ওয়েবডেস্ক: শরীর ভালো না থাকলে অধিকাংশ সময়েই জানান দেয়। নানা লক্ষণ, উপশম দেখে আমরা বুঝি চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সময় এসেছে। কিন্তু মনের অসুখ বুঝতে পারি যতক্ষণে, ততক্ষণে সে জাঁকিয়ে বসেছে অনেক গভীরে। মনও কিন্তু তার ভালো না থাকার কথা জানান দিয়েছিল। বুঝতে বড় দেরি হয়ে গেল। এরকমটা তো আকছার ঘটছে আমাদের চারপাশে। সম্প্রতি ল্যানসেটে প্রকাশিত হওয়া জাতীয় স্তরের এক সমীক্ষার ফলাফল জানিয়ে দিল এক তথ্য। দেশের যে সব অঞ্চলে শিক্ষিত লোকের বাস বেশি, যেখানে নগরায়নের প্রভাব বেশি, সেখানেই মানসিক অসুস্থতা সবচেয়ে বেশি। অথচ শিক্ষা না কি সচেতনতা বাড়ায়!

সমীক্ষার ফলাফল বলে দিচ্ছে দেশ জুড়ে, উদ্বেগ, অবসাদ, আত্মহত্যা বা আত্মহত্যার চেষ্টা বাড়ছে। অক্ষমতা নিয়ে বেঁচে থাকার কারণের একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছিল সমীক্ষার আয়োজকদের পক্ষ থেকে। তালিকায় থাকা প্রথম ১০টি কারণের মধ্যে রয়েছে অবসাদ এবং উদ্বেগজনিত মানসিক অসুস্থতা। মৃত্যুর কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা রোগের তালিকায় ডায়াবেটিস(১৩), কিডনির অসুখ(২০), অ্যাস্থমা(২৩), এইচআইভি/এইডস(২৫)-এর মতো রোগকে পেছনে ফেলে ১১ নম্বরে উঠে এসেছে সেলফ্‌ হার্ম অর্থাৎ নিজের ক্ষতি করা। ২০১৬-র পরিসংখ্যান অনুযায়ী নিজের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি যত্ন না নেওয়ার প্রবণতা অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতে ১.৮ গুণ। ১০ থেকে ২৪ বছরের ভারতীয় জনসংখ্যার মধ্যে মৃত্যুর কারণের তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে আত্মহত্যা। ২০১৩ সালে দেশে ৬৩০০০ আত্মহত্যার ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছিল। বাস্তবের সংখ্যাটা আন্দাজ করতেও ভয় হয়।

আরও পড়ুন; মহিলাদের অবসাদের অন্যতম কারণ কর্মক্ষেত্রে যৌন হেনস্থা: সমীক্ষা

দেশের কোন অঞ্চলে মানুষের মানসিক অবস্থা কেমন, তা বোঝাতে তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে ভারতের মানচিত্রটাকে। আর্থ সামাজিক ভাবে পিছিয়ে পড়া অঞ্চল, উত্তর পূর্ব ভারত এবং তিন নম্বরে ভারতের বাকি অঞ্চল। সমীক্ষার ফলাফল বলছে বিহার, ঝাড়খণ্ড, ছত্তীসগঢ়, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, ওড়িশা, উত্তরাঞ্চল, উত্তরপ্রদেশের মত আর্থ সামাজিক দিক থেকে পিছিয়ে পড়া রাজ্যগুলোতেই আত্মহত্যার সংখ্যা তুলনামূলক ভাবে অনেক কম। মৃত্যুর কারণের তালিকায় ১৫ নম্বরে রয়েছে আত্মহত্যা। অন্য দিকে মহারাষ্ট্র, কেরালা, কর্নাটক, দিল্লির মতো রাজ্যে আত্মহত্যার হার বেশ বেশি। তালিকায় আত্মহত্যা রয়েছে ছ’নম্বরে।

ব্লু হোয়েল খেলা নিষিদ্ধ করতে যত তৎপর রাষ্ট্র, কোন মানসিক অবস্থা থেকে এই খেলা বেছে নেওয়া, তা বুঝতে  সেই তাগিদ নেই কেন? একটা সুস্থ স্বাভাবিক মন তো এমন খেলায় আশ্রয় খোঁজে না, যেখানে জীবন শেষ করে ফেলাটাই চরম পাওয়া।

সংবাদ সৌজন্য : দ্য কুইন্ট

 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here