মাল্যর অনুপস্থিতিতে তাঁকে দণ্ড দেওয়া যায় না, বলল সুপ্রিম কোর্ট

0
267

নয়াদিল্লি: আদালত অবমাননার মামলায় বিজয় মাল্যকে কী শাস্তি দেওয়া হবে সে ব্যাপারে শুনানি পিছিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালত বলেছে, বিজয় মাল্যর অনুপস্থিতিতে তাঁকে দণ্ড দেওয়া সম্ভব নয়। শীর্ষ আদালতের এই মন্তব্যের জবাবে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হল, মাল্যকে প্রত্যর্পণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে ব্রিটিশ ক্রাউন কোর্টে এ বছরের ডিসেম্বরে মামলা শুরু হবে বলে আশা করা যায়।

প্রত্যর্পণের ব্যাপারে সরকার কী ব্যবস্থা নিয়েছে, তা সবিস্তার শোনার পর বিচারপতি আদর্শ কুমার গোয়েল এবং বিচারপতি উদয় উমেশ ললিতের বেঞ্চ বলে, আদালতে মাল্যের হাজিরার দিন বিষয়টি আবার উঠবে।”

অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল পরে হিন্দুস্তান টাইমস-কে বলেন, “আশা করা যায় ২০১৮-এর জানুয়ারি নাগাদ আমরা বিজয় মাল্যকে হাতে পাব।” মাল্য-সহ আরও যে সব ভারতীয় ব্রিটেনে পালিয়ে রয়েছেন তাঁদের প্রত্যর্পণের বিষয়টি দ্রুত ফয়সালা করার জন্য মে মাসে ব্রিটিশ যুক্তরাজ্যকে অনুরোধ করে ভারত।

৯০০০ কোটি টাকা ব্যাঙ্কঋণ খেলাপ মামলা এড়াতে ভারত থেকে পালিয়ে লন্ডনে রয়েছেন বিজয় মাল্য। মামলার প্রক্রিয়ায় মাল্যকে তাঁর সম্পূর্ণ সম্পত্তির হিসেব জানানোর নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত। মাল্য তা দেননি। কিছু আর্থিক লেনদেন বন্ধ রাখতে বলেছিল কর্নাটক হাইকোর্ট। মাল্য শোনেনি সেটাও। ফলে আদালত অবমাননার অভিযোগে তাঁকে ১০ জুলাই সুপ্রিম কোর্টে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল শীর্ষ আদালত।

এ দিকে লন্ডনে বেশ খুশিতেই আছেন মাল্য। অন্তত তাঁর কথাবার্তায় সেটাই মনে হচ্ছে। শুক্রবার রয়টার্সকে বলেছেন, ভারতে না থাকার জন্য তিনি কিছুই ‘মিস’ করছেন না। বরং ভারতের প্রথম ফরমুলা ওয়ান এন্ট্রি ‘ফোর্স ইন্ডিয়া’র মালিক হিসাবে দশ বছর উদযাপন করাটা উপভোগ করছেন।

মাল্য বলেন, “আমার নিকট আত্মীয়রা হয় ইংল্যান্ডে আর না হয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন। কেউ ভারতে নেই। আমার ভাইবোনেরাও ব্রিটেনের নাগরিক। সুতরাং পরিবারগত ভাবে কাউকে হারাচ্ছি না।” তাঁর বিরুদ্ধে চলা মামলা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি কোনো অন্যায় করেননি। যা চলছে তার সবটাই ডাইনি খোঁজার মতো ব্যাপার। উল্লেখ্য, মাল্যের প্রত্যর্পণ মামলা ব্রিটিশ ক্রাউন কোর্টে ৪ ডিসেম্বর ওঠার কথা।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here