সাপের ভিডিও

ওয়েবডেস্ক: গরমের জন্য বাড়ির বারান্দায় মশারি টাঙিয়ে শুয়েছিলেন। আচমকা ঘুম ভেঙে যেতেই পায়ের কাছে কিছু একটা ঠান্ডা বস্তুর অনুভব। ৬০ বছর বয়সি উঝি দেই নামের ওই মহিলা তৎক্ষণাৎ প্রথমবার ঠাহর করতে না পেরে আরও একবার পা ঠেকালেন। তারপর অতি সন্তর্পণে মশারি থেকে বেরিয়ে এলেন। আলো জ্বালার পর যা দেখলেন, সেটাই মনের মধ্যে উঁকি মারছিল।

ওড়িশার ওই মহিলার উপস্থিত বুদ্ধি ও সুপ্ত সাহসই তাঁকে এ  যাত্রায় বাঁচিয়ে দিল। তবে তিনি মনে করেন, ওই বিষাক্ত সাপের সঙ্গে একই মশারির মধ্যে থেকেও বেঁচে রয়েছেন, তার জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দেওয়া ছাড়া আর কী-ই বা আছে। এরপরই তিনি বাড়ির অন্যান্য সদস্যদের জাগিয়ে তোলেন। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় বন্যপ্রাণ বিভাগে। সেখান থেকে কর্মীরা এসে ওই তিন ফুট লম্বা রাসেল ভাইপারটিকে উদ্ধার করে।

সর্প বিশেষজ্ঞদের মতে, ওই মহিলা ভাগ্যবান যে তিনি সঠিক সময়ে ব্যাপারটা অনুধাবন করতে পেরেছেন। নচেত, সাপ দংশন করলে তাঁর জীবন সংশয়ে পড়তে হতে পারত। যথাযথ চিকিৎসা না হলে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই মৃত্যু অবধারিত। চিকিৎসা হলেও পরবর্তীকালে শারীরিক সমস্যা পিছু ছাড়ত না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here