রাজ্য বিজেপিতে ব্রাত্যই থাকলেন সায়ন্তন, এ বার বাদ পড়লেন কর্মসমিতি থেকেও

0
sayantan basu
বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু। ফাইল ছবি

কলকাতা: রাজ্য বিজেপিতে ব্রাত্যই থাকলেন দলের আদি নেতা হিসেবে পরিচিত সায়ন্তন বসু। গেরুয়া শিবিরের রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়ার পর এ বার তাঁকে ছেটে ফেলা হল কর্মসমিতি থেকেও। সোমবার সন্ধ্যায় রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার জাতীয় কর্মসমিতির ১০৮ জন সদস্যের তালিকা ঘোষণা করেছেন। সেই তালিকায় নাম নেই সায়ন্তনের।

বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ রাজ্য সভাপতি থাকাকালীন দীর্ঘ সময় যাবৎ রাজ্যের সাধারণ সম্পাদকের পদে বহাল ছিলেন সায়ন্তন। সুকান্তের নতুন কমিটিতে সায়ন্তনের পাশাপাশি আরও দুই রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় সিংহ এবং রথীন্দ্র বসু বাদ পড়লেও তাঁদের অন্য দায়িত্বে বহাল করা হয়েছিল। কিন্তু কোনো দায়িত্বেই রাখা হয়নি সায়ন্তনকে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, যে দিন সায়ন্তনের নাম রাজ্য কমিটি থেকে বাদ যায় সে দিনই তাঁর বাড়িতে তৃণমূলের দুই বিধায়ক সায়ন্তনের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে বৈঠক করেন। তখন জল্পনা তৈরি হয় যে, তা হলে কি পদ্ম শিবির ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে ভিড়বেন সায়ন্তন? এর পরে বিজেপির একাংশ দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহী মনোভাব পোষণ করলে, সেই দলেও নাম ছিল সায়ন্তনের।

সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুরের নেতৃত্বে হওয়া কলকাতার বৈঠক এবং বনগাঁর পিকনিকেও সায়ন্তনকে দেখা গিয়েছিল। সদ্য পদ্মশিবির বিমুখ হয়ে শাসকদলে যোগ দেওয়া জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গেও একাধিক বার বৈঠক করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। যদিও দল ছাড়েননি সায়ন্তন। তবে এ বার কর্মসমিতি থেকে বাদ পড়ার পর তিনি কী করবেন, সেটাই এখন দেখার।

আরও পড়তে পারেন

তিন বছরের মধ্যে কার্বন নিঃসরণে রাশ টানতে না পারলে ভয়ংকর বিপর্যয়, রাষ্ট্রপুঞ্জের রিপোর্টে উদ্বেগ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন