minor wife

নয়াদিল্লি: কোনো স্বামী যদি তাঁর অপ্রাপ্তবয়স্ক স্ত্রীয়ের সঙ্গে যৌনসংগম করে তা হলে সেটা ধর্ষণ হিসেবেই গণ্য হবে। বুধবার এই ঐতিহাসিক রায় দিল শীর্ষ আদালত।

ধর্ষণ এবং বাল্য বিবাহের প্রসঙ্গে ভারতীয় আইনে কিছু জটিলতা ছিল। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারা অনুযায়ী আঠারো বছরের নীচে কোনো নাবালিকার সঙ্গে যৌনসংগম স্থাপন করাকে ধর্ষণ আখ্যা দেওয়া হলেও সেখানে একটি ব্যতিক্রম ছিল। সেই ব্যতিক্রম অনুযায়ী পনেরো থেকে আঠারো বছর বয়সি স্ত্রীয়ের সঙ্গে তার স্বামীর যৌনসংগমকে ধর্ষণ হিসেবে গণ্য করা হত না। সেই ব্যতিক্রমকেই এ দিন খারিজ করে দিয়েছে বিচারপতি এমবি লোকুর এবং দীপক গুপ্তার ডিভিশন বেঞ্চ।

এই যৌনসংগমে নাবালিকা স্ত্রীয়ের সম্মতি থাকা বা না থাকা ধর্তব্যের মধ্যে আনা হবে না। তবে নাবালিকাকে ধর্ষণের এক বছরের মধ্যে অভিযোগ দায়ের করতে হবে। বিবাহিত নাবালিকাদের নিগ্রহ রুখতে শীর্ষ আদালতের এই ঐতিহাসিক রায়, এমনই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

দণ্ডবিধির ওই ব্যতিক্রমকে খারিজ করে দেওয়ার দাবিতে ‘ইন্ডিপেন্ডেন্ট থট’ নামক অ-সরকারি একটি সংগঠনের দায়ের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই এই রায়ে সুপ্রিম কোর্টের। শুনানি চলাকালীন দেশে জারি থাকা বাল্যবিবাহের ধারায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল শীর্ষ আদালত। সেই সঙ্গে নাবালিকাদের অভিভাবকদেরও তীব্র ভর্ৎসনা করেছিল তারা।

উল্লেখ্য, এই মামলায় শুনানি চলাকালীন গত ১০ আগস্ট, আইনের ওই ব্যতিক্রমের পক্ষেই সওয়াল করেছিল কেন্দ্র। 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here