sujoy ghosh

ওয়েবডেস্ক: ৪৮তম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের (আইএফএফআই) ‘ইন্ডিয়ান প্যানোরমা’ বিভাগে দেখানোর জন্য যে সিনেমাগুলি বেছেছিল ১৩ জনের জুরি, তার মধ্যে থেকে দু’টিকে বাদ দিয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রক। এই ঘটনার কয়েক দিনের মধ্যেই আইএফএফআইয়ের প্যানেল থেকে ইস্তফা দিলেন জুরির প্রধান, পরিচালক সুজয় ঘোষ।

যদিও ইস্তফার কোনো কারণ ব্যাখ্যা করেননি ‘কহানি’র পরিচালক, তবে মনে করা হচ্ছে মন্ত্রকের এই আচরণে ক্ষুব্ধ হয়েই পদত্যাগ করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৯ নভেম্বর ‘ইন্ডিয়ান প্যানোরমা’ বিভাগে ‘ফিচার’ এবং ‘নন-ফিচার’ সিনেমার চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করে মন্ত্রক। দেখা যায় ১৩ জনের জুরির বাছাই করা সিনেমাগুলির মধ্যে থেকে দু’টিকে বাদ দিয়েছে মন্ত্রক। যে দু’টি সিনেমাকে বাদ দেওয়া হয় সেগুলি হল সনল শশীধরণের মালায়ালি সিনেমা ‘এস দুর্গা’ এবং রবি যাধবের মরাঠি সিনেমা ‘ন্যুড’। কেন্দ্রের এই পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করেন জুরির কয়েক জন সদস্য। যদিও এই ব্যাপারে এখনও কোনো সদুত্তর দেয়নি কেন্দ্র। ২০ নভেম্বর গোয়ায় শুরু হচ্ছে ৪৮তম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব, চলবে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

ঠিক কী বিষয়বস্তু ছিল এই দু’টি সিনেমার?

এর আগে অনেক আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবেই দেখানো হয়েছে ‘এস দুর্গা’। এই ছবিতে মূলত নারীবিদ্বেষী সমাজের কথা তুলে ধরা হয়েছে। এক দম্পতি সারারাত কী রকম বাধাবিপত্তির মধ্যে পড়েছে, সেই সবই এই ছবিতে দেখানো হয়েছে। অন্য দিকে একটি আর্ট স্কুলের ন্যুড মডেলকে তার জীবনে কী সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে সেটাই দেখানো হয়েছে ‘ন্যুড’ ছবিতে।

তাঁদের না জানিয়ে তালিকা থেকে সিনেমা বাদ দেওয়ায় স্তম্ভিত শশীধরণ এবং যাধব। জুরির এক সদস্য অপূর্ব আসরানি বলেন, “বর্তমান সমাজব্যবস্থার প্রেক্ষিতে ‘এস দুর্গা’ এবং ‘ন্যুড’ খুব শক্তিশালী দু’টি সিনেমা। এই সিনেমা দু’টির মাধ্যমে আজকের সমাজে নারীদের প্রকৃত অবস্থা দেখানো হয়েছে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here