তৈরি হবে সাংবিধানিক বেঞ্চ, সিএএ-তে স্থগিতাদেশ না দিয়ে কেন্দ্রকে চার সপ্তাহ সময় দিল সুপ্রিম কোর্ট

0
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কেন্দ্রের জবাব না শোনা পর্যন্ত তার ওপরে স্থগিতাদেশ দেওয়া হবে না। বুধবারই এমনই জানাল সুপ্রিম কোর্ট। সেই জবাব শোনার জন্য কেন্দ্রকে চার সপ্তাহ সময় দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

তবে এই মামলাগুলি শোনার জন্য পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ তৈরি হবে বলেও জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে। এ দিন সকাল থেকেই সুপ্রিম কোর্টের নাগরিকত্ব আইনের ব্যাপারে শুনানি হয়। সারা দেশের নজর ছিল এই শুনানির ওপরেই।

১৪৪টা আবেদন জমা পড়েছে শীর্ষ আদালতে। এর মধ্যে অধিকাংশ আবেদনেই দাবি করা হয়েছে যে নয়া এই আইনটি যেন প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। অল্পসংখ্যক কিছু আবেদনে এই আইনের পক্ষেও দাবি তোলা হয়েছে।

প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ এ দিন এই আবেদনগুলি শুনেছেন।

আবেদনকারীদের দাবি, সংবিধানের মূল বার্তাটিকে লঙ্ঘিত করে এই আইন এনেছে কেন্দ্র। তাদের দাবি, ধর্মের ভিত্তিতে কাউকে নাগরিকত্ব দেওয়ার কোনো অধিকার কেন্দ্রের নেই। সংবিধানে যে সমানাধিকারের কথা বলা রয়েছে, সেটা কেন্দ্র লঙ্ঘন করছে বলে দাবি করা হয়েছে।

সেই সঙ্গে আবেদনকারীদের আরও দাবি, এই আইনের মধ্যে দিয়ে ভারতের ধর্মনিরপেক্ষতা ক্ষুণ্ণ হবে। তাদের দাবি, সব ধর্মের মানুষকে সমান চোখে দেখার দায়িত্ব কেন্দ্রের।

আবেদনকারীদের মধ্যে রয়েছে একাধিক রাজনৈতিক দল। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল কংগ্রেস, ডিএমকে, সিপিআই, সিপিএম, মুসলিম লিগ, আকবরউদ্দিন ওয়েইসির এআইএমআইএম এবং কমল হাসনের মাক্কাল নিধি মাইয়াম।

আরও পড়ুন ফের বদলাচ্ছে দার্জিলিং পাহাড়ের রাজনৈতিক সমীকরণ?

এ ছাড়া রাজ্য হিসেবে এই আইনের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে কেরলও।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.