এটাওয়া: ভাঙনের মধ্য দিয়েই শেষ হল যাদব পরিবারে ৬ মাস ধরে চলতে থাকা মুষল পর্বের। গত বছরের শেষের দিক থেকেই বাবা মুলায়ম ও ছেলে অখিলেশের দ্বন্দ্বে সরগরম ছিল সমাজবাদী পার্টি। তাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় ছিলেন অখিলেশের দুই কাকা শিবপাল ও রামগোপাল যাদব। শিবপাল, মুলায়মের পক্ষে এবং রামগোপাল অখিলেশ শিবিরের প্রধান নেতা। দ্বন্দ্ব এতদূর যায় যে ডিসেম্বরের শেষে ছেলেকে দল থেকে বহিষ্কার করেন মুলায়ম। বহিষ্কার, পাল্টা বহিষ্কারের বহু নাটক মঞ্চস্থ হতে থাকে সমাজবাদী পার্টিতে। দলের নাম-প্রতীক নিয়েও চলে টানাপোড়েন।  শেষ পর্যন্ত তার দখল পান উত্তরপ্রদেশের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ সিং। ক্ষোভ নিয়েও দলে থেকে যান মুলায়ম-শিবপালরা। দলের নেতৃত্বে চলে আসেন অখিলেশ। সেই পর্ব শেষ হল শুক্রবার। শিবপাল যাদব এদিন ঘোষণা করলেন, তাঁর নতুন সংগঠনের নাম, ‘সমাজবাদী সেকুলার মোর্চা’। যার নেতৃত্বে থাকবেন দাদা মুলায়ম সিং যাদব।

অনেকেরই মতে উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টি পর্যুদস্ত হওয়ার পর এমনটা হওয়া ছিল নেহাতই সময়ের অপেক্ষা। কয়েকদিন আগেই শিবপাল হুমকি দিয়েছিলেন, দলের নেতৃত্ব যদি অখিলেশ, মুলায়মের হাতে তুলে না দেন, তাহলে নতুন ধর্মনিরপেক্ষ জোট ঘোষণা করবেন তাঁরা। সম্প্রতি একটি সভায় ছেলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন মুলায়মও।

শিবপাল এদিন বলেছেন, “সব সমাজবাদীদের এক জোট করা এবং নেতাজিকে হারানো সম্মান ফিরিয়ে দেওয়াই এই জোটের লক্ষ্য”। তবে জোটে আর কারা কারা থাকবে, তা এদিন জানাননি শিবপাল। বলেছেন কয়েকদিন পর তা ঘোষণা করা হবে। “সামাজিক ন্যায়ের জন্য একটি ধর্মনিরপেক্ষ জোট তৈরি হবে, নেতাজি(মুলায়ম) হবেন তার সর্বভারতীয় সভাপতি”, বলেছেন শিবপাল।

তবে এই জোট সমাজবাদী পার্টির বিরুদ্ধে ভোটে লড়বে নাকি সব সমাজবাদীদের এক ছাতার তলায় নিয়ে আসাই এর লক্ষ্য, তা স্পষ্ট করেননি শিবপাল যাদব।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here