। শনিবার পর্যন্ত অভিনেতার জামিন-শুনানি পিছিয়ে দিয়েছে জোধপুরের দায়রা আদালত।

বৃহস্পতিবার জোধপুরের সেন্ট্রাল জেলে রাত কাটানোর পর এ দিন সকালেই জামিনের জন্য দায়রা আদালতে হাজির হন সলমন। সঙ্গে ছিলেন তাঁর বোন এবং দেহরক্ষীরা। কিন্তু সলমনের আইনজীবীরা যে কাগজপত্র আদালতে পেশ করেছেন তা খতিয়ে দেখার জন্য আরও সময় চেয়েছে আদালত। তাই শনিবার সকাল সাড়ে দশটা পর্যন্ত জামিন পিছিয়ে দিয়েছে আদালত।

কৃষ্ণসার হরিণ শিকার মামলায় বৃহস্পতিবার সলমনকে পাঁচ বছরের কারাবাসের নির্দেশ দেয় জোধপুরের একটি আদালত। এর পরেই তিনি সেন্ট্রাল জেলে পৌঁছোন। সেখানে ১০৬ নম্বর কয়েদি হন সলমন।

স্বঘোষিত ধর্মগুরু জেলবন্দি আসারাম বাপুর ঠিক পাশের সেলেই স্থান হয় সলমনের। রাতে কিছুক্ষণ আসারাম বাপুর সঙ্গে গল্প করেন তিনি। তার পর ডাল-সবজি দিয়ে রুটি খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। শুক্রবার সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ ঘুম ভাঙে তাঁর। তবে জেলের প্রাতরাশ না করেই জামিনের শুনানিতে চলে আসেন তিনি। এখানে অবশ্য আপাতত হতাশাই অপেক্ষা করছিল তাঁর জন্য।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন