দিল্লি সীমানায় প্রহরা।

নয়াদিল্লি: আজ সোমবার দিল্লির যন্তর মন্তরে ‘মহাপঞ্চায়েতে’ বসেছেন কৃষকরা। এই সমাবেশে যোগ দেওয়ার জন্য তাঁরা রাজধানীতে ঢোকার চেষ্টা করছেন। কিষান সমাবেশের মোকাবিলা করার জন্য দিল্লি পুলিশ নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করেছে। এই খবর দিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএনআই।

বেরোজগারি সমস্যা সমাধানের দাবিতে যন্তর মন্তরে ‘মহাপঞ্চায়েতে’র আয়োজন করেছে সংযুক্ত কিষান মোর্চা। সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়েছে এই সমাবেশ, চলবে বিকেল ৪টে পর্যন্ত। উল্লেখ্য, গোটা চল্লিশেক কৃষক সংগঠনের মঞ্চ হল সংযুক্ত কিষান মোর্চা (Samyukt Kisan Morcha, SKM)।    

ইতিমধ্যে দিল্লি পুলিশ দিল্লি-হরিয়ানা সীমানায় সিমেন্টের ব্যারিকেড বসিয়েছে এবং আরও বেশি করে নিরাপত্তাকর্মী মোতায়েন করেছে।

ও-দিকে গত ১৮ আগস্ট থেকে উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে ৭৫ ঘণ্টার জন্য অবস্থান বিক্ষোভের আয়োজন করে মোর্চা। মোর্চার প্রধান দাবি হল, শস্যের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের যথাযথ রূপায়ণ।

কেন্দ্রীয় সরকার দাবি পূরণ না করায় গত ৩১ জুলাই মোর্চা অমৃতসরের ভল্লায় রেলপথ অবরোধ করেছিল। এ ছাড়া আম্বালার শম্ভু টোল প্লাজা, পাঁচকুলার বরওয়ালায় এবং কৈথল চিকায় প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছিল।

টিকায়েতকে আটকের নিন্দা

ইতিমধ্যে কিষান নেতা রাকেশ টিকায়েতকে আটক করেছে দিল্লি পুলিশ। গতকাল রবিবার তিনি যখন রাজধানীতে ঢোকার চেষ্টা করছিলেন, তখন তাঁকে আটক করা হয় বলে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে।

দিল্লি পুলিশের এক আধিকারিক জানান, যন্তর মন্তরের ধরনায় যোগ দেওয়ার জন্য টিকায়েত যখন গাজিপুরে উপস্থিত হন, তখন তাঁকে আটক করা হয়। তাঁকে মধু বিহার থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁকে ফিরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের (বিকেইউ, BKU, Bharatiya Kisan Union) জাতীয় মুখপাত্র এবং কিষান মোর্চার সব চেয়ে পরিচিত মুখ রাকেশ অভিযোগ করেন, দিল্লি পুলিশ কেন্দ্রের কথামতো চলছে।

হিন্দিতে টুইট করে টিকায়েত বলেছেন, “কেন্দ্রীয় সরকারের কথামতো কাজ করে দিল্লি পুলিশ কৃষকদের কণ্ঠ রোধ করতে পারবে না। এই গ্রেফতার নতুন বিপ্লব আনবে। শেষ নিঃশ্বাস পড়া পর্যন্ত এই সংগ্রাম চলবে। থামব না, ক্লান্ত হব না, মাথা নত করব না।”

টিকায়েতকে আটক করার তীব্র নিন্দা করেছেন আম আদমি পার্টির নেতা ও দিল্লির মন্ত্রী গোপাল রাই। তিনি টুইট করে বলেছেন, “বেরোজগারি আন্দোলনে যোগ দেওয়ার জন্য কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত যাচ্ছিলেন। পুলিশ তাঁকে দিল্লি সীমানায় থামিয়ে দিয়েছে। এটা অত্যন্ত জঘন্য কাজ।”

আরও পড়তে পারেন

সন্তানকে ১৭ বছর বয়স পর্যন্ত বেসরকারি স্কুলে পড়ানোর খরচ প্রায় ৩০ লক্ষ, বলছে সমীক্ষা

ভারত-চিন সম্পর্কে এই বিষয়টি আর গোপন নয়, জানালেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন