সারদাকাণ্ডে ২ মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাকে নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের

0

ওয়েবডেস্ক: সারদা আর্থিক কেলেঙ্কারি মামলায় নতুন মোড়। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের শুনানিতে সিবিআইয়ের অভিযোগের ভিত্তিতে দুই মোবাইল পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থার উদ্দেশে নোটিশ পাঠাল শীর্ষ আদালত।

এ দিন সারদা-মামলার শুনানিতে সিবিআইয়ের তরফে অভিযোগ করা হয়, একাধিক বার বলা সত্ত্বেও ভোডাফোন এবং এয়ারটেল সারদা-মামলার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কল ডেটার রেকর্ড দিতে অস্বীকার করেছে। ওই সংস্থাগুলির এই আচরণ তদন্তে বাধার সৃষ্টি করেছে। স্বাভাবিক ভাবেই ওই দুই সংস্থার বিরুদ্ধে তদন্তে অসহযোগিতার অভিযোগ তোলে সিবিআই।

Loading videos...

ওই সংস্থা কল রেকর্ড দিতে অস্বীকার করায় সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে এ দিন আগামী ৮ এপ্রিল পর্যন্ত সিবিআই-কে সময় দিয়েছে। একই সঙ্গে নোটিশ পাঠানো হয়েছে এয়ারটেল এবং ভোডাফোনকে।

গত বুধবারই সারদা আর্থিক কেলেঙ্কারি মামলায় একাধিক ব্যক্তির কল ডেটার রেকর্ড চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল সিবিআই। সেই আর্জি জানানোর পরই শুক্রবার কড়া পদক্ষেপ নিল সুপ্রিম কোর্ট।

উল্লেখ্য, গত ১ আগস্ট ২০১২ থেকে ১৬ মার্চ ২০১৩ পর্যন্ত একাধিক ব্যক্তির কল ডেটা রেকর্ড ভোডাফোন এবং এয়ারটেল টেলিকম সংস্থার কাছ থেকে চেয়ে আবেদন করেছিল সিবিআই। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, এই রেকর্ড পাওয়া গেলে শুধুমাত্র দোষীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে সুবিধা হবে তাই নয়, একই সঙ্গে প্রমাণ হয়ে যেতে পারে কলকাতার তৎকালীন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার তথ্য প্রমাণ লোপাট করার চেষ্টা করেছেন কিনা।

অন্য দিকে এয়ারটেল এবং ভোডাফোনের দাবি, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের হাতে তারা যাবতীয় কল ডেটা রেকর্ড তুলে দিয়েছে। ফলে নতুন করে তাদের আর কী দেওয়ার আছে?

এর আগের একটি শুনানিতেই সিবিআই সুপ্রিম কোর্টের কাছে ইতিমধ্যেই জানিয়েছে, যে কল রেকর্ড ডেটা তুলে দেওয়া হয়েছে, তা বিকৃত। সেখানে বহু তথ্য নষ্ট করে দেওয়ার লক্ষণ রয়েছে। সংস্থাগুলি যে তথ্যই রাজ্যের কাছে জমা করুক না কেন, তাদের হাতে আসা তথ্যের মধ্যে বিকৃত করার যাবতীয় চিহ্ন চোখে পড়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই নতুন করে যদি ওই দুই সংস্থা কল রেকর্ড ডেটা তুলে দেয়, তা হলে বিকৃত করার প্রমাণও হাতেনাতে পাওয়া যাবে।

[ আরও পড়ুন: নির্বাচন কমিশনের পর সোনা-কাণ্ড এ বার সুপ্রিম কোর্টে ]

এখন দেখার, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পাওয়ার পর এয়ারটেল এবং ভোডাফোন কী পদক্ষেপ নেয়। কারণ, তার উপরই নির্ভর করছে সিবিআইয়ের তথ্য বিকৃতিকরণের অভিযোগের সত্যতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.