kathua rape case

ওয়েবডেস্ক: হিন্দু-মুসলমান থেকে এ বার পুরুষ-নারীতে মোড় নিল কাথুয়া ধর্ষণ মামলা। একজন মহিলার নাকি বেশি বুদ্ধি থাকে না বলে দাবি করলেন অভিযুক্তদের আইনজীবী। তাঁর সাফ প্রশ্ন, “উনি একজন মহিলা। তাঁর আর কতই বা বুদ্ধি থাকবে!”

যিনি এই মন্তব্যটি করেছেন তিনি অঙ্কুর শর্মা। কাথুয়া মামলায় অভিযুক্ত আট জনের মধ্যে পাঁচ জনের মামলা লড়ছেন তিনি। যাঁকে নিয়ে তিনি এই প্রশ্নটি করেছেন তিনি শ্বেতাম্বরী শর্মা, কাথুয়া মামলা তদন্তে গঠিত পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দলের (সিট) প্রধান এবং একমাত্র মহিলা সদস্য।

অঙ্কুরের দাবি, “শ্বেতাম্বরী একজন মহিলা এবং তাঁকে নিশ্চয় ভুল পথে চালিত করা হচ্ছে।” কাথুয়ার আসিফা বানোকে ধর্ষণের তদন্তের দায়িত্বভার পড়েছিল শ্বেতাম্বরী শর্মার ওপরে। তদন্ত করার সময়ে তাঁকে অনেক বাধাবিপত্তির মুখেও পড়তে হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

অভিযুক্তদের অত্যাচার করে জোর করে অপরাধের কথা স্বীকার করিয়েছে পুলিশ, এমনও দাবি করেছেন অঙ্কুর।

উল্লেখ্য, গত ১০ জানুয়ারি জম্মুর কাথুয়াতে ধর্ষণ করে খুন করা হয় আট বছরের নাবালিকা আসিফাকে। গোটা ঘটনাটি সাম্প্রদায়িক মোড়ক নিয়ে নেয়, যখন অভিযুক্তদের হয়ে জাতীয় পতাকা নিয়ে মিছিল করে জম্মুর একটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। তার পর অবশ্য শ্বেতাম্বরীর নেতৃত্বে সিটের তদন্তের পরে গোটা ঘটনার সত্যতা জানা যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here