Supreme-Court
সুপ্রিম কোর্ট। ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, গুয়াহাটি: সুপ্রিম কোর্ট বুধবার জানিয়ে দিয়েছে, অসমে নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত খসড়া তালিকায় যাঁদের নাম বাদ পড়েছে তাঁদের নাম অন্তর্ভুক্তির দাবি ও আপত্তির প্রক্রিয়া আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে। বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ও বিচারপতি আর এফ নরিম্যানের বেঞ্চ এ দিন জানিয়েছে, নির্দিষ্ট তারিখ থেকে এই প্রক্রিয়া আগামী ৬০ দিন পর্যন্ত চলবে। তবে দাবি ও আপত্তির এই প্রক্রিয়া মূলত দশটি নথির ভিত্তিতে করা হবে। তবে বাকি পাঁচটি নথির ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্তে যায়নি সুপ্রিম কোর্ট।

এ দিকে চূড়ান্ত খসড়া তালিকায় বাদ পড়াদের ক্ষেত্রে বাকি পাঁচটি নথির গ্রহণযোগ্যতা সম্পর্কে জানতে চেয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এ ব্যাপারে এনআরসির রাজ্য সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলাকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে তাঁর মতামত জানাতে বলেছে আদালত। এই ইস্যুতে পরবর্তী শুনানি আগামী ২৩ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। প্রসঙ্গত, এর আগের শুনানির সময় এনআরসি সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলা ভারতীয় নাগরিকের প্রমাণপত্র হিসেবে বিবেচিত ১৫টি নথির মধ্যে ১০টিকে বৈধ বলে সুপারিশ করেছিলেন।

সুপ্রিম কোর্টের এই নির্দেশের ফলে নাগরিকপঞ্জির চূড়ান্ত খসড়ায় যে ৪০ লক্ষ মানুষের নাম বাদ পড়েছিল, তাদের নাম তোলার প্রক্রিয়া এ বার শুরু হবে। প্রসঙ্গত এনআরসির প্রথম খসড়া গত ৩১ ডিসেম্বর মধ্যরাতে প্রকাশ হয়েছিল। মোট ৩ কোটি ২৯ লক্ষ মানুষের মধ্যে প্রথম তালিকায় প্রায় ১ কোটি ৯০ লক্ষ মানুষের নাম স্থান পায়। তবে এনআরসির চূড়ান্ত খসড়ায় ২ কোটি ৮৯ লক্ষ মানুষের নাম অন্তর্ভুক্ত হয়। ফলে বাদ পড়ে ৪০ লক্ষ ৭ হাজার মানুষ। এক পরিসংখ্যানে জানা গিয়েছে, নাগরিকপঞ্জির জন্য সারা আসামে ৬৮ লক্ষ ২৭ হাজার পরিবারের কাছ থেকে মোট ৬ কোটি ৫০ লক্ষ নথি জমা পড়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন