accused rohit tomar
অভিযুক্ত রোহিত টোমার। ছবি সৌজন্যে দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

নয়াদিল্লি: একটা ভিডিও-য় দেখা যাচ্ছে এক যুবক এক মহিলাকে মারধর করছে। এই ভিডিও প্রকাশ হতেই ওই যুবককে ধর্ষণ ও অপরাধমূলক ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, ধৃত যুবক ২১ বছরের রোহিত টোমার দিল্লির এক পুলিশ অফিসারের পুত্র।

পুলিশ জানিয়েছে, রোহিতের বিরুদ্ধে অভিযোগ সে ওই মহিলাকে উত্তমনগরে তার বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে যায় এবং ধর্ষণ করে। দ্বারকার ডিসিপি আন্তো আলফোন্স বলেন, “মহিলা যখন পুলিশকে সব কিছু বলে দেওয়ার ভয় দেখান তখন তাঁকে মারধর করা হয়।”

আরও পড়ুন স্ত্রীকে পিঠে তুলে কর্দমাক্ত পথ পেরোলেন ভুটানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী, বাধ্যবাধকতা না ভালোবাসা?

ভিডিওটি অনলাইনে ভাইরাল হতেই তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের নজরে আসে। তিনি টুইট করে জানান, এই ঘটনা নিয়ে যাতে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয় তার জন্য তিনি দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পট্টনায়কের সঙ্গে কথা বলেছেন।

আলফোন্স বলেন, “ভিডিও ভাইরাল হতেই আমরা নিগৃহীতার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করি। উনি পুলিশের কাছে বিবৃতি দিয়েছেন। তার ভিত্তিতে উত্তমনগর থানায় এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।”

beating a woman
মহিলাকে মারধর। ছবি সৌজন্যে নিউজহেডস।

পুলিশ জানায়, রোহিত দিল্লি পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর অশোক কুমারের পুত্র। সে একটি কল সেন্টারে কাজ করত। আপাতত বেকার। তার বিরুদ্ধে ২২ বছরের আর এক মহিলা অভিযোগ করেছেন। অভিযোগে তিনি জানিয়েছেন, তাঁকে ওই মারধরের ভিডিও দেখিয়ে সে ভয় দেখাত। বলত তাকে বিয়ে না করলে ওই মহিলারও একই দশা হবে। ওই মহিলা জানান, তাঁদের দু’ জনের মধ্যে গত এক বছর ধরে একটা সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। কিন্তু ওই মহিলাই সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসেন। এর পর থেকেই সে ওই মহিলাকে ভয় দেখাতে শুরু করে, বাড়িতে ইট-পাথর ছুড়তে থাকে।

এই মহিলার অভিযোগ ৯ সেপ্টেম্বর তিলকনগর থানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইট-পাথর ছোড়ার ঘটনার পরে ওয়েস্ট ডিসট্রিক্টের পুলিশ ৯ সেপ্টেম্বর রোহিতকে গ্রেফতার করে। এ বার তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও অপরাধমূলক ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ যোগ করা হয়েছে। ভিডিওয় দেখুন সেই নির্মম দৃশ্য-

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন