Shanbhulal-Regar

ওয়েবডেস্ক: উত্তর প্রদেশ নবনির্মাণ সেনা বা ইউপিএনএস-এর হয়ে আগ্রা থেকে ভোটে লড়তে পারেন শম্ভুলাল রেগর। রাজস্থানের এই কট্টর হিন্দুত্ববাদী ব্যক্তি খুনের দায়ে জেল খাটছেন।

পশ্চিমবঙ্গের মালদহ থেকে রাজস্থানে নির্মাণ শ্রমিক হিসাবে কাজ করতে যাওয়া মহম্মদ আফরাজুলকে নৃশংসভাবে খুন করে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে গ্রেফতার হয়েছিল শম্ভুলাল। এ বছরের রামনবমীতে রাম-সীতার পাশাপাশি ঠাঁই পেয়েছিল ৩৩ বছর বয়সি এই জেলবন্দির ট্যাবলো। ওই শোভাযাত্রার উদ্যোক্তা ছিলেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের সদস্যরা। ফলে রাম-সীতার পাশে যখন ঠাঁই মিলেছে, তখন তাঁর ভাগ্যে নিশ্চয় অপেক্ষা করছে আরও বড়ো কোনো সুযোগ। জানা গিয়েছে সেনার তরফে আগ্রা কেন্দ্র থেকে ভোটে লড়ার আবেদন পাঠানো হয়েছে শম্ভুলালের কাছে।

গত সোমবার শম্ভুলালের কাছে যায় ভোটে লড়ার প্রস্তাব। জানা গিয়েছে, সেই প্রস্তাব পাওয়ার পর তিনি তা গ্রহণও করেছেন। ফলে সব কিছু ঠিকঠাক চললে আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে আগ্রা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শম্ভুলাল। দলের তরফে জানানো হয়েছে, তারা হিন্দুত্ব নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। ফলে এ মুহূর্তে তাদের দলের কাছে শম্ভুলালের থেকে যোগ্য প্রার্থী আর কে হতে পারেন?


পড়তে পারেন: মিত্রোঁ, গুফাও মে আও…

শম্ভুলাল যখন একের পর এক কোপে আফরাজুলের দেহ ক্ষতবিক্ষত করছেন, তখন সেই দৃশ্য মোবাইল বন্দি করেছিল তাঁরই ভাইপো। পরে সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে। অনেক তর্ক-বিতর্কের পর পুলিশ গ্রেফতার করে শম্ভুলালকে। এরই মাঝে কোনো রাজনৈতিক দল নিজেদের প্রার্থী হিসাবে তুলে ধরল এমন এক নৃশংস খুনে অভিযুক্ত জেলবন্দিকে।শম্ভুলাল বর্তমানে রাজস্থানের যোধপুর জেলে বন্দি রয়েছেন, সেখান থেকেই তিনি ভোটে লড়বেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন