শ্রীনগর: ভূস্বর্গ জম্মু-কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগরের মুকুটে নতুন পালক। ইউনেস্কোর (UNESCO) সৃজনশীল শহরের তকমা পেল এই শহর। ইউনেস্কোর তরফে জানানো হয়েছে, এই শহরের ঐতিহ্যশালী হস্তশিল্প, লোকায়ত সংস্কৃতিকেই স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

মোট ৯০টি দেশের ২৪৬টি শহরের মধ্যে থেকে ৪৬টি শহরকে সৃজনশীল শহরের তালিকাভুক্ত করেছে ইউনেস্কো। এই সব শহরের সৃজনশীল অবদান, যেমন সাহিত্য, সিনেমা, চিত্রশিল্প, কারুশিল্প, লোকশিল্প ইত্যাদিকে বিবেচনা করা হয়েছে। এর মধ্যেই ভারতের একমাত্র শহর হিসেবে সৃজনশীল শহরের খেতাব পেয়েছে শ্রীনগর।

ইউনেস্কোর মহাসচিব আউড্রি আজুলি বলেছেন, “শ্রীনগর এই খেতাব পেয়েছে সাংস্কৃতিক ও সৃজনশীল ক্ষেত্রে তার ধারাবাহিক অবদানের জন্য।”

শ্রীনগরের নয়া খেতাবের কথা টুইট করে প্রথম জানান শহরের মেয়র জুনেইদ আজিম মাত্তু। তিনি টুইট করেন, “শ্রীনগরের জন্য বিরাট খবর। ইউনেস্কোর সৃজনশীল শহরের খেতাব পেয়েছে শ্রীনগর। ভারতের একমাত্র শহর হিসেবে এই খেতাব জিতে নিয়েছে আমাদের শহর।”

শ্রীনগর সৃজনশীল শহরের খেতাব পাওয়ার পর জম্মু-কাশ্মীরবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। টুইটে তিনি লেখেন, “আমি খুবই আনন্দিত জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দাদের জন্য। শ্রীনগরকে ইউনেস্কোর সৃজনশীল শহরের তালিকায় স্থান পেতে দেখে গর্ববোধ হচ্ছে। এই শহরের ঐতিহ্যবাহী শিল্প ও সংস্কৃতির জন্যই এটা সম্ভব হয়েছে। অভিনন্দন জানাই জম্মু ও কাশ্মীরের সমস্ত মানুষকে।”

উল্লেখ্য, ভারতের তরফে ইউনেস্কোর সেরা সৃজনশীল শহরের খেতাবের জন্য দুটি শহর, যথাক্রমে শ্রীনগর ও গোয়ালিয়রের নাম পাঠানো হয়েছিল। শেষ পর্যন্ত খেতাব জিতে নেয় ভূস্বর্গের রাজধানী।

আরও পড়তে পারেন

পশ্চিমবঙ্গে মন্ত্রীসভায় রদবদল, সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের পঞ্চায়েত দফতর পেলেন পুলক রায়

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন