sridevi

ওয়েবডেস্ক: চলতি বছরের শুরুর দিকেই যখন খবরটা এসেছিল, নড়ে-চড়ে বসেছিল দেশ। মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না কিছুতেই- শ্রীদেবী আর নেই! দেশের প্রথম সুপারস্টার অভিনেত্রীর মৃত্যু ঘিরে দানা বাঁধা সন্দেহের অবসানে আবেদন জমা পড়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র আবেদনকারীকে জানিয়ে দিলেন, “আমরা এই তদন্তে হস্তক্ষেপ করব না”।

ভারতীয় ছায়াছবির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই নায়িকার মৃত্যু তার পর দেখতে দেখতে চেহারা নিল রহস্যের। দুবাইয়ে ভাগ্নে মোহিত মারওয়ার বিয়ে থেকে পরিবারের সবাই ফিরে এলেও তিনি কেন রয়ে গেলেন একা, সেই প্রশ্নের সদুত্তর মেলেনি। সদুত্তর মেলেনি মৃত্যুর কারণ নিয়েও। ময়নাতদন্ত কী ভাবে এই মৃত্যুকে দুর্ঘটনা বলতে পারে, তা নিয়েও সওয়ালের পর সওয়াল হয়েছে। কিন্তু প্রত্যাশিত জবাব আর আসেনি।

sridevi

এ বার কি তা হলে জবাব মেলার পালা?

সুনীল সিং অন্তত তাই মনে করছেন। ‘গেম অব অযোধ্যা’ ছবিটি করে বিখ্যাত এই পরিচালক শুরু থেকেই চেয়েছিলেন- শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে একটা ঠিকঠাক তদন্ত হোক। যুক্তি হিসাবে জানিয়েছিলেন সিং- শ্রীদেবীর আচমকা এই মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। তা ছাড়া দেশ তার নায়িকার এ রকম রহস্যজনক পরিণতি সম্পর্কে চুপ করে থাকতে পারে না। যে নায়িকা বিশ্বদরবারে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন, তাঁর প্রতি দেশের একটা কর্তব্য থাকেই!

সেই মর্মে দিল্লির উচ্চ আদালতে শ্রীদেবীর মৃত্যুরহস্যে একটি মামলা দাখিল করেন সিং। কিন্তু আদালত তাঁর আবেদন খারিজ করে দেয়। দমে না গিয়ে সিং এর পর দ্বারস্থ হন শীর্ষ আদালতের। জানা গিয়েছে, শীর্ষ আদালত তাঁর আবেদন গ্রহণ করেছে। শুক্রবারেই এই মামলা উঠেছিল আদালতে।

sridevi

সিং আরও জানিয়েছেন, শ্রীদেবীর মৃত্যুর সময়ে তিনিও ছিলেন দুবাইতে। খবর পেয়েই তিনি দৌড়ে যান ওই পাঁচতারায় যার ঘরে বাথটবে নায়িকার নিথর দেহ মেলে! সেখানে হোটেলকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে অনেক সাক্ষ্যপ্রমাণ তিনি সংগ্রহ করেছেন যা না কি মৃত্যুর আসল কারণ প্রকাশ্যে আনার পক্ষে পর্যাপ্ত!

কিন্তু শীর্ষ আদালতে সেই আবেদন খারিজ হয়ে গেল!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here