কথামতো অনশন ভাঙলেন ইরম শর্মিলা চানু।

সেনাবাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা আইন তথা আফস্পা প্রত্যাহার করানোর লক্ষ্যে এক টানা ১৬টা বছর অনশন করে কাটিয়েছেন শর্মিলা চানু। অবশেষে মঙ্গলবার মধু খেয়ে আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এলেন তিনি। জানিয়ে দিলেন, অনশন ভাঙলেও এর পর তাঁর লক্ষ্য মুখ্যমন্ত্রিত্ব। কারণ, ক্ষমতা ছাড়া আফস্পা প্রত্যাহার করানো সম্ভব নয়।

২০০০ সালের ১ নভেম্বর দু’বাক্স মিষ্টি একলাই খেয়ে শেষ করেছিলেন তিনি। ওই শেষ বার। এর পর ১৬ বছর মুখে খাবার তোলেননি এই একরোখা মানবাধিকার কর্মী। মঙ্গলবার তাঁকে ইম্ফল হাসপাতাল থেকে স্থানীয় আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। আদালতে তিনি অনশন শেষ করার কথা জানান। এর পর আদালত চানুকে ১০ হাজার টাকার একটি বন্ড সই করিয়ে আইনত মুক্তি দেয়।

অনশন তুলে নিলেও যে আফস্পার বিরুদ্ধে আন্দোলন থামবে না তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন শর্মিলা। এমনকি  এ বার এই লড়াইয়ে যে তিনি বিধানসভা নির্বাচনকে অস্ত্র করতে চলেছেন সে কথাও জানান শর্মিলা। এ বার তাঁর লক্ষ্য মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রিত্ব। কারণ তিনি এখন আর বিশ্বাস করেন না, অনশন করে  আফস্পা প্রত্যাহার করানো যাবে। তার জন্য দরকার ক্ষমতা। তাই  এ বার এই মানবাধিকার কর্মীর আন্দোলনের পথে পাখির চোখ হবে ২০১৭ সালের মণিপুরের বিধানসভা নির্বাচন।

লড়াইয়ের পাশাপাশি তিনি ব্যক্তিগত জীবনকেও যে নতুন মোড়ে ঘোরাতে চলেছেন তারও ইঙ্গিত দিলেন লৌহমানবী। জানালেন, এ বার তিনি ডেসমন্ড কুটিনহোর সঙ্গে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সংসারধর্মও পালন করতে চান।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here