পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন উদয় উমেশ ললিত! জানুন তাঁর দেওয়া ৩টি তাৎপর্যপূর্ণ রায়

প্রধান বিচারপতি এনভি রমনার (NV Ramana) কার্যকালের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ২৬ আগস্ট। পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হিসেবে সুপারিশ করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি উদয় উমেশ ললিতের (UU Lalit) নাম।

0
UU Lalit and NV ramana
ইউইউ ললিত এবং এনভি রমনা। সংগৃহীত প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: প্রধান বিচারপতি এনভি রমনার (NV Ramana) কার্যকালের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ২৬ আগস্ট। পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হিসেবে সুপারিশ করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি উদয় উমেশ ললিতের (UU Lalit) নাম।

বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে সিনিয়র বিচারপতি ইউইউ ললিত। সূত্রের খবর অনুযায়ী, আগামী ২৭ আগস্ট প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব বর্তাতে পারে তাঁর হাতে। তবে উল্লেখযোগ্য বিষয়টি হল, তিন মাসেরও কম সময় ওই পদে থাকবেন তিনি। কারণ, চলতি বছরের ৮ নভেম্বর অবসর নিতে হবে তাঁকে।

বার থেকে সরাসরি সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চে উন্নীত হয়েছিলেন ললিত। সেই জায়গায় দেশের প্রধান বিচারপতি হলে, তিনিই হবেন দ্বিতীয় কোনো বিচারপতি, যিনি আইনজীবী থেকে সরাসরি সর্বোচ্চ আদালতের বেঞ্চে উন্নীত হয়েছিলেন। তাঁর আগে, ১৯৭১ সালে আইনজীবী থেকে সরাসরি সর্বোচ্চ আদালতের বেঞ্চে উন্নীত হয়েছিলেন বিচারপতি এস এম সিকরি।

ইউইউ ললিতের ৩টি তাৎপর্যপূর্ণ রায়

তিন তালাক মামলা: নতুন করে বলার নয়, তিন তালাক মামলার রায় ছিল একটি যুগান্তকারী রায়। সংখ্যাগরিষ্ঠ বিচারপতিদের রায়ে তিন তালাক প্রথা ‘অসাংবিধানিক’ বলে ঘোষণা করে সুপ্রিম কোর্ট। ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ ৩-২ সংখ্যাগরিষ্ঠের ভিত্তিতে তিন তালাককে অবৈধ বলে অভিহিত করে। তিন তালাক প্রক্রিয়া সংবিধানকে লঙ্ঘন করে বলে মত দিয়েছিলেন তিন বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, আরএফ নরিমান এবং ইউইউ ললিত।

ত্বকের সঙ্গে ত্বকের স্পর্শে যৌন নির্যাতন মামলা: কোনো শিশুর শরীরের যৌনাঙ্গ স্পর্শ করা বা যৌন অপরাধ থেকে শিশুদের সুরক্ষা (পকসো) আইনের ৭ ধারার অধীনে ‘যৌন অভিপ্রায়’-সহ শারীরিক যোগাযোগের সঙ্গে জড়িত কোনো কাজ ‘যৌন নিপীড়নের’ সমান। ত্বকের সঙ্গে ত্বকের স্পর্শে যৌন নির্যাতন মামলায় এই রায় দেওয়া বেঞ্চের নেতৃত্বে ছিলেন ললিত। বম্বে হাইকোর্টের একটি রায় বাতিল করে দিয়ে বেঞ্চ বলে, এ ধরনের ক্ষেত্রে যৌন অভিপ্রায় গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি আইনের আওতা থেকে সরানো যাবে না। পকসো আইনের অধীনে যৌন নিপীড়নের জন্য ত্বকের সঙ্গে ত্বকের যোগাযোগের প্রয়োজন নেই। আইনের উদ্দেশ্য অপরাধীকে আইনের ফাঁদ থেকে পালাতে না দেওয়া।

বিজয় মাল্য আদালত অবমাননা মামলা: বিচারপতি ইউইউ ললিতের নেতৃত্বে তিন বিচারকের বেঞ্চ পলাতক ব্যবসায়ী বিজয় মাল্যকে আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে চার মাসের কারাদণ্ড দেয়। মাল্যর বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল কনসর্টিয়াম অব ব্যাঙ্কস। স্টেট ব্যাঙ্কের নেতৃত্বে ওই আবেদনে দাবি করা হয়েছিল, শীর্ষ আদালতকে প্রতারণা করেছেন মাল্য। ফলে তাঁর বিরুদ্ধে ‘ইচ্ছাকৃত’ ভাবে সুপ্রিম কোর্টের আদেশ অমান্য করার মামলা রুজু করা হোক। সেই আবেদনের ভিত্তিতে এই রায় দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

আরও পড়তে পারেন:

তাইল্যান্ডের নাইটক্লাবে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নাচতে নাচতেই ঝলসে মৃত ১৩

এনআইএর হাতে গ্রেফতার দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গী ছোটা সাকিলের আত্মীয়

সৌন্দর্যের প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বদলি হলেন তামিলনাড়ুর পাঁচ পুলিশকর্মী

পার্থর মেয়ে-জামাইকে ইমেল করে কলকাতায় ডেকে পাঠাল ইডি

ফের শ্রীলঙ্কার বন্দরে যাচ্ছে চিনা জাহাজ, কড়া নজর রাখছে ভারত

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন