‘টুকলি’ রোখার নামে পড়ুয়াদের সঙ্গে পশুর মতো আচরণের অভিযোগ

0
Exam
ছবি: টুইটার থেকে

ওয়েবডেস্ক: বেঙ্গালুরু থেকে ৩৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত হাভেরির ভগত প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিল শিক্ষা দফতর। ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পরীক্ষায় টুকলি রোখার নামে পরীক্ষার্থীদের মাথায় কার্ডবোর্ডের বাক্স লাগিয়ে তাঁদের সঙ্গে পশুর মতো আচরণ করা হয়েছে।

কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের মিড-টার্ম রসায়ন পরীক্ষা নেওয়ার সময় তাঁদের মাথায় কার্ডবোর্ডের বাক্স পরানো হয়। সেই ছবিই সোস্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। যা নজরে পড়ে শিক্ষা দফতরেরও। খোদ শুক্রবার শিক্ষামন্ত্রী এস সুরেশ কুমার কলেজ কর্তৃপক্ষকে ভর্ৎসনা করে জানিয়েছেন এ ধরনের আচরণকে কোনো মতেই সমর্থন করেন না তিনি। তাঁর কড়া হুঁশিয়ারি, “ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে পশুর মতো আচরণ করার অধিকার কারও নেই। এমন অন‌্যায়ের বিরুদ্ধে কড়া ব‌্যবস্থা নেওয়া হবে।” কী ভাবে নেওয়া হয়েছিল পরীক্ষা?

Shyamsundar

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ছবি থেকেই জানা গিয়েছে, পরীক্ষা চলাকালীন পরীক্ষার্থীদের মাথায় একটি করে কার্ডবোর্ডের বাক্স লাগিয়ে দেওয়া হয়। সেই বাক্সে চোখের কাছাকাছি জায়াগয় গোল করে দু’টি ফুটো করে দেওয়া হয়। কর্তৃপক্ষের মতে, এ ভাবে মাথায় কার্ডবোর্ডের বাক্স লাগানো থাকায় অন্য কোনো পরীক্ষার্থীর খাতার দিকে নজর পৌঁছানো সম্ভব হবে না।

একই সঙ্গে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, পরীক্ষার্থীরা না কি এ ধরনের প্রস্তাব স্বেচ্ছায় মেনে নেন। যদিও পড়ুয়ারা দাবি করেছেন, কর্তৃপক্ষের চাপের মুখে পড়েই তাঁরা মাথায় কার্ডবোর্ডের বাক্স পরতে বাধ্য হয়েছিলেন।

হাভেরির ভগত প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজে পরীক্ষা চলছে। ছবি: টুইটার থেকে

টুকলি-সহ পরীক্ষাকেন্দ্রের যে কোনো প্রতারণার হাত থেকে উদ্ধার পেতে এক অভিনব এবং অবশ্যই বিতর্কিত পন্থার উদ্ভাবন কিন্তু বেশ কয়েক মাস আগেই হয়েছিল বিদেশে! যার জেরে অভিভাবকদের তীব্র ক্ষোভের মুখে পড়তে হয় মেক্সিকোর একটি স্কুলের শিক্ষককে। এমনকী তাঁকে স্কুল থেকে বহিষ্কারেরও দাবি উঠেছিল।

ঘটনাটি মধ্য মেক্সিকোর এল সাবিনাল স্কুলের। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুয়ায়ী, স্কুলের ‘নীতি এবং মূল্যবোধ’ বিভাগের শিক্ষক লুইস জুয়ারেজ টেক্সিস এই বিতর্কিত পন্থা অনুসরণ করেন। তিনি পরীক্ষার সময় পড়ুয়াদের প্রতারণামূলক অভিসন্ধি থেকে বিরত করতে তাঁদের মাথা একটি করে কার্ডবোর্ডের বাক্সে ঢেকে দেন। সেই ছবিই ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। দ্রুত ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে অভিভাবক মহলে।

students
মেক্সিকোর ওই স্কুলের ছবি: মেল অনলাইন থেকে

সম্ভবত, ওই ঘটনা থেকেই উৎসাহিত হতে পারেন ভগত প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজ কর্তৃপক্ষ। কেউ কেউ বলছেন, টুকলি রুখতে বিতর্কিত পদ্ধতি টুকলি করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ! কিন্তু আর যাইহোক, এ ধরনের কৌশলকে অমানবিক বলেই দুষছেন পড়ুয়া থেকে শুরু করে অভি্ভাবকরাও।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন