‘কোনো মুসলমানকে ভারত ছাড়তে হলে, শাহনওয়াজ হোসেনই হবেন প্রথম ব্যক্তি’

0
Shahnawaz Hussain

ওয়েবডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) অথবা প্রস্তাবিত জাতীয় নাগরিকপঞ্জী (এনআরসি) নিয়ে কোনো ভারতীয় নাগরিকের ভয় পাওয়ার মতো কোনো কারণ রয়েছে বলে মনে করেন না বিজেপির মুখপাত্র শাহনওয়াজ হোসেন। একই সঙ্গে তিনি জানিয়ে দেন, “কোনো একজন ভারতীয় মুসলমানকে যদি ভারত থেকে নির্বাসনে যেতে হয়, তবে প্রথম নামটা হবে শাহনওয়াজ হোসেন”।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার কাছে একটি সুদীর্ঘ সাক্ষাৎকারে শাহনওয়াজ বলেন, প্রতিবাদকারীদের উদ্দেশে তাঁর প্রতি আস্থা রাখার আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো ভারতীয় মুসলমানকেও দেশ থেকে বহিষ্কার করা হবে না।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “ভারতের থেকে ভালো আর কোনও দেশ হতে পারে না, হিন্দুদের থেকে ভালো বন্ধু এবং ভারতীয় মুসলমানদের পক্ষে মোদীর থেকে ভালো নেতা হতে পারেন না”।

সিএএ এবং এনআরসির প্রতিবাদে মাসাধিক কাল ধরে বিক্ষোভ অবস্থান চলছে দিল্লির শাহিনবাগে। পুলিশ প্রশাসন থেকে ওই অবস্থান হঠাতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে কেউ কেউ। তবুও অনড় বিক্ষোভকারীরা। এ প্রসঙ্গে শাহনওয়াজ বলেন, “আমি আবেদন জানাচ্ছি, রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির জন্য কিছু রাজনৈতিক নেতার প্ররোচনায় পা দেবেন না। আমার উপর বিশ্বাস রাখুন”।

তাঁর কথায়, আমি আপনাদের বলছি, “যদি কোনো ভারতীয় মুসলমানকে দেশ থেকে নির্বাসিত হতে হয়, তা হলে শাহনওয়াজ হোসনেই হবেন প্রথম ব্যক্তি”।

আরও পড়ুন: ৫০০ স্কোয়ার ফুটের ঘর মেলেনি, রাহুলের নামে ‘অভিযোগ’ জানিয়ে সোনিয়াকে চিঠি কংগ্রেস নেতার

বিজেপির সর্বধর্ম সমন্বয় দৃষ্টিভঙ্গী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমাদের দলের ডিএনএ-তে মুসলমান বিরোধিতা নেই। আমরা বরাবর সর্বধর্ম সমন্বয়ে বিশ্বাস করি। আমি একজন মুসলমান। আমি একজন বিজেপি সদস্যও। বিজেপি যদি মুসলমান বিরোধী হতো তাহলে আমি বিজেপি করতাম না”।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.