মৃতের নিকটাত্মীয়ের সাক্ষ্যকেও উড়িয়ে দেওয়া যায় না, বধূ নির্যাতন মামলায় তাৎপর্যপূর্ণ পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের

0

ঘরোয়া হিংসার মামলার শিকার হতে হয় শ্বশুরবাড়িতে। ফলে সেখানে কোনো নিরপেক্ষ সাক্ষী পাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। সে ক্ষেত্রে নির্যাতিতার নিকটাত্মীয়দের সাক্ষ্য উড়িয়ে দেওয়া উচিত নয়।

নয়াদিল্লি: মৃত ব্যক্তির সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে এমন কোনো নিকটাত্মীয় বা সাক্ষী হতে ইচ্ছুক ব্যক্তির প্রমাণের গুরুত্ব মোটেই উড়িয়ে দেওয়া উচিত নয়। কারণ, আইন ওই নিকটাত্মীয়কে সাক্ষী হিসেবে হাজির করার অযোগ্য মনে করে না।

বিচারপতি এসএ নাজির এবং বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারির একটি বেঞ্চ শুক্রবার গুজরাত হাইকোর্টের একটি আদেশকে বহাল রেখে পর্যবেক্ষণে এই মন্তব্য করে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ ধারা (আত্মহত্যায় প্ররোচণা) এবং ৪৯৮এ (স্বামী বা তার পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে নির্যাতন)-র অধীনে একজন ব্যক্তি এবং তার মাকে দোষী সাব্যস্ত করে দু’বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।

নিরপেক্ষ সাক্ষীর অভাব

সর্বোচ্চ আদালত বলেছে, প্রায়শই বিবাহিত মহিলার প্রতি নির্যাতনমূলক অপরাধ ঘরের মধ্যেই ঘটে থাকে। যার ফলে নিরপেক্ষ সাক্ষী পাওয়ার সম্ভাবনা সে ক্ষেত্রে কম। অতএব, ঘরোয়া হিংসার শিকার হওয়া ব্যক্তির পক্ষে তার বাবা-মা, ভাইবোন এবং অন্যান্য নিকটাত্মীয়দের সঙ্গে নিজের কষ্টের কথা ভাগাভাগি করে নেওয়া কোনো অস্বাভাবিক ঘটনা নয়।

বেঞ্চ বলেছে, আদালত যদি সাক্ষী হতে ইচ্ছুক ব্যক্তির সাক্ষ্য গ্রহণের অনুমতি দেয়, তা হলে তার সাক্ষ্য মূল্যায়নের ক্ষেত্রে খুব সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। অথবা অন্য কথায় সাক্ষী হতে ইচ্ছুক ব্যক্তির সাক্ষ্য দিয়ে পরীক্ষা করার ব্যাপারে সর্বোচ্চ সতর্কতার প্রয়োজন।

এই মামলার উৎস

১৯৯৭ সালের ২৭ এপ্রিল বিয়ে হয় গুমান সিং চৌহানের। অভিযোগ, বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসার জন্য স্ত্রীকে চাপ দিতে শুরু করে সে। স্ত্রীকে বলে, মোষ কেনার জন্য তার বাবার কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকা আনতে।

না আনার কারণে স্ত্রীকে মারধর করত গুমান। এমনকী তার মায়ের কাছ থেকে নানা রকম ভাবে অপমানিত হতে হতো স্ত্রীকে। এ ভাবে বেশ কিছু দিন চলতে থাকায় হতাশ হয়ে পড়েন স্ত্রী। তিনি ওই বছরেরই ১৪ ডিসেম্বর বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

খবর অনলাইন-এ আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ুন এখানে:

তৃণমূলে যোগ দিলেন কালিয়াগঞ্জের বিজেপি বিধায়ক সৌমেন রায়

কেন শুধুমাত্র ভবানীপুরে উপনির্বাচন হচ্ছে, কমিশনের জবাব চাইছেন শুভেন্দু অধিকারী

‘বিশেষ অনুরোধ’, একমাত্র মমতার কেন্দ্রেই উপনির্বাচন নিয়ে বলল কমিশন

জল্পনার অবসান! ভবানীপুরের উপনির্বাচন ৩০ সেপ্টেম্বর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন