নয়াদিল্লি: শরদ পওয়ারের হস্তক্ষেপে ফের উজ্জ্বল হয়ে উঠল আপ এবং কংগ্রেসের মধ্যে জোটের সম্ভাবনা।

আপের সঙ্গে জোট হবে কি না, সেই নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই দিল্লি কংগ্রেস দ্বিধাবিভক্ত। দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিলা দীক্ষিত কিছুতেই আপের সঙ্গে জোট করতে ইচ্ছুক নন। তাঁর অনিচ্ছার কথা তিনি হাই কমান্ডকেও জানিয়ে দিয়েছেন। একই বক্তব্য দিল্লির তিন শাখা সভাপতির। যদিও আপের সঙ্গে জোট চান দিল্লির পাঁচ প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি এবং ১৫ ব্লক সভাপতি। কিন্তু যেহেতু প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর মতো এক ব্যক্তিত্ব বেঁকে বসে রয়েছেন সে কারণেই আপের সঙ্গে জোটের হাত বাড়াতে পারছে না কংগ্রেস।

আরও পড়ুন:“দিদিমার অসুস্থতা সত্ত্বেও ইতালি যেতে পারিনি!” বিজেপির কটাক্ষের জবাবে প্রিয়ঙ্কা

যদিও অরবিন্দ্র সিংহ লাভলি এবং অজয় মাকেনের মতো কংগ্রেস নেতা, যাঁরা আগে আপের সঙ্গে জোটের বিরোধিতা করে ছিলেন, তাঁরা নিজেদের সুর নরম করেছেন বলে খবর। অন্যদিকে দিল্লির সাতটা আসনের মধ্যে ছ’টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে আপ। তারা যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট চায়, সেটা তাদের বক্তব্যেই পরিষ্কার। আপ নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ সঞ্জয় সিংহের কথায়, “এখন দলের কথা না ভেবে দেশকে বাঁচানোর কথা ভাবতে হবে।”

এই আবহেই দুই দলের মধ্যে দূরত্ব কমানোর জন্য আসরে নেমেছেন এনসিপি সুপ্রিমো শরদ পওয়ার। রাহুল গান্ধী এবং সঞ্জয় সিংহ, দু’জনের সঙ্গেই আলাদা ভাবে বৈঠক করেছেন তিনি। পওয়ার বরফ গলাতে পারেন কি না, সেটাই এখন দেখার।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here