vaishno devi

নয়াদিল্লি: পরিবেশ আদালত নির্দেশ দিয়েছিল ২৪ নভেম্বরের মধ্যে বৈষ্ণোদেবীর নতুন রাস্তা তীর্থযাত্রীদের জন্য খুলে দিতে হবে। সেই নির্দেশের ওপরে স্থগিতাদেশ দিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

নতুন রাস্তাটির কাজ এখনও চলছে। তাই কোনো মতেই ২৪ নভেম্বরের মধ্যে তা খোলা যাবে না। এই কারণেই বিচারপতি এমবি লোকুর এবং বিচারপতি দীপক গুপ্তর ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করে বৈষ্ণোদেবী শ্রাইন বোর্ড। সেই আবেদনের ভিত্তিতেই এই নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।

শ্রাইন বোর্ডেকে প্রতিনিধিত্ব করা আইনজীবী মুকুল রোহতগি বলেন, সামনের বছর ফেব্রুয়ারি নাগাদ এই রাস্তার কাজ শেষ হবে। তিনি বলেন, বৈষ্ণোদেবীর জন্য এটি তৃতীয় রাস্তা। পুরোনো রাস্তাতী ছাড়াও আরও একটি রাস্তা মন্দিরে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৩ নভেম্বর, সমাজকর্মী গৌরী মৌলেখির আবেদনের ভিত্তিতে এক গুচ্ছ নির্দেশ দিয়েছিল পরিবেশ আদালত। সেই নির্দেশে এক দিকে যেমন বলা হয়েছিল যে দিনে পঞ্চাশ হাজারের বেশি পুণ্যার্থী বৈষ্ণোদেবী যেতে পারবেন না, তেমনই মন্দিরের রাস্তায় থুথু ফেললে জরিমানার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল। এই নতুন রাস্তাটি দ্রুত খোলার নির্দেশের পাশাপাশি পুরোনো রাস্তাটি থেকে ঘোড়াদের সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here