ঔরঙ্গাবাদ : আবার খবরে উঠে এলেন শিবসেনা সাংসদ রবীন্দ্র গায়কোয়াড়। এ বার এটিএম থেকে টাকা তুলতে না পেরে স্টেট ব্যাঙ্কের চিফ ম্যানেজার ও পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে খারাপ আচরণ করলেন এই শিবসেনা সাংসদ। পুলিশ সূত্রের খবর, এঁদের সঙ্গে অশ্লীল ভাষাতেও কথা বলেন তিনি। এই সময় তাঁর সমর্থকরা স্লোগান দিয়ে চিৎকার করতে থাকেন। এ দিন লাতুরে নির্বাচনী প্রচারে এসে এমন ঘটনা ঘটান সাংসদ।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২৩ মার্চ বিমানের বিজনেস ক্লাসের টিকিট কেটে ইকোনমি ক্লাসে বসতে পেয়ে ৫৭ বছরের বিমানকর্মীকে নিজের চটি দিয়ে ২৫ ঘা মেরেছিলেন রবীন্দ্র গায়কোয়ড়। তার পরই তাঁর বিমানসফর বাতিল করে দেওয়া হয়েছিল। এর পর অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে অবশেষে বিমানযাত্রার ছাড়পত্র মিললেও শিক্ষা হয়নি এই সাংসদের। ১৯ এপ্রিল পুর নির্বাচন লাতুরে। সেই নির্বাচনী প্রচারে এসে উত্তেজনা সৃষ্টি করলেন তিনি।

 

এসবিআই-এর চিফ ম্যানেজার জানান, এটিএম-এ কেন টাকা নেই? এমন নানা প্রশ্ন করেন সাংসদ। তাঁকে উত্তর দেওয়া হলেও তাতে তিনি সন্তুষ্ট হননি। উপরন্তু খুবই বাজে ব্যবহার করেন।

লাতুরের গান্ধী চক থানার পুলিশ ইন্সপেক্টর গজানন ভাটলাভান্ডে জানান, বাসস্ট্যান্ডের কাছের একটি এটিএম থেকে টাকা তুলতে না পেরে স্টেট ব্যাঙ্কের ম্যানেজারকে ডেকে পাঠান সাংসদ। তাঁর কাছে বারংবার টাকা না থাকার কারণ জানতে চান। তিনি বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করলেও সাংসদ তা শুনতে প্রস্তুত ছিলেন না। পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠে। খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে সাংসদকে শান্ত করার চেষ্টা করলে উলটে তিনি আরও বেশি করে চোটপাট করেন। অকথ্য ভাষায় কথা বলতে শুরু করেন পুলিশের সঙ্গেও। সেই সময় তাঁর সমর্থকরা পথ আটকে বেআইনি ভাবে সমাবেশ করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করার চেষ্টা করে। অবৈধ সমাবেশ ও মুম্বই পুলিশ আইনের বিভিন্ন ধারায় সাংসদ রবীন্দ্র গায়কোয়ারেড় বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এই বিষয় রবীন্দ্র গায়কোয়াড়ের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি। এসএমএসের উত্তর দেননি। তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী ডিভি জোশি জানান, সাংসদ দিল্লি গেছেন। তা ছাড়া, মানুষ কোনো জরুরি পরিস্থিতিতে টাকা তুলতে এসে না পেলে কী করবেন এ কথাই জানতে চেয়েছিলেন সাংসদ। রবীন্দ্র গায়কোয়াড় নন, বরং পুলিশই তাঁর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে বলে জানান জোশি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here