Connect with us

দেশ

নতুন ট্র্যাফিক আইন নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর তোপের মুখে খোদ বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলি

Published

on

nitin gadkari

ওয়েবডেস্ক: নতুন ট্র্যাফিক আইন নিয়ে চাপে পড়েছে বিজেপি। এক দিকে যখন বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলিতেই জরিমানার অঙ্ক কমিয়ে ফেলা হচ্ছে, তখন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়করির হুঁশিয়ারি, ট্র্যাফিক আইন ভাঙার ক্ষেত্রে জরিমানা লঘু করার চেষ্টা হলে তার জন্য দায়ী থাকবে রাজ্যগুলিই।

এনডিটিভিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গড়করি বলেন, “যে সমস্ত রাজ্য জরিমানা বৃদ্ধিতে রাজি হয়নি, তাদের কাছে জানতে চাই, অর্থের থেকে জীবন কি মূল্যবান নয়? জীবন বাঁচাতেই এটা করা হয়েছে”।

নীতিন গড়করি বলেন, “আমি জীবন রক্ষা করার সঙ্কল্প করেছি। মানুষের জীবন বাঁচাতেই এটা করা হয়েছে। আমি রাজ্য সরকারগুলিরও সহযোগিতা চাই। এই ব্যাপারটা কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের ঊর্ধ্বে হওয়া উচিত।” সেই সঙ্গে গড়করি যোগ করেন, “আইনের ভীতি থাকা উচিত মানুষের মধ্যে। নির্ভয়া-কাণ্ডের পর কেন মৃত্যুদণ্ডের ব্যাপারটি এসেছে? আইনের ভীতি তৈরি করার জন্যই তো।”

Loading videos...

উল্লেখ্য, সপ্তাহখানেক আগেই নতুন ট্র্যাফিক আইন চালু হয়েছে। সেই সঙ্গে ট্র্যাফিক আইন ভাঙার ক্ষেত্রে জরিমানার অঙ্ক আকাশছোঁয়া হয়েছে। কাউকে কাউকে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হয়েছে। এর ফলে বিভিন্ন মহলে সমালোচিতও হচ্ছে কেন্দ্রের এই নতুন নীতি। কিন্তু এই আইনের বিরুদ্ধে প্রথম পদক্ষেপ করছে বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলিই।

মঙ্গলবার এই মর্মে প্রথম পদক্ষেপ করেছিল গুজরাত। নতুন কেন্দ্রীয় আইনে যে সব জরিমানার অঙ্ক ধার্য রয়েছে, সেগুলি গুজরাতে সংশোধন করা হয়েছে। জরিমানার অঙ্ক অনেকটা কমিয়ে দিয়েছে তারা। অন্য দিকে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদিউরাপ্পাও জানিয়েছেন, গুজরাতের সিদ্ধান্তের কপি হাতে পাওয়ার পর এই ব্যাপারে তিনিও পদক্ষেপ করতে পারেন।

আরও পড়ুন বিধানসভায় হাজির হয়ে চমকে দিলেন দেবশ্রী রায়!

অন্য দিকে মহারাষ্ট্রের বিজেপি-শিবসেবা সরকারও নতুন এই ট্র্যাফিক আইনকে নিন্দা করেছে। সংশোধিত এই আইন মহারাষ্ট্রে আপাতত লাগু হচ্ছে না বলে জানিয়েছে তারা। গোয়াও বলেছে, এই ব্যাপারে খুব শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নেবে তারা।

ফলে সংশোধিত ট্র্যাফিক আইনের ব্যাপারে সব থেকে আগে বিজেপিশাসিত রাজ্যগুলিতেই মুখ পুড়েছে কেন্দ্রের। এর ফলে কেন্দ্র যে কিছুটা ব্যাকফুটে তা তো বলাই বাহুল্য। সেই পরিস্থিতি এড়াতেই সম্ভবত ছক্কা হাঁকানোর চেষ্টা করলেন গড়করি।

দেশ

ন’মাস পরে দিল্লিতে দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা একশোর নীচে!

দিল্লিতে দৈনিক করোনা সংক্রমণের হার কমে ০.৩২ শতাংশ।

Published

on

নমুনা পরীক্ষাকেন্দ্র। ছবি: দিল্লি স্বাস্থ্য দফতরের টুইটার থেকে

নয়াদিল্লি: শেষ ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে নতুন করে কোভিড-১৯ (Covid-19) আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬। সরকারি পরিসংখ্যান বলছে, এ দিন দৈনিক সংক্রমণের হার ঠেকেছে ০.৩২ শতাংশে।

বুধবার দিল্লির স্বাস্থ্য দফতর দাবি করেছে, গত বছরের ৩০ এপ্রিলের পরে এই প্রথম জাতীয় রাজধানীতে এক দিনে একশোরও কম সংখ্যক কোভিড আক্রান্ত শনান্ত হয়েছেন।

এক নজরে দিল্লির করোনা-পরিস্থিতি

এখনও পর্যন্ত দিল্লিতে মোট করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রামিতের সংখ্যা ৬ লক্ষ ৩৪ হাজার ৩২৫। যার মধ্যে প্রায় ৬ লক্ষ ২০ হাজার আক্রান্ত সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার রয়েছে ৯৮.৫ শতাংশে।

Loading videos...

শেষ ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৯ হাজার ৮৫৫টি। এখনও পর্যন্ত প্রতি ১০ লক্ষে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৫ লক্ষ ৫২ হাজার ৩৭০টি।

দিল্লির স্বাস্থ্য দফতরের সর্বশেষ বুলেটিনে জানানো হয়েছে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ন’জনের। এখনও পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ৮২৯।

সংক্রমণের হার

এক দিনে সর্বোচ্চ সাড়ে আট হাজার আক্রান্ত শনাক্ত হতেও দেখেছিল দিল্লি। সে সময় সংক্রমণের হার পৌঁছে গিয়েছিল প্রায় ১৫ শতাংশে। এখন সেই হার নেমে এসেছে ০.৩২ শতাংশে।

তবে সতর্কতামূলক পদক্ষেপের জন্য এখনও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক বলে জানিয়ে দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন আগেই জানিয়েছেন, এ ধরনের পরিসংখ্যান থেকেই “আমরা ধরে নিতে পারি যে দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় কোভিড-১৯-এর ‘তৃতীয় ঢেউ’ শেষ হয়ে গিয়েছে”।

দেশের করোনা-চিত্র

টেস্টের পরিমাণ বাড়ায় দেশে সংক্রমণ আগের দিনের থেকে বেড়েছে এ দিন। যদিও আগের সপ্তাহের মঙ্গলবারের থেকে তা বেশ কিছুটা কমই রেকর্ড করা হয়েছে। মৃত্যুহারে হ্রাস এবং সুস্থতার হারে বৃদ্ধি তো হয়েই চলেছে। কিন্তু এরই মধ্যে চিন্তা যাচ্ছেই না কেরলকে নিয়ে। এ দিনও গোটা দেশের নতুন সংক্রমণের ৫০ শতাংশই কেরলে।

আরও পড়তে পারেন: গোটা দেশে নতুন সংক্রমণের অর্ধেক কেরলেই

Continue Reading

দেশ

২৬ জানুয়ারির হিংসাত্মক ঘটনার জেরে কৃষক বিক্ষোভ থেকে সরে দাঁড়াল দু’টি সংগঠন

গতকালের ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় এটাই হয়তো হওয়ার কথা ছিল? তবে অনেক কিছুই নেপথ্যে রয়ে গেল!

Published

on

লালকেল্লায় নিজেদের পতাকা ওড়াচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা। ছবি: এএনআই থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: নতুন তিন কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে সাধারণতন্ত্র দিবসের দিন ট্র্যাক্টর মিছিলের আয়োজন করেন আন্দোলনরত কৃষকরা। কিন্তু ওই মিছিলকে কেন্দ্র করে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে রাজধানী দিল্লি। ওই হিংসাত্মক ঘটনার জেরেই কৃষক বিক্ষোভ থেকে সরে দাঁড়াল দু’টি সংগঠন।

বুধবার রাষ্ট্রীয় কিসান মজদুর সংগঠন এবং ভারতীয় কিসান ইউনিয়ন (ভানু) ঘোষণা করে, তারা দিল্লিতে চলমান কৃষক বিক্ষোভ থেকে নিজেদের সমর্থন প্রত্যাহার করছে। ট্র্যাক্টর মিছিলকে কেন্দ্র করে যে ধরনের হিংসা ছড়িয়ে পড়ে, সে কথা বিবেচনা করেই তারা বিক্ষোভ থেকে নিজেদের সরিয়ে নিচ্ছে।

কী বলছেন সংগঠন দু’টির শীর্ষ নেতৃত্ব?

সমর্থন প্রত্যাহারের ঘোষণা করে রাষ্ট্রীয় কিসান মজদুর সংগঠনের নেতা ভিএম সিং বলেছেন, তাঁর সংগঠন কৃষকদের বিক্ষোভ থেকে তাৎক্ষণিক ভাবে সরে আসছে। কারণ প্রতিবাদের এই পদ্ধতি তাঁদের কাছে “গ্রহণযোগ্য নয়”।

Loading videos...

গাজিপুর সীমানায় সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর কাছে তিনি বলেন, “আমরা এই বিক্ষোভ থেকে সরে আসছি তবে কৃষকের অধিকার রক্ষার লড়াই চালিয়ে যাব”। তাঁর কথায়, “আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। যদিও এ ভাবে নয়। কারণ এই পদ্ধতি গ্রহণযোগ্য নয়”।

অন্যদিকে ভারতীয় কিসান ইউনিয়ন (ভানু)-এর সভাপতি ঠাকুর ভানু প্রতাপ সিংহ বলেছেন, তিনিও এই প্রতিবাদ থেকে সরে আসছেন এবং দিল্লিতে হিংসার ঘটনায় তিনি মর্মাহত। সংবাদ সংস্থা এএনআই তাঁর মন্তব্য উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, “গতকাল দিল্লিতে যা ঘটেছিল তাতে আমি গভীরভাবে মর্মাহত এবং আমাদের ৫৮ দিনের বিক্ষোভ শেষ করছি”।

কী ঘটেছিল ২৬ জানুয়ারি?

কৃষকদের ট্র্যাক্টর মিছিলকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজধানী দিল্লি। একাধিক জায়গায় কৃষক-পুলিশ সংঘর্ষ এবং হিংসাত্মক ঘটনাকে কেন্দ্র করে আইন-শৃঙ্খলাজনিত উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে বিকেলে বৈঠকে বসেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ওই বৈঠকের পর পরিস্থিতি মোকাবিলায় অতিরিক্ত আধা সেনা নামানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ওই দিন প্রায় ২০টি ট্র্যাক্টর নিয়ে ঐতিহাসিক লালকেল্লায় ঢুকে পড়েন বিক্ষোভকারীরা। সেখান স্লোগান দিতে দিতেই তাঁরা নিজেদের পতাকা ওড়ান। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় পুলিশ সেখান থেকে তাঁদের সরিয়ে দেয়। আন্দোলনকারীদের বুঝিয়ে-সুঝিয়েও লালকেল্লা মুক্ত করে পুলিশ।

পরিস্থিতি এতটাই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে, তা সম্ভবত কল্পনা করতে পারেননি অনেকেই। রাজস্থান এবং পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীদের মতোই কৃষক সংগঠনের নেতারাও আন্দোলনকারীদের সংযত থেকে শান্তিপূর্ণ ভাবে মিছিলে অংশ নেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন। তবুও ওই দিনের ঘটনায় এক কৃষকের মৃত্যু এবং কয়েকশো আন্দোলনকারী ও পুলিশকর্মী আহত হন।

আরও পড়তে পারেন: বিধানসভার অধিবেশন শুরুর দিনেই ভিভিআইপি গেট আটকে বিক্ষোভ শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের

Continue Reading

দেশ

হাইকোর্টের ‘ত্বকের সঙ্গে সংস্পর্শ না হলে শিশুর যৌন নিগ্রহ নয়’ রায়ে স্থগিতাদেশ সুপ্রিম কোর্টের

শিশুর পোশাকের উপর দিয়ে উপর দিয়ে অন্যায় স্পর্শ করা যৌন নিগ্রহ নয়, বলেছিল বম্বে হাইকোর্ট।

Published

on

supreme court
সুপ্রিম কোর্ট। গুগল ইমেজ থেকে নেওয়া ছবি

নয়াদিল্লি: বম্বে হাইকোর্টের দেওয়া নাবালক বা নাবালিকার যৌন নিগ্রহের একটি বিতর্কিত রায়ে স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে ভেণুগোপাল বলেছেন, এই রায় একটি বিপজ্জনক নজির স্থাপন করবে।

বম্বে হাইকোর্টের রায়ে বলা হয়েছিল, “ত্বকের সঙ্গে সংস্পর্শ না হলে, সেটাকে নাবালিকার যৌন নিগ্রহ বলা যায় না। পোশাকের উপর দিয়ে স্তনে হাত দিলে পকসো আইনের আওতায় সেটাকে যৌন নিগ্রহের মধ্যে ধরা হবে না”।

গত ১৯ জানুয়ারি বিতর্কিত রায়টি শুনিয়েছিল বম্বে হাইকোর্টের বিচারপতি পুষ্প গণেদিওয়ালার নেতৃত্বে একক বিচারপতির বেঞ্চ। বম্বে হাইকোর্টের নাগপুর বেঞ্চের ওই রায়ে বলা হয়, যৌন নিপীড়ন হিসাবে বিবেচিত হওয়ার জন্য “যৌন অভিপ্রায়ের সঙ্গে ত্বক থেকে ত্বকে সংযোগ হওয়া উচিত”।

Loading videos...

একই সঙ্গে বিচারপতি মন্তব্য করেন, “যৌন নিগ্রহ হিসেবে চিহ্নিত হওয়ার জন্য পেনিট্রেশন বা শিশুর শরীরে অঙ্গপ্রবেশ করতে হবে তেমনটা নয়, তবে পোশাকের উপর দিয়ে হলে নয়, ভিতর দিয়ে হলে তবেই”।

হাইকোর্টের এই রায় প্রকাশ্যে আসার পরেই বিতর্কের ঝড় ওঠে সারা দেশ জুড়ে। শিশুদের সুরক্ষা নিয়ে নতুন করে উদ্বেগ দেখা দেয়। অনেক আইনজীবীও বলেন, এমন রায় তাঁরা কোনো দিন শোনেননি। শেষমেশ বিতর্কের জল গড়ায় শীর্ষ আদালতে।

আরও পড়তে পারেন: ‘ত্বক থেকে ত্বকে সংযোগ’ ছাড়া ‘নিছক অনুভূতি’কে যৌন নিপীড়ন বলা যায় না: হাইকোর্ট

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ23 mins ago

ন’মাস পরে দিল্লিতে দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা একশোর নীচে!

বিনোদন1 hour ago

‘তাণ্ডব’-এর নির্মাতা, অভিনেতাকে সম্ভাব্য গ্রেফতারির হাত থেরে সুরক্ষা দেওয়ার আরজি ফেরাল সুপ্রিম কোর্ট

দেশ2 hours ago

২৬ জানুয়ারির হিংসাত্মক ঘটনার জেরে কৃষক বিক্ষোভ থেকে সরে দাঁড়াল দু’টি সংগঠন

বিদেশ3 hours ago

কোভিড-১৯ আটকাতে নাকে নেওয়ার স্প্রে আবিষ্কার করলেন বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা

ঝাড়গ্রাম3 hours ago

তৃণমূলকে ভোট ‘না’ বলে দিন, ঝাড়গ্রামের সভায় বললেন শুভেন্দু অধিকারী

রাজ্য4 hours ago

‘দুয়ারে সরকার’-এর সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

রাজ্য4 hours ago

ফের অসুস্থ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

রাজ্য5 hours ago

বিধানসভার অধিবেশন শুরুর দিনেই ভিভিআইপি গেট আটকে বিক্ষোভ শিক্ষক ঐক্য মুক্তমঞ্চের

শিল্প-বাণিজ্য9 hours ago

ফের বাড়ল পেট্রোল, ডিজেলের দাম, কলকাতায় নতুন রেকর্ড

ফুটবল2 days ago

বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও চার ফুটবলারের

কলকাতা1 day ago

উত্তর কলকাতার অলিতেগলিতে লুকিয়ে রয়েছে ইতিহাস, সাধারণতন্ত্র দিবসে হেঁটে দেখা

কলকাতা2 days ago

নারকেলডাঙার ছাগলপট্টিতে আগুন, হতাহতের খবর নেই

প্রযুক্তি1 day ago

টিকটক-সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপ চিরতরে বন্ধ করে দিল কেন্দ্র

অ্যাডভেঞ্চার2 days ago

হাতে হাত ধরে, জাতীয় সংগীত গেয়ে কে-২ আরোহণ নেপালের দশ শেরপার, দেখুন ভিডিও

রাজ্য9 hours ago

কনকনে উত্তুরে হাওয়া ঢুকছে রাজ্যে, প্রবল শীতের সম্ভাবনা রাজ্য জুড়ে

রাজ্য2 days ago

মেঘ-কুয়াশার যুগলবন্দিতে বাড়ল পারদ, তবে শীত ফিরবে দ্রুত

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা5 days ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা6 days ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা6 days ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা1 week ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 weeks ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা3 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

নজরে