নয়াদিল্লি: মন্দির তৈরি করার আগে ছাত্রসমাজের উচিত শৌচালয় তৈরি করা। সোমবার ছাত্রসমাজের উদ্দেশে এমনই বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

স্বামী বিবেকানন্দের শিকাগো বক্তৃতার ১২৫ বছর এবং দীনদয়াল উপাধ্যায়ের একশো বছরের জন্মদিন উপলক্ষে ভারতের ছাত্রসমাজের প্রতি এ দিন দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে বক্তৃতা দেন মোদী। সেখানে তিনি বলেন, নিজের মাতৃভূমিকে যে নোংরা করে, তার বন্দেমাতরম গাওয়ার কোনো অধিকার নেই। তিনি আরও বলেন, “আমরা রাস্তাঘাট পরিষ্কার করি কি না করি, রাস্তাঘাট নোংরা করার কোনো অধিকার আমাদের নেই।”

প্রধানমন্ত্রী মনে করিয়ে দেন যে মন্দির তৈরি করার আগে ছাত্রদের প্রথমে শৌচালয় তৈরি করা উচিত। তাঁর কথায়, “জনসেবা করা মানেই প্রভুর সেবা করা।” বিবেকানন্দের ‘এক এশিয়া’-এর উদ্ধৃতি টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “শিকাগো বক্তৃতায় স্বামীজি বলেছিলেন বিশ্বের সব সমস্যার সমাধান বেরোবে এশিয়া থেকে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের ছাত্রসমাজ এখন আর নিয়োগ প্রার্থী নয়, বরং নিয়োগকর্তা হবেন। ছাত্র সাংসদের নির্বাচনের সময়েও যাতে ‘স্বচ্ছ ভারত’-এর প্রচার চালানো হয়, সে কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই সঙ্গে আধুনিক ভারতে নিজেদের অবদান রেখে যাওয়ার জন্য ছাত্রসমাজ আবেদন করেন তিনি। তাঁর কথায়, “পাঁচ হাজার বছর আগে একটা দেশ কেমন ছিল, সেই মাপকাঠি এখন আর প্রযোজ্য হয় না।”

বেশ কিছু কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংস্থা ভ্যালেন্টাইন্স ডে উদযাপনের তীব্র প্রতিবাদ করে। প্রধানমন্ত্রী অবশ্য উলটো সুরই গেয়েছেন। মজার ছলে তিনি বলেন, কেউ ‘রোস ডে’ পালন করতে চাইলে, করতেই পারে। সেই সঙ্গে ছাত্রসমাজের মধ্যে ভ্রাতৃত্ব বাড়ানোর জন্য আরও একটা পদক্ষেপের কথা বলেন তিনি।

স্কুল কলেজে অন্য রাজ্যের উৎসবও পালন করা উচিত, এমনই বলেন প্রধানমন্ত্রী। “হরিয়ানার কোনো কলেজে যদি তামিল দিবস পালিত হয় এবং পঞ্জাবের কোনো কলেজে যদি কেরল দিবস পালিত হয়, তার থেকে ভালো আর কিছু হতে পারে না।”

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন